চাঁদপুর ঘাট থেকে লঞ্চ ছাড়বে মধ্যরাত পর্যন্ত

নিজস্ব প্রতিবেদক :
চাঁদপুরসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে লঞ্চ চলাচলের সময়সীমা বৃদ্ধ করেছে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ)। যাত্রীদের মাত্রাতিরিক্ত চাপ থাকায় নতুন নির্দেশনা অনুযায়ী সোমবার সকাল ৬টা পর্যন্ত লঞ্চ চলাচল করতে পারবে। তবে লঞ্চঘাট থেকে যাত্রীবাহী লঞ্চ গন্তব্যের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাবে মধ্যরাত পর্যন্ত। রোববার ১ আগস্ট এ তথ্য জানিয়েছেন চাঁদপুর বন্দর কর্মকর্তা কায়সারুল ইসলাম।
তিনি বলেন, আমাদেরকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে যাত্রী চাহিদা অনুসারে মধ্যরাত পর্যন্ত লঞ্চ ছাড়া যাবে। সেই আলোকে চাঁদপুর লঞ্চঘাট থেকে রাত সাড়ে ১২টা পর্যন্ত লঞ্চ ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাবে। নতুন কোন নির্দেশনা না পেলে এরপর আর কোন লঞ্চ এখান থেকে ছেড়ে যাবে না। কারণ, মধ্য রাতে যে লঞ্চগুলো ছেড়ে যাবে সেগুলো গন্তব্যে পৌছতে সকল হয়ে যাবে।
স্বাস্থ্যবিধি না মানা সম্পর্কে তিনি বলেন, যাত্রীদের এতো বেশি চাপ সামাল দেয়া কঠিন। কেউ কথা শুনছে না। যে যার মতো লঞ্চে উঠছে। বাধা দিলে উল্টো আমাদের উপর চড়াও হয়।

ঘাট ঘুরে দেখা গেছে, চাঁদপুর লঞ্চঘাটে সকাল ৯টার পর থেকেই ঢাকামুখী যাত্রীদের উপচেপড়া ভীড় দেখা যায় লঞ্চঘাট এলাকাজুড়ে। করোনা সংক্রমণরোধে অর্ধেক যাত্রী নেয়ার নির্দেশনা থাকলেও প্রতিটি লঞ্চেই ধারণ ক্ষমতার চেয়ে বেশি যাত্রী তোলা হচ্ছে। একপর্যায়ে সময় শেষ হয়ে যাওয়ায় এবং যাত্রীদের অত্যধিক চাপ থাকায় চাঁদপুর টার্মিনাল থেকে লঞ্চ চলাচল বন্ধের ঘোষণাও দেয় বিআইডাব্লিউটিএ। পরে সময় বৃদ্ধির নতুন নির্দেশনা পেয়ে আবারও লঞ্চ ছেড়ে যাওয়ার অনুমতি দেন বন্দর কর্মকর্তা।

এদিকে বিআইডব্লিউটিএর পরিচালক (নৌ-নিরাপত্তা ও ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা) মুহাম্মদ রফিকুল ইসলাম বলেন, অনেক যাত্রী, সরকার যে উদ্দেশ্যে লঞ্চ চলাচলের অনুমতি দিয়েছিল, তা দুপুর ১২টার মধ্যে পূরণ হবে না। সেজন্য সময় বাড়ানো হয়েছে।
বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লিউটিএ) পরিচালক (নৌ-নিরাপত্তা ও ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা) মুহাম্মদ রফিকুল ইসলাম বলেন, লঞ্চ চলাচল অব্যাহত থাকবে, এমন একটি নির্দেশনা আমরা পেয়েছি। অনেক যাত্রী, সরকার যে উদ্দেশ্যে লঞ্চ চলাচল খুলে দিয়েছে সেটা ১২টার মধ্যে পূরণ হবে না। সেজন্য সময় বাড়ানো হয়েছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *