চাঁদপুরে ৭ আগস্ট থেকে ইউনিয়ন পর্যায়ে করোনার টিকা

নিজস্ব প্রতিবেদক :
চাঁদপুরে আগামি ৭ আগস্ট থেকে গণটিকা কর্মসূচির মাধ্যমে সপ্তাহব্যাপী বিভিন্ন টিকাকেন্দ্রে করোনার টিকা (ভ্যাকসিন) প্রদান করা হবে। চাঁদপুর জেলার বিভিন্ন ইপিআই টিকাদান কেন্দ্রগুলোতে টিকা গ্রহীতারা করোনার এই টিকা নিতে পারবেন বলে চাঁদপুর সিভিল সার্জন সূত্রে জানা গেছে। এতে করে চাঁদপুর শহরের বিভিন্ন পাড়া মহল্লা এবং বিভিন্ন ইউনিয়নের গ্রাম অঞ্চলের লোকজন খুব সহজেই হাতের নাগালেই এই করোনার টিকা গ্রহণ করতে পারবেন।
চাঁদপুরের সিভিল সার্জন ডাক্তার মোঃ সাখাওয়াত উল্লাহ জানান, স্বাস্থ্যবিভাগ থেকে গনটিকার কর্মসূচীর মাধ্যমে সারা দেশব্যাপী ৫০ লাখ মানুষকে করোনার টিকা দেয়ার টার্গেট গ্রহণ করা হয়েছে। তারই প্রেক্ষিতে চাঁদপুরেও আগামি ৭ আগস্ট থেকে এই গন টিকা কর্মসূচি শুরু করা হবে।
তিনি জানান, চাঁদপুরে পূর্বে যেসব ইপিআই টিকাদান কেন্দ্র গুলো রয়েছে, সেসব কেন্দ্রগুলোকেই করোনার টিকা কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহার করা হবে। ওইসব কেন্দ্রগুলোতে এক সপ্তাহ যাবত স্বাস্থ্যকর্মীরা সাধারণ মানুষকে করোনার ভ্যাকসিন প্রধান করবেন।
তিনি আরো জানান, সারা বাংলাদেশে সর্বমোট ৫০ লাখ মানুষকে টিকা প্রদানের টার্গেট গ্রহন করা হয়েছে। তবে চাঁদপুরে কতজনকে টিকা প্রধানের টার্গেট রয়েছে তা এখনও সিদ্ধান্ত নেয়া হয়নি। এ বিষয়ে আগামি সপ্তাহে মাল্টিপ্লানের মাধ্যমে চাঁদপুরে কত জনকে টিকা প্রদান করবেন তার টার্গেটের সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলে তিনি জানিয়েছেন।
এদিকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল মঙ্গলবার (২৭ জুলাই) সচিবালয়ে করোনা প্রতিরোধে ঘোষিত লকডাউন বাস্তবায়ন বিষয়ে এক পর্যালোচনা সভা শেষে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ‘আগামী ৭ আগস্ট থেকে ইউনিয়ন পর্যায়ে জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) দেখিয়ে করোনা প্রতিরোধক টিকা নেওয়া যাবে। এর আগে দেশের ইউনিয়ন পর্যায়ে টিকা কেন্দ্র স্থাপনের কাজ সম্পন্ন করা হবে। যাদের এনআইডি নেই তাদেরও বিশেষ পদ্ধতিতে রেজিস্ট্রেশনের আওতায় এনে টিকা দেওয়া হবে। এ কাজের সঙ্গে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মী এবং ধর্মীয় নেতাদের সম্পৃক্ত থাকতে হবে।’
আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, ‘লকডাউন আগামী ৫ আগস্ট পর্যন্তই চলবে। লকডাউন যাতে আরও কঠোর হয় সে বিষয়ে মাঠে কাজ করা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।’
তিনি বলেন, ‘সবাইকে মাস্ক পরতেই হবে। স্বাস্থ্যবিধি মানতেই হবে। ফ্রন্টলাইনারদের পরিবারের সদস্য, যাদের বয়স ১৮ বছর, তারা সবাই টিকার আওতায় আসবে।’

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *