চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি শাহ মাকসুদুল আলমের ইন্তেকাল

বাদ আছর জানাজাশেষে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন

: আশিক বিন রহীম :
চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি, দৈনিক সংবাদ ও যমুনা টিভির সাংবাদিক শাহ মোহাম্মদ মাকসুদুল আলম (৫২) আর বেঁচে নেই। ইন্নালিল্লাহি ওয়াইন্নইলাহি রাজিউন। দীর্ঘদিন অসুস্থ থাকার পর ২৯ সেপ্টেম্বর সোমবার সকাল ৯টায় শহরের তালতলাস্থ নিজ বাড়িতে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।
তার বড় ভাই জাতীয়পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য এসএমএম আলম জানান, বাদ যোহর চাঁদপুর প্রেসক্লাব মাঠে জানাজাশেষে শ্রদ্ধা নিবেদন, আছরের পর শহরের তালতলা পাটওয়ারী বাড়ি জামে মসজিদে দ্বিতীয় জানাজাশেষে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হবে।
তার মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এমপি, প্রেসক্লাবের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি গিয়াস উদ্দিন মিলন, সাধারণ সম্পাদক এইচএম আহসান উল্লাহসহ স্থানীয় সাংবাদিকবৃন্দ।
শাহ মোহাম্মদ মাকসুদুল আলম ১৯৬৮ সালের ১০ মে চাঁদপুর শহরের তালতলায় জন্মগ্রহন করেন। তার বাবা মরহুম শাহ মোহাম্মদ হাছান (বাচ্চু মিয়া)। মাকসুদ ছাত্রাবস্থা থেকেই সাংবাদিকতায় পেশায় জড়িত। ১৯৯১ সালে দৈনিক সংবাদে নিজস্ব সংবাদদাতা হিসেবে কাজ করেন। পরবর্তীতে তিনি এ পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। এর আগে তিনি একাধিক জাতীয় পত্রিকায় কাজ করেন।
তিনি ৮ বছর একুশে টেলিভিশনের চাঁদপুরস্থ স্টাফ রিপোর্টার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। পরবর্তীতে যমুনা টিভির জেলা প্রতিনিধি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন।
এছাড়া স্থানীয় পর্যায়ে ২০০০ সালে তার সম্পাদনায় প্রথম ‘দৈনিক চাঁদপুর প্রবাহ’ প্রকাশিত হয়। এরপর তিনি ‘দৈনিক আমার চাঁদপুর’ পত্রিকা প্রকাশ করে প্রকাশক ও সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। তিনি বিভিন্ন ধরনের সংগঠনের সাথেও জড়িত ছিলেন।
তিনি সরকারি ও বেসরকারিভাবে ভারত ও মিয়ানমার সফর করেছেন। একজন ভালো বক্তা হিসেবেও তার স্বীকৃতি রয়েছে। ১৯৮৩ সালে ঢাকায় জাতীয় পর্যায়ে অনুষ্ঠিত উপস্থিত বক্তৃতায় প্রথম হয়ে তৎকালীন কুমিল্লা জেলা প্রশাসনের দেয়া সংবর্ধনা ও স্বর্ণপদক লাভ করেন। ছোট গল্প, একাংকিকা লিখেও তিনি সরকারিভাবে বহু পুরস্কার লাভ করেছেন। তার অসংখ্য লেখা বিভিন্ন জাতীয় ও স্থানীয় দৈনিক পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছে।
তিনি একুশে টেলিভিশনের বেশ কয়েকটি টক শো জাতীয় অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছেন। মাকসুদ দেশ ও বিদেশের বহু খ্যাতিমান সাংবাদিক, লেখক, কবি, রাজনীতিক, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্বের সাক্ষাতকার গ্রহন করেছেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *