পিইসি, জেএসসি ও সমমানের পরীক্ষা হচ্ছে না

চাঁদপুর প্রতিদিন ডেস্ক :
কোভিড-১৯ এর বিস্তার রোধ শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে এবছর প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী (পিইসি) পরীক্ষা এবং জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) ও সমমানের পরীক্ষা না নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছে সরকার। নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের উত্তীর্ণ করার প্রস্তাবনা তৈরি করা হচ্ছে।
এ সংক্রান্ত সারাংশ শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ে পাঠাচ্ছে। আগামী সপ্তাহে প্রস্তাবনা আকারে এই সারাংশ পাঠানো হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অনুমোদন দেওয়ার পর দুই মন্ত্রণালয় আদেশ জারি করবে।
এ প্রসঙ্গে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মো. আকরাম আল হোসেন বলেন, পরীক্ষা না নেওয়ার জন্য আমরা সারাংশ পাঠাবো। প্রধানমন্ত্রী অনুমোদন দিলে জিও জারি করবো। আগামী সপ্তাহের শুরুর দিকে সামারি পাঠানো হবে। মন্ত্রণালয় থেকে সামারি যাবে।’
প্রাথমিক ও গণ শিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, মূল্যায়নের ভিত্তিতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান শিক্ষার্থীদের পরবর্তী ক্লাসে উত্তীর্ণ করবে।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো. মাহবুব হোসেন বলেন, কোভিড-১৯ পরিস্থিতে বিশেষজ্ঞরা যে সুপারিশ করেছেন তা এ সপ্তাহে চূড়ান্ত করব। এরপর তা প্রকাশ করা হবে। আমরা শিক্ষার্থীদের সুরক্ষা ও শিক্ষা জীবন সুষ্ঠু ও স্বাভাবিক রাখতে পরবর্তী ব্যবস্থা নেব।
শিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, দেরিতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা হলে অষ্টম শ্রেণির সমাপনী পরীক্ষা নেওয়া হবে না। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো নিজেরা শিক্ষার্থীদের মূল্যায়নের ভিত্তিতে বা সম্ভব হলে সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে পরীক্ষা নেবে পরবর্তী ক্লাসে উত্তীর্ণের জন্য।
বিশেষজ্ঞদের সুপারিশ অনুযায়ী পরবর্তী ক্লাসে উত্তরণের জন্য সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে শিক্ষার্থীদের ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ক্লাস চলবে। তবে জানুয়ারির ১ তারিখ থেকে বই দিয়ে দেওয়া হবে। শিক্ষার্থীরা পরবর্তী ক্লাসের বই পাওয়ার পরও আগের ক্লাসের নির্ধারিত সংক্ষিপ্ত সিলেবাস শেষ করবে। মার্চ থেকে শুরু হবে নতুন শিক্ষাবর্ষ।
এছাড়া পরিস্থিতি ভালো হলে এইচএসসি পরীক্ষা নেওয়া হবে। এর আগে শিক্ষা মন্ত্রণালয় বিষয় কমিয়ে এইচএসসি পরীক্ষার নেওয়ার কথা জানিয়েছিল।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *