কচুয়ায় কারামুক্ত শাহজাহান শিশিরের শোডাউনে হাজারো নেতাকর্মী

নিজস্ব প্রতিবেদক :
কচুয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা কারামুক্ত শাহজাহান শিশিরকে বরণ করে নিয়েছে কয়েক হাজার নেতাকর্মী। ৩ মাস ১২দিন টানা কারাভোগের পর জামিনে মুক্ত পেয়ে কচুয়ায় নিজ এলাকায় আগমনের পর নেতাকর্মীদের অশ্রু সিক্ত ভালোবাসা ও ফুলে ফুলে সিক্ত হয়েছেন সদ্য সাময়িক বরখাস্ত হওয়া উপজেলা চেয়ারম্যান শাহজাহান শিশির।
৭ ডিসেম্বর কুমিল্লা কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে জামিনে মুক্ত হওয়ার পর ১৫দিন ঢাকায় অবস্থানের পর তিনি গতকাল মঙ্গলবার ঢাকা থেকে সড়ক পথে কচুয়ার প্রবেশ পথ বারৈয়ারা এলাকায় পৌছলে হাজার হাজার নেতাকর্মী ও জনতা বিশাল গাড়ীবহর নিয়ে শোডাউন করে তাঁকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান। এসময় বারৈয়ারা থেকে জগতপুর পর্যন্ত অন্তত ১৫টি স্থানে শতশত উৎসুক নেতাকর্মী তাদের প্রিয়নেতা শাহজাহান শিশিরকে রাস্তা ও মোড়ে ফুল ছিটিয়ে বরণ করে নেন।
এ সময় উপস্থিত নেতাকর্মীরা অভিযোগ করে বলেন, স্কুল ভবন নির্মাণ কাজে অনিয়মের প্রতিবাদ করায় উপজেলা চেয়ারম্যান শাহজাহান শিশিরের বিরুদ্ধে একটি চক্র ষড়যন্ত্র করে একাধিক মামলা দায়ের করে। পরে তাকে সাময়িক বহিস্কার করে স্থানীয় সরকার বিভাগ। পরবর্তীতে তিনি জামিন নিতে আদালতে হাজির হলে উপজেলা চেয়ারম্যানকে কারাগারে পাঠান আদালত। তিন মাস দশ দিন কারাভোগের পর উচ্চ আদালত থেকে জামিনে মুক্তি পান। এরই মধ্যে তার বিরুদ্ধে ঢাকায় আইসিটি আইনে আরেকটি মামলা দায়ের করে ষড়যন্ত্রকারীরা। যে কারণে কারামুক্ত হলেও ওই মামলায় জামিন না পাওয়ার কারণে এতোদিন তিনি এলাকায় জনসম্মুখে আসেননি। পরে সেই মামলাটিতেও আদালত থেকে জামিন পান।
পথসভায় নেতাকর্মী ও এলাকাবাসীর উদ্দেশ্যে শাহজাহান শিশির বলেন, দুঃসময়ে যারা আমার পাশে থেকে যে ভালোবাসা দেখিয়েছেন তা আমি কোন দিনই ভুলবো না। আমি আপনাদের প্রতি কৃতজ্ঞ। আমি বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক এবং আওয়ামী লীগের কর্মী। বিগত দিনের মতো আগামী দিনেও আপনাদের পাশে থাকবো।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন কচুয়া উপজেলা যুবলীগের সহসভাপতি কাউন্সিলর কামাল হোসেন, সহসভাপতি সাইয়িদ মোরশেদ পলাশ, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. সেলিম, দপ্তর সম্পাদক মো. জহিরুল ইসলাম, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি ইঞ্জি. জহিরুল ইসলাম, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহসভাপতি আব্দুল মান্নান, আবুল সরকার, সাংগঠনিক সম্পাদক নিলয় খান, কচুয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ইব্রাহিম খলিল বাদল, সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন সবুজসহ আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মী।
পরে বিকালে শাহজাহান শিশির দলীয় নেতাকর্মী ও সমর্থকদের নিয়ে জগতপুর গ্রামে শায়িত তাঁর প্রয়াত বাবা সায়েদ আলী মিয়ার কবর জিয়ারত করেন। বারৈয়ারা ও সাচারে নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে সদ্য কারামুক্ত (সাময়িক বহিস্কার হওয়া) উপজেলা চেয়ারম্যান শাহজাহান শিশির বলেন, আমি আপনাদের ভালোবাসায় মুগ্ধ। আপানারা আমাকে এতো ভালোবাসেন তা জানা ছিলো না। বিগতদিনে আপানাদের পাশে ছিলাম ভবিষ্যতেও সুখে দু:খে পাশে থাকব।
মঙ্গলবার দুপুরে ১২টার দিকে কচুয়া উপজেলা সীমান্ত এলাকা বারৈয়ারা এলাকায় পৌছলে প্রথমে শাহজাহান শিশিরকে পৌর কাউন্সিলর ও প্যানেল মেয়র কামাল হোসেনের নেতৃত্বে ফুল দিয়ে বরণ করে নেয়া হয়। পরে বারৈয়ারা, বায়েক ও সাচার বাজারে ইউপি চেয়ারম্যান মনির হোসেন, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মিন্নত আলী তালুকদার মিনু, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সহিদ দর্জি, উপজেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সেলিম কবীর, উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদিকা কাজল রেখা, বিতারা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি কবির হোসেন মজুমদার,সাধারন সম্পাদক সোহাগ খান,বিতারা ইউনিয়ন যুবলীগের আহবায়ক ইসমাইল ভূইঁয়া ফুলেল শুভেচ্ছায় বরণ করেন।
শিমুলতলী মোড়ে ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি মিঞা মো: সোহেল ও সাধারন সম্পাদক সাইফুল ইসলাম,উত্তর পালাখাল মোডে উপজেলা প্রজন্মলীগের সহ-সভাপতি ও পালাখাল মডেল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রত্যাশী বাবুল সরদার,ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ন আহবায়ক রফিকুল ইসলাম রনি,যুবলীগ নেতা বাপ্পি সরকারসহ শতশত নেতাকর্মীরা শাহজাহান শিশিরকে সংবর্ধনা জানান। এমনি করে পালাখাল কলেজ গেইট,দোয়াটি,বাচাঁইয়া,ঘাগড়া,আকানিয়া বিশ^রোড,কচুয়া বিশ^ারোড,সুবিধপুর মোড়,মনোহরপুর,পালগিরি বাসস্ট্যান্ড,রহিমানগর বাজার,কাঠালবাগান ও জগতপুর বাজারে শতশত নেতাকর্মীরা তাঁকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান।
উল্লেখ্য, স্কুল ভবন নির্মাণে অনিয়মের কারণে শিক্ষা প্রকৌশল অধিদফতরের চাঁদপুরের উপ-সহকারী প্রকৌশলী নুরে আলমকে মারধরের অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়। গত ২৩ জুলাই স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয় থেকে চেয়ারম্যান শাহজাহান শিশিরকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয় এবং তার স্থলে প্যানেল চেয়ারম্যানকে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব দেওয়া হয়। পরে প্রকৌশলীর মামলায় আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন প্রার্থনা করলে আদালত তা নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠান। এছাড়া গত ২২ জুন চাঁদপুর মডেল থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মো. রকিবুল ইসলামের দায়ের করা মামলায় চেয়ারম্যান শাহজাহান শিশিরের জামিন নামঞ্জুর করে জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন আদালত। চাঁদপুর ও কুমিল্লা কেন্দ্রীয় কারাগারে ৩ মাস ১২ দিন কারাভোগের পর ৭ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় ৬টা ৪০ মিনিটে বিজ্ঞ আদালতের মাধ্যমে জামিনে মুক্ত হন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *