মেয়েরা সাবলম্বী হলে পরিবার ও সমাজ দুই উপকৃত হবে : জেলা প্রশাসক

মাতৃপীঠ সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা
অভিজিত রায় :
চাঁদপুর মাতৃপীঠ সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার ২ এপ্রিল বিদ্যালয় মাঠ জাতীয় পতাকা উত্তোলন, কুচকাওয়াজ ও শান্তির প্রতীক পায়রা উড়িয়ে প্রতিযোগিতার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ। প্রধান অতিথির বক্তব্যে ডিসি বলেন, শিক্ষার্থীদের জন্য আজকের দিনটি অনেক প্রতীক্ষিত আনন্দের। দীর্ঘ দুই বছর পর আবার মাঠে ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় শিক্ষার্থীরা অংশ নিতে পেরে বেশ উদ্বেলিত। পাশাপাশি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো পাঠদানে ফিরে এসে ক্রীড়া ও সংস্কৃতি সরগরম হয়ে ওঠেছে।
অভিভাবকদের উদ্দেশ্যে ডিসি আরও বলেন, মেয়ে সন্তান পরিবারের সম্পদ; তাদের সুশিক্ষায় শিক্ষিত করতে হবে। তারা সাবলম্বী হলে পরিবার ও সমাজ দুই উপকৃত হবে। বাবা-মায়েরা সঠিক শিক্ষার জন্য মনোবল যোগাতে হবে। বতর্মান প্রযুক্তি নির্ভর যুগে সুফল ও কুফল দুই আছে। তাই তোমরা প্রযুক্তির ভাল দিকগুলো গ্রহণ করবে। কেউ যদি তোমাদের ইভটিজিং কররে তাহলে থানায় অভিযোগ করতে কোন দ্বিধা করবে না। দেশের প্রধানমন্ত্রী মহিলা ও স্থানীয় এমপি শিক্ষামন্ত্রীও মহিলা।
বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক প্রাণকৃষ্ণ দেবনাথের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথর বক্তব্য রাখেন পুলিশ সুপার মিলন মাহমুদ।
শিক্ষক শিরিন আক্তার, চাঁদপুর সুলতান ও মাসুদুর রহমানের ধারা বর্ননা ও অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন।
খেলা পরিচালনায় ছিলেন সহকারী প্রধান শিক্ষক আলেয়া ফেরদৌসা, মোঃ জাহিদুল ইসলাম, আবুল কাশেম মোহাম্মদ আসাদ উল্লা, আসমা আক্তার।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.