চাঁদপুরের মিউজিয়ামে মুক্তিযুদ্ধকালীন সময়ের ইতিহাস ঐতিহ্য সংরক্ষিত থাকবে : জেলা প্রশাসক

চাঁদপুর জেলা প্রশাসনের আয়োজনে মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা
: নিজস্ব প্রতিবেদক :
মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে চাঁদপুর জেলা প্রশাসনের আয়োজনে বীর মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ পরিবারের সদস্যদের সংবর্ধনা প্রদান করা হয়েছে। এ উপলক্ষে ২৬ মার্চ শুক্রবার বেলা ১১টায় চাঁদপুর স্টেডিয়াম প্যাভিলিয়নে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
অনুষ্ঠানে চাঁদপুর সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ। তিনি বলেন, আমি মুক্তিযোদ্ধার সন্তান হিসেবে নিজেকে গর্ববোধ করি। মুক্তিযোদ্ধারা যেকোনো সময় আমার সাথে দেখা করতে পারবেন তাদের জন্য আমার দরজা সব সময় খোলা থাকবে। মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য যে কমপ্লেক্সগুলো কাজ সমাপ্ত হয়নি সেগুলো যাতে দ্রুত কাজ সমাপ্ত করা হয় সেজন্য আমার যে সকল প্রচেষ্টা প্রয়োজন তা আমি করবো।
চাঁদপুরে উত্তোলনকৃত যুদ্ধজাহাজ লোরাম (আকরাম) রয়েছে সেটি নিয়ে এখানে একটি মিউজিয়াম তৈরি হবে, এটি শহরের খুব কাছে চাঁদপুর প্রেসক্লাবের পিছনেই তাই এটি টুরিস্ট প্লেস হবে, এতে করে চাঁদপুরের সন্তানদের ও নতুন প্রজন্মের কাছে মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস, ঐতিহ্য তাদের কাছে তুলে ধরা যাবে। এই মিউজিয়াম এর মাধ্যমে দেশের মুক্তিযোদ্ধাদের যুদ্ধকালীন সময়ের ইতিহাস ঐতিহ্য মুক্তিযুদ্ধের সঠিক তথ্য আগামী দিনে সংরক্ষিত থাকবে।
তিনি বলেন, আজ আমরা ডিসি, এসপি হতে পেরেছি শুধু আপনাদের মুক্তিযোদ্ধাদের ত্যাগ ও রক্তের বিনিময়ে এবং মাত্র নয় মাস যুদ্ধ করে একটি স্বাধীন সার্বভৌম দেশ পেয়েছি। এ সময় তিনি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কথা স্মরণ করে বলেন তার ৭ ই মার্চের ভাষণনের ফলেই এদেশের আপামর জনগণ দীর্ঘ নয় মাস ৩০ লক্ষ শহীদের রক্তের বিনিময়ে যুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন করেছেন।
সেই বঙ্গবন্ধুর তারই কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য ভাতা বৃদ্ধি করেছেন। এই দেশকে তিনি স্বল্পোন্নত দেশ থেকে একটি উন্নয়নশীল দেশে পরিণত করেছেন। তিনি আরো বলেন,আপনারা মুক্তিযোদ্ধারা যারা রয়েছেন তারা আমার শক্তি আমাদের সাহস।মুক্তিযোদ্ধারা নির্ভয় চলবে আপনাদের কে নিয়ে আমরা একটি সুন্দর ও উন্নত দেশ গড়বো। আপনাদের মঙ্গল কামনা করছি সুস্থ থাকবেন ভালো থাকবেন।
সদর উপজেলা নির্বাহি অফিসার সানজিদা শাহনাজ এর সঞ্চালনায় আরো বক্তব্য রাখেন, পুলিশ সুপার মোঃ মিলন মাহমুদ বিপিএম (বার), অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) ও সদ্য পদোন্নতি প্রাপ্ত উপ-সচিব আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ জামান, স্বাধীনত পুরস্কার প্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা ডাক্তার বদরুন নাহার চৌধুরী, বিএলএফ কমান্ডার হানিফ পাটোয়ারী, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মান্নান, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ডেপুটি কমাান্ডার ইয়াকুব আলী মাস্টার, বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল ইসলাম বরকন্দাজ, চাঁদপুর প্রেসক্লাব সভাপতি ইকবাল হোসেন পাটোয়ারী। অনুষ্ঠান শেষে মুক্তিযুদ্ধা ও শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সদস্যদের নগদ অর্থ প্রদান করা হয়।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *