অবহেলায় জনতা বাজার-হাইমচর সরকারি কলেজ সড়ক

হাসান আল মামুন :
হাইমচরে জনতা বাজার থেকে খালপাড় হয়ে সরকারি কলেজে চলাচলের রাস্তাটির বেহাল দশা। সরকারি কলেজের উত্তর পাশ থেকে জনতা বাজার পর্যন্ত রাস্তাটিতে প্রতিদিন শতশত মানুষের চলাচল। কিন্তু সে রাস্তাটি এখন অটো, সিএনজি, রিকশা, সাইকেল সহ সব ধরনের যানবাহন চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়ে আছে নিদারুণ অবহেলায়।
জানা যায়, ইতিমধ্যে হাইমচরের বেশ কয়েকটি কাঁচা রাস্তা পাকাকরণ ও যানবাহন চলাচলের রাস্তাগুলো সংস্কারের টেন্ডার হয়েছে। উপজেলার প্রানকেন্দ্র আলগী বাজারসহ প্রতিটি সড়কের কাজ দ্রুত গতিতে চলছে। অনেক রাস্তার কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে। কিন্তু জনতা বাজার থেকে সরকারি কলেজ যাওয়ার জন্য ব্যবহৃত এ রাস্তাটি দীর্ঘদিন পড়ে থাকলেও কেউ রাখেননি এর খোঁজ। হয়নি টেন্ডার, শুরু হয়নি সংস্কার।
স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান সরদার আবদুল জলীল মাস্টার বলেন- এ রাস্তাটি সংস্কার ও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের অবগত করেছি। রাস্তাটি সংস্কারের প্রক্রিয়া চলছে। মহামারী করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় সরকার দক্ষতার সাথে দেশের বৃহৎ স্বার্থে কাজ করে যাচ্ছে। অসহায়, কর্মহীন ও দিনমজুর পরিবারে খাদ্যের চাহিদা পূরণে সর্বপ্রকার প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। এমতাবস্থায় বিশ্বস্ততার সাথে বলা যায়- করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে চলে আসলেই রাস্তাটির মেরামত কাজ শুরু হবে।
হাইমচর উপজেলা প্রকৌশলী সমীর কুমার পালিত বলেন- জনতা বাজার থেকে কলেজ সংলগ্ন কালভার্ট পর্যন্ত রাস্তাটির সকল তথ্য ও পরিমাপ আমরা উর্ধতন কর্তৃপক্ষের কাছে জমা দিয়েছি অনেক আগেই। চলতি বছরেই রাস্তাটির কাজ অনুমোদন হয়ে চলে আসার কথা। কিন্তু কেন আসছে না, সেটা আমার জানা নেই। তবে খুব শীঘ্রই রাস্তাটির কার্পেটিং কাজ অনুমোদন হয়ে আসবে বলে আমরা আশাবাদী।
স্থানীয়রা জানান- স্কুল, কলেজ ও মাদরাসার শিক্ষার্থীদের চলাচলে যেমন অসুবিধা হচ্ছে তেমন-ই হাসপাতালে রোগী আনা-নেওয়া ও হাট-বাজারে যাতায়াতে চরম ভোগান্তির শিকার হতে হচ্ছে। তাই, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি এবং সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সুদৃষ্ট ও কার্যকর প্রদক্ষেপ কামনা করেছেন এলাকাবাসী।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *