চাঁদপুর শহরে বসতঘরে দুর্বৃত্তদের আগুন

নিজস্ব প্রতিবেদক :
চাঁদপুর পৌর এলাকার ১২নং ওয়ার্ডের ট্রাক রোড গাজী সড়কের একটি বাড়িতে ভোর রাতে দুর্বৃত্তরা আগুণ ধরিয়ে দিয়েছে। ৭ জুলাই সোমবার ভোররাত এই ঘটনাটি ঘটেছে। এই সড়কের মৃত আব্দুল মান্নান মুন্সীর বসত ঘরে তার ২য় ছেলের পুত্রবধু তানজিলা তার শিশু সন্তানকে দিয়ে একাই ঘরে বাস করত। পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা ঢাকায় চাকুরী করার সুবাদে সেখানেই অবস্থান করছে। অগ্নিকান্ডের খবর পেয়ে সোমবার সকালে চাঁদপুর মডেল থানা পুলিশ ঘটনাস্খল পরিদর্শন করেছে।
তানজিলা আক্তার জানান, তিনি তার শিশু সন্তান ও তার ছোট ভাইকে নিয়ে একাই বাসায় এক বছর ধরে বসবাস করছেন। তার স্বামী আবুল কালাম সামছুদ্দিন ঢাকা গুলশান এলাকায় শাহজালাল ইসলামী ব্যাংকে চাকুরী করেন। ভোর রাত ৪ টায় তিনি ফজরের নামাজ আদায় করতে ঘুম থেকে উঠলে পাশের টিনসেড কক্ষ থেকে আগুনে পোড়া গন্ধ পান। পরে তিনি দরজার নিচ দিয়ে দেখতে পান সামনের কক্ষে ধাউ ধাউ করে আগুন জ্বলছে। তিনি ডাক চিৎকার ও মোবাইলে পাশের বাসার লোকদের ডাকলে লোকজন দ্রুত ছুটে আসলে ঘরের ভিতরে লাগানো আগুন পানি ছিটিয়ে নিয়ন্ত্রণে আনেন। ততক্ষনে ঘরে থাকা সোফা সেট, চেয়ার সহ অন্যান্য জিনিস পুড়ে ভষ্ম হয়ে যায়। তানজিলা আরও জানান, টিনশেড ঘরের সামনের দরজা ভেঙ্গে দুর্বৃত্তরা এসব আসবাবপত্রে আগুন ধরিয়ে দেয়। মাঝখানের দরজার তালা ভেঙ্গে ফেলে। এ সময় কেউ না কেউ দৌড়ে পালানো শব্দ আমি শুনতে পেয়েছি। তবে ভয়ে দরজা খুলেনি। আমি এখানে এক বছর ধরে বসবাস করছি। এই এলাকায় শুধু ইদ্রিছ নামের একজনকেই আমি চিনি। সে আমাদের বাসায় দুধ দিয়ে যায় এবং বাসার কোন প্রয়োজনে তিনি কাজ করতে আসেন। এ ব্যাপারে আবুল কালাম সামছুদ্দিনের মুঠো ফোনে কথা হলে তিনি জানান, তার পরিবারকে হত্যার উদ্দেশ্যেই দুর্বৃত্তরা এ ধরনের ঘটনা ঘটিয়েছে।
স্থনীয়রা জানান, মৃত আব্দুল মান্নান মুন্সীর পরিবারের সাথে এলাকার কারো কোন ধরনের মনোমালিন্য বা বিরোধ ছিল না। তবেই যারাই এ ধরনের ঘঠনা ঘটিয়েছে তারা এ পরিবারটিকে ক্ষতি করতে অগ্নিকান্ডের মতো ঘটনা ঘটিয়েছে।
চাঁদপুর মডেল থানার উপ-পরিদর্শক মনির হোসেন বলেন, মাদকাসক্তদের নিরাপদ স্থান হচ্ছে গাজী সড়ক। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে মাদক সেবীরাই ঘরের দরজা ভেঙ্গে এ ধরনের অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটাতে পারে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *