হাইমচরে অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়তে ৮ হাজার ১০২ একর জমি বন্দোবস্তে প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন

ইব্রাহীম রনি :
শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির প্রচেষ্টায় চাঁদপুর অর্থনৈতিক অঞ্চল-২ (হাইমচর) প্রতিষ্ঠার কাজ চলছে। ইতোমধ্যেই এ অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে ৮ হাজার ১০২ একর খাসজমি বন্দোবস্তে অনুমোদন দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এরই ধারাবাহিকতায় হাইমচর উপজেলার ওই খাস জমি বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষের (বেজা) অনুকূলে শর্তসাপেক্ষে দীর্ঘ মেয়াদী বন্দোবস্ত দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভূমি মন্ত্রণালয়। ভূমি মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মাকছুদুর রহমান পাটওয়ারী স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে এ তথ্য জানা গেছে।
ওই চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে, বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষের (বেজা) আবেদন এবং তার প্রস্তাব ও সুপারিশের প্রেক্ষিতে চাঁদপুর জেলার হাইমচর উপজেলাধীন ১ নম্বর খতিয়াভূক্ত চরহাইম, চরকোড়ালিয়া, চরপক্ষিদিয়া, নিউচর, মিয়ারচর, চরবৈরাগী, দিয়ারা তাজপুর সোনাপুর, চররাও, ঈশানবালা, চরগাজীপুর-মনিপুর, মোলায়েমবাড়ী, চরহাসাদী, বাজেয়াপ্তি, চরগাজীপুর-মনিপুর, গাজীপুর-কুতুবপুর ও মনিপুর মৌজাভূক্ত বিভিন্ন দাগের সর্বমোট আট হাজার একশত দুই দশমিক শূন্য পাচ জমি ধার্য্যকৃত তিন হাজার আটশত উনচল্লিশ কোটি উনচল্লিশ লাখ চুরানব্বই হাজার ৫৪০ টাকা সেলামির পরিবর্তে ১০ লাখ ১ হাজার একশ’ টাকা প্রতীকি মূল্যে অকৃষি খাসজমি ব্যবস্থাপনা ও বন্দোবস্ত নীতিমালা অনুযায়ী ব্যতিক্রম সাপেক্ষে বন্দোবস্ত প্রদানের প্রস্তাবে প্রধানমন্ত্রী অনুমোদন প্রদান করেন। এর প্রেক্ষিতে উল্লেখিত জমি বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষের অনুকূলে শর্তসাপেক্ষে সরকার দীর্ঘমেয়াদী বন্দোবস্ত প্রদানের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে।
চাঁদপুরের কৃতী সন্তান ভূমি সচিব মাকুছুদুর রহমান পাটওয়ারী ফেইসবুক স্ট্যাটাসে বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সানুগ্রহ অনুমোদন দিয়েছেন। চাঁদপুর জেলার সামগ্রিক আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে এটি সুদূরপ্রসারী, অত্যন্ত দূরদর্শী, ইতিবাচক পরিবর্তন বয়ে আনবে। জীবন-যাপন ব্যবস্থায় আনবে ব্যাপক এবং অকল্পনীয় পরিবর্তন। উন্নত জীবনের ছোঁয়া এবং সাধারণ মানুষের ভাগ্যের আমূল পরিবর্তনের বীজ বপন করায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা এবং কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি।
তিনি আরও উল্লেখ করেন, ৮ হাজার ১০২ একর জমির বাজার মূল্যও বিশাল। তিন হাজার আটশত ঊনচল্লিশ কোটি ঊনচল্লিশ লক্ষ চুরানব্বই হাজার পাঁচশত চল্লিশ টাকা। তবে রাষ্ট্রের সামগ্রিক উন্নয়নের দিক বিবেচনা করে মাত্র দশ লাখ এক হাজার একশত এক টাকায় প্রতীকী মূল্যে দীর্ঘমেয়াদী বন্দোবস্ত প্রদানের জন্য ভূমি মন্ত্রণালয়ের প্রস্তাব মাননীয় প্রধানমন্ত্রী অনুগ্রহ করে অনুমোদন দিয়েছেন।
উল্লেখ্য, ২০১৮ সালের এপ্রিল মাসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চাঁদপুরের হাইমচরে বাংলাদেশ স্কাউটসের ৬ষ্ঠ জাতীয় কমডেকার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির ভাষণ দিতে গিয়ে এখানে অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তোলার ঘোষণা দেন। ওই অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমি হেলিকপ্টারে করে আসার সময় এখানকার জায়গাগুলো দেখেছি। হাইমচর অঞ্চলটি পছন্দ হয়েছে। এখানে আমরা একটি অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তুলবো। এখানকার মানুষ কাজের সুযোগ পাবে, সঙ্গে একটি পর্যটন কেন্দ্র হবে, নৌ ভ্রমণের জন্য স্পট বানানো হবে।’
প্রধানমন্ত্রীর এ ঘোষণার পর থেকেই হাইমচরে অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তোলার প্রক্রিয়া শুরু হয়।
হাইমচর ছাড়াও জেলার মতলব উত্তর উপজেলায় আরও একটি অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তোলার কাজ অনেক দূর এগিয়ে গেছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *