‘বাংলার বস’ আর ‘বাংলার সম্রাট’র দাম ৮০ লাখ টাকা!

চাঁদপুর প্রতিদিন ডেস্ক :
যশোরের মণিরামপুর এলাকার খামারি আসমত আলী গাইন কোরবানি ঈদের জন্য দু’টি গরু লালন-পালন করেছেন। এদের একটি ‘বাংলার বস’, আরেকটি ‘বাংলার সম্রাট’। তিনি গরু দুটোর দাম চাইছেন ৮০ লাখ টাকা। বিশালাকার গরু দু’টি দেখতে হুরগাতি গ্রামে তার বাড়িতে লোকজন ভিড় করছেন।
আসমত বলেন, ‘বাংলার বসের দাম চেয়েছেন ৫০ লাখ টাকা। ব্যাপারিরা ৩০ লাখ পর্যন্ত দাম উঠিয়েছেন। আর বাংলার সম্রাটের দাম ৩০ লাখ টাকা চাইলেও ব্যাপারিরা দাম বলেছেন ১৫ লাখ টাকা।’
তার দাবি, এ বছর কোরবানিতে এর চেয়ে বড় গরু আর পাওয়া যাবে না। কোরবানির আগে গরু দু’টি ঢাকায় নিতে পারলে আশানুরূপ দামেই বিক্রি করতে পারবেন। করোনার কারণে ব্যাপারিরা সঠিক দাম বলছেন না। এজন্য গরু দু’টি ঢাকায় নিয়ে যাবেন। আশানুরূপ দাম না পেলে করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার পর বিক্রি করবেন।
আসমত জানান, ২৫ বছর ধরে তিনি গরু পালন করেন। মীম ডেইরি ফার্ম নামে তার একটি খামারও আছে। গতবছর কোরবানির ঈদের কয়েকদিন আগে যশোর হাইকোর্ট মোড়ের খামারি মুকুলের কাছ থেকে ‘বাংলার বস’কে ১৭ লাখ টাকায় কেনেন। আর ‘বাংলার সম্রাট’কে কেনেন ৮ লাখ টাকায়। এরপর সুষম খাদ্য, উপযুক্ত চিকিৎসা, নিয়মিত পরিচর্যা শুরু করেন। গরু দুটির দিনে দু’বার মোট ৮০-৯৫ কেজি খাদ্য খাওয়ানো হয়। বাংলার বস ফ্রিজিয়ান জাতের। বর্তমানে তার ওজন ২৬০০ কেজি (প্রায় ৬৫ মণ)। আর সম্রাটের ওজন ২ হাজার কেজি (৫০ মণ)।
ক্ষোভ প্রকাশ করে তিনি বলেন, ‘এত বড় বড় গরু পালন করলেও এ পর্যন্ত প্রাণিসম্পদ অফিসের কোনও সহযোগিতা পাননি। এমনকি কোনোদিন তারা খামারও পরিদর্শন করেনি।’
অভিযোগ অস্বীকার করে মণিরামপুর উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা আবুজার সিদ্দিকী বলেন, প্রাণিসম্পদ অফিসের লোকজনের সঙ্গে খামারির নিয়মিত যোগাযোগ হয়। খামারি তার যে গরুটির ওজন ৬৫ মণ দাবি করছেন, তা অসম্ভব। আমাদের স্টাফরা পরশুদিনও গেছে ওই বাড়িতে। তারা আমাকে জানিয়েছেন, গরুর ওজন সর্বোচ্চ ৩৫-৩৬ মণ হতে পারে।
-বাংলা ট্রিবিউন

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *