প্রাথমিকে বাদ পড়া শিশুদের শিক্ষা ব্যবস্থার মধ্যে নিয়ে আসতে ধর্মীয় শিক্ষাভিত্তিক গণশিক্ষা খুবই কার্যকর : শিক্ষামন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক :
শিক্ষামন্ত্রী ডা. দিপু মনি এমপি বলেছেন, মানবিক মূল্যবোধ ও নৈতিকতা সম্পন্ন জাতি গঠনে মন্দিরভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের সমাজে অনেক শিশু রয়েছে যাদেরকে আমরা এখনো শিক্ষা ব্যবস্থায় শতভাগ নিয়ে আসতে পারিনি। এখনো হয়তো কেউ কেউ বাদ রয়ে যায়। প্রাথমিক শিক্ষায় আমাদের বিশাল একটা অর্জন রয়েছে। আমরা প্রায় শতভাগ শিক্ষার আওতায় নিয়ে আসতে পেরেছি। কিন্তু প্রায়ের মধ্যে কিছু কিছু বাদ পড়ে যায়। বাদ পড়া শিশুদের শিক্ষা ব্যবস্থার মধ্যে নিয়ে আসতে এই ধরনের ধর্মীয় শিক্ষাভিত্তিক গণশিক্ষা খুবই কার্যকর।
বুধবার (১৭ ফেব্রুয়ারী) দুপুরে চাঁদপুর সার্কিট হাউজে জুম অ্যাপের মাধ্যমে ‘মানবিক মূল্যবোধ ও নৈতিকতা সম্পন্ন জাতি গঠনে মন্দিরভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রমের ভূমিকা’ শীর্ষক চাঁদপুর জেলা কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিক্ষামন্ত্রী এসব কথা বলেন। মন্ত্রী বলেন, পড়াশোনার বাইরেও ধর্মীয় শিক্ষার মাধ্যমে নৈতিক শিক্ষার একটি বড় সুযোগ রয়েছে। এই শিশুদের শিক্ষা ব্যবস্থায় নিয়ে আসা যায়, তার মধ্য দিয়ে সামাজিক নানা ধরনের পরিবর্তনের জন্যে এই সুযোগটিকে খুবই উপযুক্তভাবে কাজে লাগানোর অনেক সম্ভাবনা রয়েছে। আমরা অবশ্যই চাই আমাদের দেশের প্রতিটি শিক্ষার্থী নৈতিক শিক্ষা ও মূল্যবোধের শিক্ষা পেয়ে দক্ষ জ্ঞান অর্জনের মধ্য দিয়ে তারা ভালো মানুষ হয়ে উঠুক। সুনাগরিক হয়ে উঠুক।
কর্মশালায় সভাপতিত্ব করেন চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন মন্দিরভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম-৫ম পর্যায়ের উপ-প্রকল্প পরিচালক (উপ-সচিব) সৌরেন্দ্র নাথ সাহা। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ধর্ম মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব এমএ আউয়াল হাওলাদার, হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের ট্রাস্টি ডা. প্রাণ গোপাল দত্ত, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল মাহমুদ জামান, চাঁদপুর প্রেসক্লাব সভাপতি ইকবাল হোসেন পাটওয়ারী, জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক তমাল ঘোষ। কর্মশালা সঞ্চালনা করেন সাংবাদিক এমআর ইসলাম বাবু।
এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক রহিম বাদশা, সাবেক সভাপতি গোলাম কিবরিয়া জিবন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক লক্ষ্মণ চন্দ্র সূত্রধর, ট্রাস্টের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা ও প্রকল্পের সাথে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাবৃন্দ। কর্মশালার সূচনালগ্নে আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দ প্রদীপ প্রজ্বলন করেন। অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র গীতা পাঠ করেন গীতা পাঠ করেন শ্রী শ্রী মেহোর কালীবাড়ী হরিসভার কেন্দ্র শিক্ষিকা স্বপ্না রানী দত্ত।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *