পুরাণবাজারে কাউন্সিলর প্রার্থীর অফিস ভাংচুরের অভিযোগ, আহত ২

নিজস্ব প্রতিবেদক :
আসন্ন চাঁদপুর পৌরসভা নির্বাচনে প্যানেল মেয়র ছিদ্দিকুর রহমান ঢালীর পুরানবাজার ২ নং ওয়ার্ডে পাঞ্জাবি মার্কার অফিস ভাংচুরের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় সাউন্ড সিস্টেম পরিচালনাকারী ২ জনকে মারধর করা হয়।
শনিবার সন্ধ্যায় ওয়ার্ডের হরিসভা রোডের ইউসুফের দোকানের সামনে এ হামলার ঘটনা ঘটে। আহতরা হলেনঃ সাউন্ড সিস্টেম পরিচালনাকারী ইয়াছিন প্রধানিয়া (২০) ও আবির গাজী (১৯)।
প্যানেল মেয়র ছিদ্দিকুর রহমান ঢালী জানান, আমি ২০ বার চাঁদপুর পৌরসভার ভারপ্রাপ্ত মেয়র ও ১৫ বছর প্যানেল মেয়রের দায়িত্ব পালন করেছি। ৪ বার জনগনের ভোটে নির্বাচিত হয়েছি। সাধারণ জনগনের আস্থা ও ভালবাসায় আবারও প্রার্থী হয়েছি। ২নং ওয়ার্ডের উটপাখি মার্কার প্রার্থী মালেক শেখের নেতৃত্বে প্রায় ২শতাধিক সন্ত্রাসীবাহিনী নিয়ে আমার নির্বাচনী অফিসে হামলা চালিয়ে ডেকারেটরের মালামাল ও ২টি সাউন্ড সিস্টেম ডেকসেট ভাংচুর করে। এসময় মালেক শেখের সমর্থকরা পুরাণবাজার পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মাসুদ হোসেনের সামনে সাউন্ড সিস্টেম পরিচালনাকারী ইয়াছিন প্রধানিয়া ও আবির গাজীকে বেদম মারধর করে। আমি বিষয়টি জেলা প্রশাসক মাজেদুর রহমান খান ও জেলা রিটার্নিং অফিসারকে জানিয়েছি। আর এই ওয়ার্ডে আওয়ামীলীগের প্রার্থী উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়েছে।
উটপাখি মার্কার প্রার্থী মালেক শেখ জানান, দেশরত্ন শেখ হাসিনার মনোনিত বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের নৌকা মার্কার প্রার্থী অ্যাড. জিল্লুর রহমান জুয়েল বিভিন্ন পথসভা ও উঠোন বৈঠকে আওয়ামী লীগের সমর্থিত প্রার্থী হিসেবে আমাকে পরিচয় করিয়ে দিয়েছেন। আমি ২নং ওয়ার্ডে আওয়ামী লীগ সমর্থিত কাউন্সিলর প্রার্থী। পাঞ্জাবী মার্কার প্রার্থীর কোন অফিস ভাংচুর করা হয় নি। আর ঘটনাস্থলে পুরাণবাজার পুলিশ ফাঁড়ির সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। পাঞ্জাবী মার্কার প্রার্থী নিজেরা নিজেদের চেয়ার টেবিল এলোমেলো ফেলে দিয়ে আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা নাটক সাজাচ্ছে। কোন ধরনের মিথ্যা, বানোয়াট ও গুজব জনগন মেনে নেবে না। ইনশাল্লাহ জয় আমারই হবে।
পুরাণবাজার পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মোঃ মাসুদ হোসেন জানান, দুই প্রার্থীর মধ্যে মারামারির খবর শুনে আমি ঘটনাস্থলে ছুটে যাই। পরে ঘটনাস্থলে সিদ্দিকুর রহমান ঢালীর পাঞ্জাবী মার্কার নির্বাচনী অফিসে গিয়ে দেখি, অফিসের চেয়ার টেবিল ও সাউন্ড সিস্টেমগুলো এলোপাথাড়ি পড়ে আছে। তবে আমি সংর্ঘেষের কোন পরিস্থিতি দেখি নাই। সাথে সাথে আমি চাঁদপুর মডেল থানার ওসি মোঃ নাসিম উদ্দিন স্যারকে বিষয়টি জানিয়েছি।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *