টিউমার নিয়ে জন্মানো সেই নবজাতক শিশুকে বাঁচানো গেল না

নিজস্ব প্রতিবেদক :
চাঁদপুরে বিরল প্রজাতির টিউমার নিয়ে জন্মানো সেই নবজাতক মোহাম্মদ আর বেঁচে নেই। ১৪ জুন সোমবার সকাল ৮টার দিকে ঢাকা মেডাকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসারত অবস্থায় শিশুটি মৃত্যুবরণ করেছে। এইদিন দুপুরে চাঁদপুর সদর উপজেলার বাগাদী এলকায় নানার বাড়িতে শিশুটির দাফন সম্পন্ন করা হয়েছে।
জানা যায়, গত ১৩ মে চাঁদপুর শহরের দক্ষিণ গুনরাজদী এলাকার মিলন গাজির স্ত্রী তাসলিমা বেগমের গর্ভ থেকে এই মোহাম্মদ নামের এই শিশু জন্মগ্রহণ করেন।
চাঁদপুর মা ও শিশু হাসপাতালে সিজারিয়ানের মাধ্যমে জন্মের পর পরই চিকিৎসকরা ওই শিশুর পেটের সাথে সংযুক্ত এই বিকলাঙ্গ,বিরল প্রজাতির টিউমারটি দেখতে পান। পরে তারা তাকে বাঁচানোর চেষ্টায় সেখান থেকে চিকিৎসার জন্য পরিবারেরর লোকজন তাকে ঢাকা শিশু হাসপাতালে নিয়ে যান।
বিষয়টি চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু নঈম পাটওয়ারী দুলালের নজরে আসলে তিনি ওই অসহায় নবজাতকের সম্পূর্ন চিকিৎসাসেবার দায়িত্ব নেন এবং তার তত্ত্বাবধানে শিশুটিকে প্রথমে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা সেবা দিয়ে সে পরিপূর্ণ পুষ্টি হলে তিনমাস পর তার অপারেশন করা হবে বলে চিকিৎসকরা জানান। তার কিছুদিন পর শিশুটির অবস্থা গুরুতর হয়ে পড়লে তাকে পুনরায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নেয়া হয়।
অবশেষে সোমবার সকালে চিকিৎসারত অবস্থায় শিশু মোহাম্মদ মৃত্যুবরণ করেন।
শিশুটির মাতা তাসলিমা বেগমের অভিযোগ শিশু মুহাম্মদকে তার কাছে হস্তান্তর করার পর তার শ্বশুরবাড়ির লোকজন কোন প্রকার খোঁজ-খবর রাখেন নি। বরং উল্টো তাকে বিভিন্নভাবে হুমকি-ধামকি প্রদান করেছেন।
তাঁর অভিযোগ তাদের দায়িত্ব অবহেলা এবং কোনো তদারকি না করার কারণে তার সন্তান মৃত্যুবরণ করেছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *