কচুয়ায় কোয়েল পাখির খামার পুড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ

কচুয়া প্রতিনিধি :
কচুয়ায় রাতের আধারে কোয়াল পাখির খামার পুড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। গত মঙ্গলবার মধ্যরাতে উপজেলার কাদলা ইউনিয়নের মহদ্দিরবাগ গ্রামে এই ঘটনা ঘটে।
গতকাল বুধবার খামার মালিক জিলানী মজুমদার বাদী হয়ে কচুয়া থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।
অভিযোগ সূত্রে জানাগেছে,উপজেলার মহদ্দিরবাগ গ্রামের মজুমদার বাড়ীর মৃত আমির মজুমদার ছেলে মেধাবী ছাত্র জিলানী মজুমদার কোয়ালে পাখির খামারে রাতারে আধারে কে বা কাহেরা শত্রুতা করে মঙ্গলবার রাত ২টা ২০ মিনিটে ৪টি খামারে আলেধা করে আগুন লাগিয়ে দেয়,এতে দুইটি ঘর সম্পূর্নরূপে পুড়িয়ে যায়। আগুনে পুড়িয়ে যাওয়া প্রায় আড়াই লক্ষ টাকা ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে অভিযোগে উল্লেখ্য করেন।
ক্ষতিগ্রস্থ জিলানী মজুমদার বলেন,আমি মূলত একজন কৃষি উদ্যোক্তা,আমার একটা স্বপ্ন ছিলো আমি বড় একজন উদ্যোক্তা হবো, সেই স্বপ্ন বাস্তবায়ন করার জন্য ৩বছর আগে আমি গ্রামের বাড়ী কচুয়া উপজেলার কাদলা ইউনিয়নের মহদ্দিরবাগ মজুমদার বাড়ীতে কোয়েল পাখিসহ বিভিন্ন জাতের পাখির খামার করি। আলহামদুল্লাহ সকলে বলে খামার দিয়ে আমি ভালো অবস্থানে আছি। গতকাল মধ্যরাতে কে বা কাহেরা আমার ক্ষয়ক্ষতি করার জন্য ৪টি খামারে আলেধা করে আগুন লাগিয়ে দেয়,পর প্রতিবেশীর সহতায় আগুন নিভিয়ে ফেলি। আমার খামারে থাকা পাখি ও বিভিন্ন মূলভার জিনিসপত্রসহ প্রায় আড়াই কাটা ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।
তিনি আরো বলেন, কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজ থেকে একাউন্ট নিয়ে আমি অনার্স-মাস্টার্সে প্রথম শ্রেনীতে উত্তীর্ণ হয়ে বিগত দুই বছরে জাতীয় পর্যায়ে বিভিন্ন সেমিনারে উদ্যোক্তা উৎসাহিত করনে অনেক বক্তৃতা দিয়েছেন। আমার একটা স্বপ্ন ছিলো আমি একজন বড় উদ্যোক্তা হবো,সেই স্বপ্ন বাস্তবায়ন করার জন্য খামার গুলো দিয়েছি। খামারের পাশাপাশি এলাকার গ্রামের মহিলাদেরকে আর্থিকভাবে লাভবান হওয়ার জন্য কারু পন্য উৎপাদন করে আসছি।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *