কচুয়া থেকে গার্মেন্টসকর্মী ধর্ষণ মামলার আসামি গ্রেফতার

চাঁদপুর প্রতিদিন ডেস্ক :
গার্মেন্টসকর্মী ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামিকে চাঁদপুর থেকে গ্রেফতার করেছে কুমিল্লা র‌্যাব। রবিবার (৯ আগস্ট) রাতে চাঁদপুর জেলার কচুয়া উপজেলার পালাখাল এলাকা থেকে মো. আমির হোসেন (৩৬) নামে ওই ধর্ষণ মামলার আসামিকে গ্রেফতার করা হয়।
আমির হোসেন সুনামগঞ্জ জেলার দোয়ারা উপজেলার আলীপুর গ্রামের সিদ্দিকুর রহমানের ছেলে। সোমবার (১০ আগস্ট) গ্রেফতারের বিষয়টি এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানান কুমিল্লা র‌্যাব-১১ সিপিসি-২ এর সিনিয়র এএসপি মহিতুল ইসলাম।
তিনি জানান, গত ২৬ এবং ২৭ মে সুনামগঞ্জ জেলার দোয়ারা বাজার উপজেলার আলীপুর গ্রামের আমির হোসেন তার পরিত্যক্ত টিনশেডের বসত ঘরে রেখে রুবিনা বেগম (২০) নামে এক গার্মেন্টস কর্মীকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। ধর্ষণ শেষে ধর্ষক ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়।
পরবর্তীতে ভুক্তভোগী বাদী হয়ে গত ১৩ জুলাই সুনামগঞ্জ জেলার দোয়ারা বাজার থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। বিষয়টি এলাকায় বেশ চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করে। ঘটনার পর থেকেই ধর্ষক পলাতক ছিল। সে গত কয়েকদিন ধরে চাঁদপুরের কচুয়াতে বাসা ভাড়া করে থাকতো এবং দিন মজুরের কাজ করতো। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছে। গ্রেফতারের পর তাকে সুনামগঞ্জ জেলার দোয়ারা বাজার থানার মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তার নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে।
প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে র‌্যাব জানায়, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃত আসামী স্বীকার করে যে, সে গত ২৬ মে ২০২০ ইং এবং ২৭ মে ২০২০ ইং তারিখ সুনামগঞ্জ জেলার দোয়ারা বাজার থানাধীন আলীপুর গ্রামের গ্রেফতারকৃত আসামী মোঃ আমির হোসেন (৩৬) পিতা- মোঃ সিদ্দিক মিয়া এর পরিত্যাক্ত টিনশেডের বসত ঘরে রেখে ভিকটিমকে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোরপূর্বক ধর্ষন করে। ধর্ষন শেষে ধর্ষক মোঃ আমির হোসেন (৩৬) ঘটনাস্থল থেকে দ্রুত চলে যায়। উক্ত ঘটনায় ভিকটিম নিজে বাদী হয়ে গত ১৩ জুলাই ২০২০ ইং তারিখে সুনামগঞ্জ জেলার দোয়ারা বাজার থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করে। বিষয়টি এলাকায় বেশ চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করে এবং এ বিষয়ে সুনামগঞ্জ জেলার দোয়ারা বাজার থানায় গত ১৩ জুলাই ২০২০ ইং তারিখে মামলাটি রুজু হয়। ঘটনার পর থেকেই ধর্ষক মোঃ আমির হোসেন (৩৬) পলাতক ছিল। এমতাবস্থায় সে বিগত কয়েকদিন ধরে চাঁদপুরের কচুয়া তে বাসা ভাড়া করে থাকতো এবং দিন মজুরের কাজ করতো বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *