মহামারির সময়ে জনগণের পাশে ছিলাম এবং আগামী দিনেও থাকবো

শাখাওয়াত হোসেন শামীম :
মহামারি কিংবা দুর্যোগ পৃথিবীতে মানবজাতির কাছে নতুন কিছু নয়। সৃষ্টির শুরু থেকেই সময়ে সময়ে এই পৃথিবীতে নেমে আসে অনেক ধরনের প্রাকৃতিক দুর্যোগ কিংবা মহামারি। কোনো সংক্রামক রোগ যখন বিশাল একটি জনগোষ্ঠীর মাঝে খুব দ্রুত সংক্রমিত হয়ে পড়ে, তখন বলা হয় রোগটি মহামারি আকার ধারণ করেছে। পৃথিবীতে যুগে যুগে অসংখ্য মহামারির ঘটনা ঘটেছে এবং এসব মহামারিতে মৃত্যু হয়েছে কোটি কোটি মানুষের। ঠিক তেমনই একটি মহামারি কোভিড-১৯। কোভিড-১৯ মহামারিতে এ পর্যন্ত বিশ্বে প্রায় সাড়ে ১৩ লক্ষ লোক মৃত্যুবরণ করেছে। এ শীতে কোভিড-১৯ দ্বিতীয় পর্যায়ে আরো বয়াবহ রুপ ধারণ করতে পারে, তাই যার যার অবস্থান থেকে সর্তক থাকতে হবে এবং পৌরসভাসহ সরকারী ও বেসরকারী অফিস, ব্যাংক, পরিবহন, শপিং সেন্টার গুলোতে নো-মাস্ক, নো-সার্ভিস, সেবা অব্যাহত রাখতে হবে।
শীতকালে কোভিড-১৯ এর সম্ভাব্য দ্বিতীয় পর্যায়ের সংক্রমণ মোকাবিলার লক্ষ্যে হাজীগঞ্জ পৌরসভায় কর্মপরিকল্পনা ও বাস্তবায়নে মতবিনিময় সভায় মেয়র আ.স.ম মাহবুব উল আলম লিপন উপরোক্ত কথা গুলো বলেন।
তিনি আরো বলেন, কোভিড-১৯ বৈশ্বিক মহামারির সময়ে জীবন বাজি রেখে জনগণের পাশে ছিলাম এবং আগামী দিনেও থাকবো ইনশাআল্লাহ। বিগত দিনে পৌরসভার বিভিন্ন ওয়ার্ডে মাস্ক ও বিভিন্ন উপকরণসহ জনসচেতনতা মূলক লিফলেট বিতরণ করা হয়।
হাজীগঞ্জ পৌর সভার সচিব মুহাম্মদ নূও আজম শরীফ এর পরিচালনায় অন্যান্যদের মাঝে বক্তব্য রাখেন, ট্রাফিক ইনচার্জ মো. জাহাজ্ঞীর আলম হাজীগঞ্জ পৌরসভার প্যানেল মেয়র রায়হানুর রহমান জনি, ১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান, হাজীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক এনায়েত মজুমদার প্রমুখ।
এ সময় অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন, প্যানেল মেয়র-২ মো. শুকু মিয়া, ২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আলাউদ্দিন মুন্সী, ৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর লিটন চন্দ্র সাহা, ৭নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. এমরান হোসেন মুন্সী, ৮নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মুরাদ হোসেন মিরন, সহকারী প্রকৌশলী মো. ইদ্রিস মিয়া, হিসাব রক্ষন কর্মকর্তা মো. সফিকুর রহমান, লাইসেন্স পরিদর্শক মো. আলমগীর হোসেন, বাজার পরিদর্শক খাজা শফিউল বাশারসহ পৌরসভার অন্যান্য কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *