ফরিদগঞ্জের অনাথ চন্দ্র হত্যা মামলার আসামী গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিবেদক :
ফরিদগঞ্জে অনাথ চন্দ্র দাস হত্যা মামলার আসামীকে গ্রেফতার করেছে পিবিআই। ২৯ জুলাই ঘটনার সাথে জড়িত কড়ৈতলী এলাকার আসামী সোহাগকে (২৫) তার নিজ বাড়ি থেকে গ্রেফতারসহ ভিকটিম অনাথ চন্দ্র দাস এর ব্যবহৃত মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়েছে।
পিবিআই জানায়, বাদী সুভাষ চন্দ্র দাস (৩২), পিতা- মৃত অনাথ চন্দ্র দাস, সাং- খুরুমখালী (দাসপাড়া), থানা-ফরিদগঞ্জ, জেলা-চাঁদপুর অজ্ঞাত আসামীদের বিরুদ্ধে ফরিদগঞ্জ থানায় একখানা এজাহার দিয়ে জানান যে, গত ১৯ জুলাই সকাল বেলা স্থানীয় বাজারে মাছ বিক্রি করতে যায়। কিন্তু সন্ধ্যা নাগাদ বাদীর পিতা বাড়ীতে ফিরে না আসলে তার বাড়ি থেকে মোবাইলে ফোন দিলে ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। তারপর থেকে নিখোঁজ অনাথ চন্দ্র দাসকে তার সন্তানেরা ও আত্মীয় স্বজনেরা বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করেও কোথাও পান নাই। পরবর্তীতে গত ২৫ জুলাই দুপুর বেলা নিখোঁজ অনাথ চন্দ্র দাসের ধারালো অস্ত্রের দ্বারা ক্ষত-বিক্ষত মৃতদেহ সাহাপুর ও মধ্যম কড়ৈতলী বাবুর/লদের বাড়ির দক্ষিণ পাশ সংলগ্ন ডাকাতিয়া নদীর শাখা ওয়াপদা খালের দক্ষিণ পাশের তাল গাছের নীচে কচুরীপানা বেষ্টিত পানির ওপর ভাসমান অবস্থায় স্থানীয় লোকজন দেখতে পেয়ে থানা পুলিশকে খবর দেয়। বাদীর উক্ত অভিযোগ প্রাপ্ত হয়ে অফিসার ইনচার্জ, ফরিদগঞ্জ থানার মামলা নং-৪০, তারিখ-২৫/০৭/২০২১ইং, ধারাঃ ৩০২/২০১/৩৪ পেনাল কোড রুজু করেন। সূত্রে বর্ণিত মামলাটি পিবিআই সিডিউল ভুক্ত হওয়ায় মামলাটি অধিগ্রহণ করতঃ পুলিশ পরিদর্শক (নিঃ) মোঃ আবু বকর সিদ্দিক পিবিআই, চাঁদপুরকে তদন্তকারী কর্মকর্তা নিয়োগ করা হয়।
ডিআইজি পিবিআই বনজ কুমার মজুমদার বিপিএম (বার), পিপিএম এর সঠিক তত্ত্বাবধান ও দিক নির্দেশনায় গত ২৮ জুলাই পিবিআই চাঁদপুর এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ জুনায়েত কাউছার এর নেতৃত্বে ও সার্বিক সহযোগিতায় পুলিশ পরিদর্শক (নিঃ) জনাব আতিকুর রহমান ও তদন্তকারী অফিসার একটি বিশেষ টিম নিয়ে মামলার ঘটনায় জড়িত অন্যতম আসামী সোহাগকে তার নিজ বাড়ী হতে গ্রেফতার করে এবং তার হেফাজত হতে ভিকটিমের ব্যবহৃত মোবাইল ফোন উদ্ধার করেন। গ্রেফতারকৃত আসামীকে বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করলে সে ঘটনার সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে অপরাপর আসামীদের নাম প্রকাশ করে ফৌঃ কাঃ বিঃ ১৬৪ ধারা মোতাবেক জবানবন্দি প্রদান করেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.