চাঁদপুরের এসপির বদান্যতা : দুধ আড়াই শ’ গ্রাম, গায়ে টিশার্ট তবে খামে ১০০ টাকা

বিশেষ প্রতিনিধি :
গতকাল মঙ্গলবার থেকে শুরু হয়েছে বিশ্ব দুগ্ধ দিবস ও দুগ্ধ সপ্তাহ দিবস পালন। চাঁদপুরেও জেলা প্রানি সম্পদ অফিসের উদ্যোগে সপ্তাহটি শুরু করা হয়। এ উপলক্ষে তারা জেলা প্রশাসকের সভাকক্ষ ছাড়াও একটি অনুষ্ঠান করে জেলা পুলিশ সুপারকে নিয়ে। সেখানে ট্টাফিক পুলিশ বেলা সাড়ে ১১টার পর থেকে ১৩৭ রিক্সাচালককে হাজির করা হয়। দেখা গেলো জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা মাত্র ২শ ৫০ গ্রাম (এক পোয়া) দুধের ১০০টি প্যাকেট নিয়ে এলেন। এটি দেখে একরকম অস্বস্তিবোধ করতেই দেখা গেলো অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি পুলিশ সুপার মিলন মাহমুদকে। এদিকে রিক্সা চালকদের সময় গড়িয়ে গেলো ৪০ মিনিটেরও বেশি। পুলিশ সুপার লক্ষ্য করলেন এ সামান্য দুধ দিয়ে তাদের কি হবে! এসময় তিনি সিদ্ধান্ত নিলেন, প্রতিজন চালককে ১০০ টাকা করে দেবেন। তড়িৎ সিদ্ধান্ত নিয়ে তিনি ১০০ টাকা ও সবার জন্য মাস্কের ব্যবস্থা করে দুধ বিতরণে গেলেন।
ট্টাফিক ইন্সপেক্টর ফজলুর রহমান ভূইয়া বললেন, স্যার ১৩৭ জনকে টাকার ব্যবস্থা করলেন, সাথে মাস্ক। আর প্রানি সম্পদ বিভাগ দিলেন মাত্র ২৫০ গ্রাম দুধ। কেন দুধের সাথে তাদের টাকা দিলেন, এ প্রশ্নের জবাবে এসপি মিলন মাহমুদ বললেন, ২৫০ গ্রাম দুধে ওদের কি হবে, ৫০০ গ্রাম হলেও তা দেখা যেতো। তাছাড়া আমার এখানে তাদের সময় নষ্ট হয়েছে ৪০ মিনিটের মতো। এই সময়টাতে তারা রুজি করতো কিছু টাকা। তাছাড়া আজ বৈরী আবহাওয়া। খেটে খাওয়া মানুষের কষ্ট। রিক্সা শ্রমিকদের সবাই স্বল্প দুধ দেখে একটু মন খারাপ করলেও পুলিশ সুপারের হাতে ১০০ টাকা পেয়ে অনেক খুশি।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *