চাঁদপুর পৌরসভার আগামী বাজেটে স্বাস্থ্যখাতকে আলাদাভাবে গুরুত্ব দেয়া হবে : মেয়র নাছির উদ্দিন আহমেদ

আশিক বিন রহিম :
তৃতীয় নগর পরিচালন ও অবকাঠামো উন্নতিকরণ প্রকল্প (ইউজিআইআইপি-৩) -এর আওতায় নগর পরিচালন উন্নতিকরণ কর্মসূচি বাস্তবায়নের লক্ষ্যে চাঁদপুর পৌরসভার নগর সমন্বয় কমিটির (টিএলসিসি) সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ২৮ জুন রোববার বেলা সাড়ে ১১টায় চাঁদপুর পৌর পাঠাগারে আয়োজিত সভাপ্রতিত্ব করেন চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র নাছির উদ্দিন আহমেদ।
সভায় স্বাগত বক্তব্য ও সমাপনী বক্তব্যে পৌরসভার মেয়র নাছির উদ্দিন আহমেদ গুরুত্বপূর্ণ তথ্য তুলে ধরে বলেন, করোনা ভাইরাসের কারণে বর্তমানে সারা পৃথিবীই এক চরম ক্লান্তিকাল পার করছে। বাংলাদেশও এর ব্যতিক্রম হয়। এই পরিস্থিতি মোকাবেলায় সরকার বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। আমরাও বিভিন্ন কর্মসূচি বাস্তবায়ন করে যাচ্ছি। তবে এমন দুর্যোগময় পরিস্থিতিতে সকলকেই যার যার অবস্থান থেকে সতর্ক, সচেতন থাকতে হবে। আমরা সবাই মিলে এই পরিস্থিতি থেকে পরিত্রাণে কাজ কাজ করবো।
পৌর মেয়র বলেন, এবারে করোনা পরিস্থিতিকে সামনে রেখেই আমাদের পৌরসভার বাজেট প্রণয়ন করতে হচ্ছে। এবারে আমরা বাজেট বাড়বো না এমনকি কমাবোও না। গত বছরের বিজেটকে বিবেচনায় রেখেই নতুন বাজেট করা হবে। তবে এবারের বাজেটে স্বাস্থ্যখাতকে আলাদাভাবে গুরুত্ব দেয়া হবে।
তিনি আরো বলেন, চাঁদপুর পৌরসভার যেসব মৌলিক সমস্যা ছিলো, তা পর্যায়ক্রমে সমাধান করার চেষ্টা করছি। বর্ষা মৌসুম শুরু হওয়ায় মশার উপদ্রব কিছুটা বেড়েছে। মশা নিধনে আমাদের কার্যক্রম চলমান রয়েছে। কিছুদিনের মধ্যেই পুরোদমে প্রতিটি ওয়ার্ডে-পাড়ামহল্লাহ মশানিধোক স্প্রে করা হবে। অপরিস্কার যে পানির কথা উঠেছে, সেটির বিষয়ে সংশ্লিষ্ট বিভাগকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
জেলা আওয়ামী লীগের এ সভাপতি আরো বলেন, চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র হিসেবে নগরবাসীর সেবা করতে পেরে আমি নিজেকে গর্ববোধ করছি। আমি যতোদিন এই দায়িত্বে থাকবো আপনাদের সেবায় কোনো ত্রুটি রাখবো না। আর এজন্যেই নির্বাচিত পৌর পরিষদের পাশাপাশি বিশিষ্ট নাগরিকদের সমন্বয়ে নগর সমন্বয় কমিটি করা হয়েছে। যার ফলে উন্নয়নমূলক কাজসহ পৌরসভার সামগ্রিক কাজে জনসম্পৃক্ততা বেড়েছে। দুর্নীতিমুক্ত একটি পৌরসভা প্রতিষ্ঠা করতে পেরেছি। কারণ স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা না থাকলেই দুর্নীতি হওয়াটা স্বাভাবিক।
পৌরসভার পৌরসভার প্রশাসনিক কর্মকর্তা মফিজউদ্দিন হালদারের পরিচালনা এবং পবিত্র কোরাআন তেলওয়াতের মধ্য দিয়ে সভার শুরুতে বিগত সভার কার্যবিবরণীর আলোকে সিদ্ধান্ত সমূহের অগ্রগতি এবং রি-এসেসমেন্ট নিয়ে আলোচনা করেন পৌর সচিব আবুল কালাম ভূঁইয়া। এরপর চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি টিএলসিসির সদস্য ইকরাম চৌধুরীর সুস্থ্যতা কামনা করে দোয়া করা হয়। এছাড়াও সদ্য প্রয়াত বীর মুক্তিযোদ্ধা ও লেখক প্রকৌ. মো. দেলোয়ার হোসেন, জেলা পরিষদ সদস্য নিলুফা বেগম, পৌরসভার কাউন্সিলর খান বাহাদুর এর মৃত্যুতে শোক প্রস্তাবের পাশাপাশি দাঁড়িয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।
এরপর উন্মুক্ত আলোচনা পর্বে বক্তব্য রাখেন, স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত নারী মুক্তিযোদ্ধা ডা. সৈয়দা বদরুন নাহার চৌধুরী, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি কাজী শাহাদাত, সাবেক সভাপতি গোলাম কিবরিয়া জীবন, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আলহাজ আ. রশিদ সরদার, চাঁদপুর চেম্বার অব কমার্সের সহ- সভাপতি সাধারণ সম্পাদক তমাল কুমার ঘোষ, পরিবার পরিকল্পনার উপ-পরিচালক ডা. এস এম মোস্তাফিজুর রহমান, টিএলসিসির সদস্য শাহজাহান মাতাব্বর প্রমুখ
এ সময় উপস্থিত ছিলেন, পৌরসভার প্রধান নির্বাহী এএইচএম সামসুদ্দোহা, প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি শরীফ চৌধুরী, জেলা শ্রমিক দলের সাবেক সভাপতি নুরুল ইসলাম মিয়াজি, প্যানেল মেয়র সিদ্দিকুর রহমান ঢালী, শাহনাজ রহমান, কাউন্সিলর মাইনুল ইসলাম, ফরিদা ইলিয়াস, লায়লা হাসান চৌধুরী, শাহনাজ আলমগীর সহ সকল কাউন্সিলর এবং টিএলসিসির সদস্যগণ।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *