ডাকাতিয়ায় চাঁদাবাজির অভিযোগে নৌযান মালিকদের স্মারকলিপি

 

আশিক বিন রহিম :
চাঁদপুর সদর উপজেলার চরবাগাদী পাম্প হাউজের নেভিগেশন লক গেইটের ইজাদারের নামে ওই এলাকার ডাকাতিয়া নদীতে বিভিন্ন নৌযান থেকে চাঁদাবাজির অভিযোগ পাওয়া গেছে। ইজারাপ্রাপ্ত নির্দিষ্ট নেভিগেশন লক গেইট পারাপার ব্যতিত এই অবৈধ চাঁদাবাজি বন্ধের দাবীতে সংশ্লিষ্ট দপ্তরে স্মারকলিপি প্রদান করেছে ট্রলার মালিকরা।

১১ জুলাই রোববার দুপুরে ভুক্তভোগী ২০/১৫ জন ট্রলার মালিক একত্রিত হয়ে চাঁদপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডের যান্ত্রিক পওর বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. রুহুল আমিনের কাছে এই স্মারকলিপি প্রদান করেন।

একই সাথে এর অনুলিপি, জেলাপ্রশাসন, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী বাপাউবো, পুলিশ সুপার, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, চাঁদপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এবং বাগাদী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান দপ্তরের দেয়া হয়েছে বলে জানা যায়।

ট্রলার মালিকদের স্বাক্ষরিত স্মারকলিপিতে উল্লেখ করা হয়, তারা দীর্ঘদিন যাবত সরকারের কর এবং ভ্যাট পরিশােধ করে নৌ-যান ব্যাবসা পরিচালনা করে আসছে। গত কয়েকদিন আগে চাঁদপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডের যান্ত্রিক পওর বিভাগ থেকে নেভিগেশন লক গেইটের কার্যাদেশ (ইজারা) প্রাপ্ত হন মেসার্স ইমাম মাহাদী এন্টারপ্রাইজের স্বত্বাধিকারীর মােঃ গিয়াসউদ্দিন (নান্নু) মিয়াজি।

কার্যাদেশ অনুযায়ী ইজারাদার প্রতিষ্ঠান শুধুমাত্র নেভিগেশন লক-গেইট দিয়ে পারাপারকৃত ট্রলার থেকে টোল আদায়ের বৈধতা অর্জন করেছে। কিন্তু ইজারাদার এই অনুমোদন পত্র দেখিয়ে চরবাগাদী পাম্প হাউজের প্রায় ১কি মিঃ দূরে পশ্চিম সকদী সাহেব বাজার প্রর্যন্ত মালিকানাধীন বিভিন্ন ঘাটে মালামাল নিয়ে আসা নৌ-যান থেকে চাঁদাবাজি করছে। তারা প্রতিটি ট্রলার থেকে ৭শ’ টাকা করে টোল দাবী করে। যা সম্পূর্ণ অবৈধ, বে-আইনি এবং কার্যাদেশ পরিপন্থি।

এ অবস্থায় কার্যাদেশ অনুযায়ী ইজারাদার প্রতিষ্ঠানটির টোল আদায়ের সীমানা বেঁধে দেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেন। নয়তো এ নিয়ে ট্রলার মালিকদের সাথে ইজারাদারদের যে কোন সময় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকা রয়েছে।

এ বিষয়ে চাঁদপুর পানি উন্নয়ন বোর্ড যান্ত্রিক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. রুহুল আমিন বলেন, আমাদের ইজারা পত্রে স্পষ্ট উল্লেখ রয়েছে, কেবলমাত্র পাম্প হাউজের নেভিগেশন লক গেইটের মাধ্যমে (এর ভেতর দিয়ে) পারাপার হওয়ার নৌ-যান থেকে ইজারাদার টোল আদায় করবে। আমরা ট্রলার মালিকদের স্মারকলিপিটি গ্রহণ করেছি। অভিযোগের বিষয়ে দ্রুত তদন্ত কমিটি গঠন করে প্রদক্ষেপ নেয়া হবে।

 

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *