সড়ক বিভাগে উদ্ভাবন অবদানে পুরস্কৃত জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ

‘কাজের স্বীকৃতি কর্মস্পৃহা আরও বাড়িয়ে দেয়’
: নিজস্ব প্রতিবেদক :
সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ এবং আওতাধীন অধিদপ্তর, কর্তৃপক্ষ বা সংস্থার সরকারি কাজে উদ্ভাবন বিষয়ে অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ গতকাল ২৯ জুন সড়ক ও পরিবহণ মন্ত্রণালয়ে এক বিশেষ অনুষ্ঠনে পুরস্কৃত হলেন চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ।
গতকাল ২৯ জুন বেলা ১০ টায় সড়ক পরিবহন মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে সচিবালয়ের সচিব মো. নজরুল ইসলামের হাত থেকে তিনি এ সনদপত্র, ক্রেস্ট ও মোবাইল সেট পুরস্কার গ্রহণ করেন।
এ অনুষ্ঠানে ভাচুয়ালি যুক্ত ছিলেন সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়েদুল কাদের।
জানা গেছে, সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগে দায়িত্ব পালন করার সময় অঞ্জনা খান মজলিশ সড়ক ও জনপথের কর্মকর্তাগণ যাতে অনলাইনে তাদের এসিআর আপলোডের তথ্য জানতে পারেন – এই ইনোভেটিভ আইডিয়া দেন এবং আইডিয়াটি বাস্তবে রুপান্তরে কাজ করেন। সেই আইডিয়া সফলভাবে বাস্তবায়িত হওয়ায় সড়ক ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব স্যার তার হাতে একটি সনদপত্র, ক্রেস্ট ও পুরস্কার হিসেবে একটি মোবাইল সেট তুলে দেন।
পুরস্কৃত হয়ে জেলা প্রশাসক (ডিসি) অঞ্জনা খান মজলিশ বলেন, ‘সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ হতে আমাকে ইনোভেশনের (উদ্ভাবনের) জন্য পুরস্কার প্রদান করা হয়। সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগে কাজ করার সময় আমি সড়ক ও জনপদের কর্মকর্তাগণ যাতে অনলাইনে তাদের এআরসি আপলোডের তথ্য জানতে পারেন এ ইনোভেটিভ আইডিয়া দেই এবং আইডিয়াটি বাস্তবে রুপান্তরে কাজ করি । সেই আইডিয়া সফলভাবে বাস্তবায়িত হওয়ায় সড়ক ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব পুরস্কৃত করেন।’
পুরস্কার পাওয়ায় জেলা প্রশাসক অভিব্যক্তি ব্যক্ত করে বলেন, কোন কাজের স্বীকৃতি হিসেবে পুরস্কার কাজের স্পৃহা আরও বাড়িয়ে দেয়। আরও দায়িত্ববোধ তৈরি করে। আমার ক্ষেত্রে তাই। তিনি বলেন, আমার পুরনো কর্মস্থানে যে কাজগুলো করেছিলাম সে কাজের স্বীকৃতি পেয়েছি। এটি আমার কর্মজীবনে বড় একটি অর্জন। এটি আমার খুব ভালো লেগেছে।
উল্লেখ্য, অঞ্জনা খান মজলিস ২০০৩ সালে ২২তম বিসিএস প্রশাসনের-এর মাধ্যমে চাকরিতে যোগদান করেন। দেশের বিভিন্ন স্থানে সরকারের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি মানিকগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক এবং পরবর্তীতে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের উপসচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। পরে তিনি সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের উপসচিব দায়িত্ব পালনের মধ্য দিয়ে তিনি চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক হিসেবে নিয়োগ পান।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *