চাঁদপুরের ‘রুনা লায়লা’খ্যাত কণ্ঠশিল্পী তাহমিনা হারুন আর নেই

আশিক বিন রহিম :
চাঁদপুরের রুনা লায়লা খ্যাত কণ্ঠশিল্পী তাহমিনা হারুন আর বেঁচে নেই। তিনি ২০ এপ্রিল বুধবার ভোররাতে শহরের মধ্য ইচুলি নিজ বাড়িতে শেষ নিঃস্বাস ত্যাগ করেছেন।
তাহমিনা হারুন চাঁদপুরের সুনামধন্য সাংস্কৃতিক সংগঠন চতুরঙ্গ সাংস্কৃতিক সংগঠনের মহাসচিব হারুন আল রশীদের সহধর্মীনি। তিনি দীর্ঘ দিন ধরে ডায়াবেটিকস, কিডনি ও চোখের সমস্যায় ভুগছিলেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৫৫ বছর।
তিনি স্বামী, দু’পুত্র, নাতিসহ বহু শুভাকাঙ্খি রেখে গেছেন। সাংস্কৃতিক অঙ্গনে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।
পরিবার সূত্রে জানা যায়, তাহমিনা হারুনের জানাজার নামাজ আজ বৃহস্পতিবার বাদ জোহর নিজ বাড়ি প্রাঙ্গনের মসজিদে অনুষ্ঠিত হববে। এরপরে তাকে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হবে।
তাহমিনা হারুন ১৯৭৮ – ৭৯ সালে সংগিত নিকেতনে সংগিতের তালিম নেন। ১৯৭৯-৮০ সালে তিনি কঁচিকাচার মেলা ও ৮০-৮১ সালে বনানী খেলাঘর আসরের সাথে সম্পৃক্ত ছিলেন। তাহমিনা হারুন কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ডের সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতায় গোল্ড ম্যাডেল অর্জন করেন। জাতীয় পর্যায়ে দেশাত্ববোধক সংগিতে জাতীয় পুরুস্কার অর্জন করেন। তাহমিনা হারুন মৃত্যুর পূর্ব পর্যন্ত বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশ ভুক্ত অনন্যা নাট্য গোষ্ঠির ও চতুরঙ্গ সাংস্কৃতিক সংগঠনের সাথে জরিত ছিলেন। তাহমিনা হারুন কে চাঁদপুরের সাংস্কৃতিক অঙ্গনে সবাই রুনা লায়লা বলে ডাকা হতো। তিনি রুনা লায়লার কন্ঠে গান করতেন।
এদিকে তাহমিনা হারুনের অকাল মৃত্যুতে চাঁদপুরের বিভিন্ন সাংস্কৃতিক ও সামাজিক সংগঠন গভীর শোক জানিয়েছে। চাঁদপুর মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলার চেয়ারম্যান অ্যাড. বদিউজ্জামান কিরণ, অনন্যা নাট্যগোষ্ঠীর পক্ষ থেকে সভাপতি শহীদ পাটোয়ারী, সাধারণ সম্পাদক মৃণাল সরকার, বর্ণচোরা নাট্যগোষ্ঠীর পক্ষ থেকে সভাপতি সুকদেব রায়, সাধারণ সস্পাদক শরীফ চৌধুরী, চাঁদপুর ড্রামার পক্ষ থেকে সভাপতি তপন সরকার, সাধারণ সম্পাদক মানিক পোদ্দার, চতুরঙ্গ সাংস্কৃতিক সংগঠনের চেয়ারম্যান অ্যাড. বিনয়ভূষণ মজুমদার, সাহিত্য মঞ্চের পক্ষ থেকে সভাপতি মাইনুল ইসলাম মানিক, সাধারণ সম্পাদক আশিক বিন রহিম, স্বরলিপি নাট্যদলের পক্ষ থেকে সভাপতি এমআর ইসলাম বাবু মরহুমের মৃত্যুতে গভীর শোক এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *