স্বতন্ত্র বৈশিষ্ট্যে চাঁদপুর সরকারি কলেজের উচ্চ মাধ্যমিক শ্রেণি শিক্ষা কার্যক্রমের উদ্যোগ

প্রেস বিজ্ঞপ্তি :
চাঁদপুর সরকারি কলেজ দেশের অন্যতম ঐতিহ্যবাহী বিদ্যাপীঠ। প্রায় ১৬ একর জায়গা জুড়ে অবস্থিত কলেজটিতে রয়েছে একটি প্রশাসনিক ভবন, চারটি অ্যাকাডেমিক ভবন, দুইটি ছাত্রাবাস, দুইটি ছাত্রীনিবাস ও তিনটি মসজিদ। অধ্যক্ষ প্রফেসর অসিত বরণ দাশ মহোদয়ের নেতৃত্বে ৮২ জন অভিজ্ঞ শিক্ষক কলেজের শিক্ষার মানোন্নয়নে অক্লান্ত শ্রম দিয়ে যাচ্ছেন।
গত দশ বছরে যার ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় চাঁদপুর সরকারি কলেজ উন্নতির শীর্ষে অবস্থান করছে- তিনি হলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী, চাঁদপুর-৩ সংসদীয় আসনের মাননীয় সাংসদ ডা. দীপু মণি এম.পি মহোদয়। কলেজের শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ সৃষ্টি এবং মানোন্নয়ন; অবকাঠামোগত উন্নয়ন ও সহপাঠক্রমিক কার্যক্রমে (নবীন বরণ, বার্ষিক মিলাদ, বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা প্রভৃতি) তাঁর স্বতঃস্ফূর্ত পদচারণায় চাঁদপুর সরকারি কলেজ ধন্য।
কলেজের অন্যতম বৈশিষ্ট্য হচ্ছে এখানে নিয়মিত শ্রেণি কার্যক্রম পরিচালিত হয়। উচ্চ মাধ্যমিক শ্রেণির প্রতি ২৫ জন শিক্ষার্থীর জন্য একজন কাউন্সিলর স্যার রয়েছেন, যিনি প্রতিনিয়ত তাঁর অধীন শিক্ষার্থীর খোঁজ-খবর নেন এবং পাঠোন্নয়নে সহায়তা দান করেন। কলেজের ক্লাস সুষ্ঠুভাবে পরিচালনা ও তদারকির জন্য রয়েছে শক্তিশালী ভিজিল্যান্স টিম।
শিক্ষার্থীর উপস্থিতি নিশ্চিত করার জন্য কলেজে ফিঙ্গার প্রিন্ট ব্যবস্থা চালু রয়েছে। প্রথমবারের মতো রাজু ভবনের ৪র্থ তলা ও ৫ম তলায় সম্পূর্ণ আলাদা পরিবেশে উচ্চ মাধ্যমিক শ্রেণির শিক্ষার্থীদের পাঠদানের ব্যবস্থা করা হয়েছে; সেখানে রয়েছে ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য ক্যান্টিন ব্যবস্থা ও আলাদা-আলাদা কমনরুম। সমগ্র কলেজ সিসি ক্যামেরার আওতাভুক্ত।
শিক্ষার্থীদের নিয়মিত পরীক্ষা ছাড়াও টিউটোরিয়াল পরীক্ষা গ্রহণ করা হয়। গত কয়েক বছরে কলেজের ফলাফলও ঈর্ষণীয়। শিক্ষার্থীদের চরিত্র গঠন এবং তাদের মানোন্নয়নে অধ্যক্ষ মহোদয়ের নেতৃত্বে নিয়মিত অভিভাবক সমাবেশের আয়োজন করা হয়।
এখানে দূরবর্তী শিক্ষার্থীদের জন্য আবাসিক সুবিধা ও পরিবহণ ব্যবস্থা চালু রয়েছে। দরিদ্র তহবিল থেকে গরিব শিক্ষার্থীদের আর্থিক সহায়তাও প্রদান করা হয়।
কলেজে ৩৩টি কম্পিউটার সম্বলিত একটি অত্যাধুনিক কম্পিউটার ল্যাব রয়েছে; রয়েছে সুবিশাল ও সুসজ্জিত গ্রন্থাগার। বিজ্ঞানের শিক্ষার্থীদের জন্য রয়েছে ছিমছাম ও আধুনিক বিজ্ঞানাগার।
কলেজে যথাযোগ্য মর্যাদায় বিভিন্ন জাতীয় দিবসসহ অন্যান্য অনুষ্ঠান নিয়মিত পালিত হয়। সহশিক্ষা কার্যক্রমের অংশ হিসেবে এখানে বিএনসিসি, রোভার স্কাউট, রেড ক্রিসেন্ট, সিসিডিএফ, বঙ্গবন্ধু আবৃত্তি পরিষদ, কলেজ নাট্য-মঞ্চ সক্রিয় ভূমিকা পালন করছে।
করোনাকালীন এই পরিস্থিতিতেও দেশের প্রথম সারির কলেজ হিসেবে ০৬ এপ্রিল থেকেই অধ্যক্ষ মহোদয়ের নির্দেশনায় উচ্চ মাধ্যমিক শ্রেণির অনলাইন ক্লাস পরিচালিত হচ্ছে এবং অনলাইন পরীক্ষাও গ্রহণ করা হয়েছে।
ইতোমধ্যে অধ্যক্ষ মহোদয় পাঠ উন্নয়ন কমিটি এবং কাউন্সিলর স্যারদের সাথে নিয়ে অভিভাবক এবং শিক্ষার্থীদের সাথে পৃথকভাবে জুম মিটিং করে তাদের বিভিন্ন দিক-নির্দেশনা দেন। এই বিরূপ পরিস্থিতিতে কেবল শিক্ষা কার্যক্রম নয়; বিভিন্ন সামাজিক কার্যক্রমও চাঁদপুর কলেজে চলমান।
শিক্ষা নিয়ে গড়ব দেশ, শেখ হাসিনার বাংলাদেশ- এই প্রত্যয়কে সামনে রেখে চাঁদপুর সরকারি কলেজ সকল কার্যক্রম পরিচালনা করছে- যাতে বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নে ২০৪১ সালের উন্নত সমৃদ্ধ, সুখী ও শান্তিময় বাংলাদেশের যে স্বপ্ন দেখিয়েছেন তার সফল বাস্তবায়নে অবদান রাখতে পারে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *