জাতীয় শোক দিবসে চাঁদপুর জেলা প্রশাসনের ব্যাপক কর্মসূচি

দেবাশীষ মজুমদার :
আজ ১৫ আগস্ট জাতীয় শোকদিবস। মানব সভ্যতার ইতিহাসে ঘৃণ্য ও নৃশংসতম হত্যাকান্ডের কালিমালিপ্ত বেদনাবিধূর শোকের দিন। ১৯৭৫ সালের এই দিনে মানবতার শত্রু প্রতিক্রিয়াশীল ঘাতকচক্রের হাতে বাঙালি জাতির মুক্তি আন্দোলনের মহানায়ক, বিশ্বের লালিত-বঞ্চিত-নিপীড়িত মানুষের মহান নেতা, বাংলা ও বাঙালির হাজার বছরের আরাধ্য পুরুষ, বাঙালির নিরন্তন প্রেরণার চিরন্তন উৎস, স্বাধীন বাংলাদেশ রাষ্ট্রের স্থপতি, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যা করা হয়।
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৬তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে চাঁদপুর জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে।
গৃহীত কর্মসূচি :
১৫ আগস্ট সূর্যোদয়ের সাথে সাথে সকল সরকারি, আধাসরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও বেসরকারি ভবনসমূহে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখা। সকাল সাড়ে ৮টায় চাঁদপুর সরকারি কলেজ প্রাঙ্গণে অবস্থিত জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ। সকাল ১১ টায় জেলা ও উপজেলায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু’র জীবন ও কীর্তির উপর ভার্চুয়াল মাধ্যমে আলোচনা সভা, একই সময়ে সরকারি শিশু পরিবারে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতপূর্বক স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত, হামদ-নাত, আলোচনা ও দোয়া মাহফিল। দুপুর ১২টায় হাসপাতাল, জেলখানা, এতিমখানা, সরকারি শিশু পরিবার, মূক ও বধির স্কুলে উন্নতমানের খাবার পরিবেশন। বাদ জোহর ও সুবিধাজনক সময়ে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতপূর্বক স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে সকল মসজিদে মিলাদ মাহফিল ও বিশেষ মোনাজাত এবং সকল মন্দির ও অন্যান্য ধর্মীয় উপাসনালয়ে বিশেষ প্রার্থনা। এছাড়া সুবিধাজনক সময়ে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতপূর্বক স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে শহরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে এবং ভার্চুয়াল মাধ্যমে বঙ্গবন্ধু’র জীবনীভিত্তিক প্রামাণ্য চিত্র প্রদর্শন এবং সুবিধাজনক সময়ে দিবসের বিভিন্ন অনুষ্ঠান ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় ধারণ ও প্রচার। সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় শিল্পকলা একাডেমী কর্তৃক ভার্চুয়াল মাধ্যমে নাটক মঞ্চায়ন।
সকল কর্মসূচি স্বাস্থ্যবিধি মেনে করতে হবে।

 

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *