মেম্বার কর্তৃক ভাতার কার্ডের নামে নেয়া টাকা ফেরতের নির্দেশ দিলেন চেয়ারম্যান

বাকিলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মাহফুজুর রহমান ইউসুফ পাটওয়ারী

: শাখাওয়াত হোসেন শামীম :

চাঁদপুরের হাজীগঞ্জের বাকিলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মাহফুজুর রহমান ইউসুফ পাটওয়ারীর শেয়ার করা ‘ফেসবুক’ এর একটি পোস্ট নিয়ে এলাকায় তোলপাড় দেখা দিয়েছে। এ নিয়ে বুধবার (২৫ আগস্ট) দিনব্যাপী ওই ইউনিয়নের মানুষের মাঝে আলোচনা-সমালোচনার সৃষ্টি হয়।

এদিন (বুধবার) সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ‘দুই নং বাকিলা ইউনিয়ন’ নামের আইডিতে ‘খবরদার, একটা টাকাও কাউকে দিবেন না’ শিরোনামে প্রকাশিত একটি পোস্ট শেয়ার করেন মাহফুজুর রহমান ইউসুফ পাটওয়ারী। এর আগে গত মঙ্গলবার দিবাগত রাতে ওই আইডিতে উল্লেখিত পোস্টটি করা হয়।

পোস্টকৃত লেখাটি হুবহু তুলে ধরা হলো, ‘খবরদার, একটা টাকাও কাউকে দিবেন না। ২নং বাকিলা ইউনিয়ন পরিষদের যারা বয়স্ক-বিধবা ভাতার আওতাভূক্ত হয়েছেন তারা কোন অবস্থাতেই কারও সঙ্গে কোন আর্থিক লেনদেন করবেন না। সোজা কথা, কেউ যদি এসে বলে আপনি ভাতা পেয়েছেন, এখন টাকা দেন বা টাকা দেওয়া লাগবে। খবরদার, আপনি কাউকে একটা টাকাও দিবেন না।

আমি আবারও বলছি, খবরদার, আপনি একটা টাকাও কাউকে দিবেন না। কেউ যদি টাকার জন্য চাপাচাপি করে, আপনি সরাসরি ইউনিয়ন পরিষদে এসে অভিযোগ দেন। আমরা ইউনিয়ন পরিষদ থেকে ব্যবস্থা নিব। উক্ত ভাতাগুলো মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সারাদেশে বিতরণ করছেন।

২নং বাকিলা ইউনিয়নবাসী উক্ত ভাতা প্রাপ্তিতে যার অবদান সবচেয়ে বেশি তিনি হচ্ছেন, মুক্তিযুদ্ধের ১নং সেক্টর কমান্ডার, বীর মুক্তিযোদ্ধা, সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, মেঘনা পূর্বপাড়ের কৃতী সন্তান মেজর (অব.) রফিকুল ইসলাম বীর উত্তম এমপি মহোদয়। এমপি মহোদয়কে ইউনিয়নবাসীর পক্ষ থেকে আন্তরিক শুভেচ্ছা।’

এদিকে ইউপি চেয়ারম্যানের এমন পোস্ট নিয়ে এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার দিনব্যাপী ওই ইউনিয়নে আলোচনা-সমালোচনার সৃষ্টি হয়। বিষয়টি জানতে পেরে স্থানীয় সংবাদকর্মীরা ইউপি চেয়ারম্যান মাহফুজুর রহমান ইউসুফ পাটওয়ারীর সাথে যোগাযোগ করলেও তিনি কারো নাম প্রকাশ করেননি।

তবে তার কথায় ভাতার কার্ড দেয়ার নামে এক ইউপি সদস্য সুবিধাভোগীদের কাছ থেকে টাকা নেওয়ার অভিযোগ পাওয়া যায়। তিনি সংবাদকর্মীদের বলেন, কারো কাছ থেকে টাকা নিয়ে থাকলে, তা ১ দিনের মধ্যেই ফেরত দেবার জন্য গত মঙ্গলবার রাতেই অন্য ইউপি সদস্যদের মাধ্যমে অভিযুক্ত ইউপি সদস্যকে মাসেজ পাঠিয়েছি। এমন নোংরা ঘটনায় আমার পরিষদ কোন দায় নেবে না বলে তিনি উল্লেখ করেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *