চাঁদপুরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ঢাকা ম্যারাথনের উদ্বোধন

প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে : শিক্ষামন্ত্রী
: আশিক বিন রহিম :
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী পালন উপলক্ষে চাঁদপুরে ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ঢাকা ম্যারাথন-২০২১ এর শুভ উদ্বোধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ৩৩ পদাতিক ডিভিশনের অন্তর্গত ৪৪ পদাতিক ব্রিগেড এবং চাঁদপুর জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ৬ ফেব্রুয়ারি শনিবার সকাল সাড়ে ৯টায় চাঁদপুর স্টেডিয়াম মাঠ থেকে এর শুভ উদ্বোধন অনুষ্ঠিত হয়। উদ্বোধন অনুষ্ঠান সম্পন্ন হওয়ার সাথে সাথেই স্টেডিয়াম থেকে ৫ কি.মি ম্যারাথন দৌড় শুরু হয়। এতে ৮ হাজার লোক অংশগ্রহণ করে।
টেলিকনফারেন্সের মাধ্যমে প্রধান অতিথি হিসেবে ‘ঢাকা ম্যারাথন’ এর শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করেন শিক্ষামন্ত্রী ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডা. দীপু মনি এমপি। চাঁদপুর জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, কুমিল্লা সেনানিবাসের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মো. খায়রুল ইসলাম, চাঁদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (আপরাধ ও প্রশাসন) গাজী আব্দুর রহিম, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব নাসির উদ্দিন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল, সদ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম নাজিম দেওয়ান, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকবাল হোসেন পাটোয়ারী।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এমপি বলেন, বাঙালি জাতি হিসেবে ২০২১ সালটি আমাদের কাছে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কারণ, এবছর একই সাথে মহান স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উৎসব এবং জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে ‘মুজিবশতবর্ষ’ চলছে। আর ফেব্রুয়ারি আমাদের মহান ভাষা আন্দোলনের মাস। আর কাছুদিন পরেই মহান ২১শে ফেব্রুয়ারি। এমন একটি মাসে জাতির পিতার নামে ম্যারাথনের আয়োজন করা হয়েছে। এটি সুন্দর এবং নতুন একটি উদ্ভাবন। এই আয়োজনের মধ্যে দিয়ে একদিকে জাতির পিতাকে সম্মান জানানো হবে, আবার আমাদের শরীরিক সুস্থতায় সচেতনতা জানান দেয়া যাবে। তাই আমি এই আয়োজনের সাথে সম্পৃক্ত সকলকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাই।
তিনি আরো বলেন, আজকের এই দিনে আমরা গভীর শ্রদ্ধায় জাতীর পিতাকে স্মরণ করি। পাশাপাশি বায়ান্ন থেকে, একাত্তর, পঁচাত্তরের নিহত সকল শহিদদের স্বরণ করছি। জাতির পিতার সুযোগ্য কন্যা আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। এই অগ্রযাত্রায় সবাইকে কাজ করতে হবে। পাশাপাশি সকল অপশক্তির বিষয়ে সজাগ থাকতে হবে।
লেফটেন্যান্ট কর্নেল মো. খায়রুল ইসলাম বলেন, ‘মুজিব বর্ষ’ যথাযোগ্য মর্যাদায় পালনের অংশ হিসেবে জাতির পিতার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসের দিনে গত ১০ জানুয়ারি ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ঢাকা ম্যারাথন ২০২১’ এর শুভ উদ্বোধন হয়। এই ম্যারাথন দৌড়ে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সকল সদস্যের পাশাপাশি ১০ লক্ষ জনগণ সারা বাংলাদেশ থেকে অংশগ্রহণ করবে। তারা ৫ কিলোমিটার পথ দৌঁড়াবেন। আরো আনন্দের বিষয় হলো সারা পৃথিবীতে এটি হচ্ছে। চাঁদপুরের এই আয়োজনে যারা আমাদের সহযোগিতা করেছেন, তাদের প্রত্যেককে ধন্যবাদ জানাই।
জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আমাদের একটি স্বাধীন মনচিত্র উপহার দিয়েছেন। যার ফলে আমরা বিশ্বের বুকে মাথা উচু করে বাঁচতে শিখেছি। আজকের এই দিনে আমরা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানাচ্ছি।
জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব নাছির উদ্দিন আহমেদ বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আমাদের স্বাধীরতা এনে দিয়েছেন। ত্রিশ লাখ শহীদের মহান আত্মত্যাগের বিনিময়ে আমরা একটি স্বাধীন মনচিত্র পেয়েছি। আমাদেরকে বঙ্গবন্ধু এবং বীর শহীদদের রক্তের ঋণ শোধ করতে হবে। স্বাধীরতা অর্জনের মতোই একটি কঠিন কাজ অর্থনীতিক মুক্তি অর্জন করা। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যে জননেত্রী শেখ হাসিনা সেই কাজটি করেছেন।
জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা বাবুর পরিচালনায় এ সময় উপস্থিত ছিলেন, ভ্যানু সমন্বয়কারী মেজর তুহিন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল মাহমুদ জামান, জেলা আনসার কামান্ডার ইব্রাহিম খলিলুল্লাহ, চাঁদপুর সদর উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা সানজিদা শাহনাজ, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকবাল হোসেন পাটোয়ারী, চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি মঞ্জুরুল ইসলাম মঞ্জু, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট জহিরুল ইসলাম, আহসান উল্লাহ আখন্দ।
উল্লেখ্য : জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী পালন উপলক্ষে গত ২০২০ সালের ১৭ মার্চ থেকে ২০২১ সালের ১৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত ‘মুজিব বর্ষ’ যথাযোগ্য মর্যাদায় জাতীয় ও আন্তর্জাতিকভাবে উদযাপন করা হচ্ছে। জাতির পিতার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে ‘মুজিব শতবর্ষ’ উদযাপন জাতীয় কমিটি এবছরের ১০ জানুয়ারি ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ঢাকা ম্যারাথন ২০২১’ এর শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করেন। এই ম্যারাথন দৌড়ে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সকল সদস্যের পাশাপাশি ১০ লক্ষ জনগণ সারা বাংলাদেশ থেকে অংশগ্রহণ করবে। ইতোমধ্যে বাংলাদেশের বিভিন্ন সেনানিবাসের পাশাপাশি বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলাতেই এই ম্যারাথন দৌড়া শুরু হয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ৩৩ পদাতিক ডিভিশনের অন্তর্গত ৪৪ পদাতিক ব্রিগেড এবং চাঁদপুর জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ৬ ফেব্রুয়ারি চাঁদপুরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ঢাকা ম্যারাথন-২০২১ অনু্ষ্িঠত হয়। এইদিন চাঁদপুর জেলার এবং সকল উপজেলায় একযোগে এই ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিটি উপজেলায় বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর একটি করে ডিম এবং উপজেলা প্রশাসন একত্রিত হয়ে এই ম্যারাথন দৌড়ের আয়োজন করে। এতে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর অফিসার উপজেলা নির্বাহি অফিসার এবং অন্যান্য সরকারি কর্মকর্তা গণপতি ছিলেন।
চাঁদপুর স্টেডিয়ামে ম্যারাথনে চাঁদপুর সরকারি কলেজ রোভার স্কাউট, বিএনসিসি, চাঁদপুর জেলা স্কাউট, জেলা পুলিশ, আনসার ভিডিপি, গ্রাম পুলিশসদস্যগণ, জেলা-উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা কর্মচারীবৃন্দ, জেলা সদরের বিভিন্ন স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীগণ, প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকবৃন্দ, স্বেচ্ছাসেবক দল স্বতঃস্ফূর্তভাবে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ঢাকা ম্যারাথন ২০২১ অংশগ্রহণ করে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *