হাইমচরে ইউএনও’র হস্তক্ষেপে পানিবন্দী থেকে মুক্ত অর্ধশত পরিবার

হাসান আল মামুন :
হাইমচর উপজেলার ৩নং আলগী দক্ষিন ইউনিয়নের পূর্বচরকৃষ্ণপুর গ্রামের প্রায় ৫০ টি পরিবারকে দীর্ঘদিনের পানিবন্দী থেকে মুক্ত করলেন উপজেলা নির্বাহি অফিসার চাই থোয়াইহলা চৌধুরী।
বৃহস্পতিবার দুপুরে সরজমিনে গিয়ে পানিবন্দী এলাকা পরিদর্শন করেন তিনি। এ সময় স্থানীয় চুন্নু সরকারে পানি নিস্কাশনের বন্ধ করা পথ খুলে দেয়ার নির্দেশ দেন উপজেলা নির্বাহি অফিসার। তৎক্ষনিক পানি সংস্কার পথটি খুলে দেয়া হলে লোকজনের ঘর বাড়িতে আটকে থাকা বর্ষার পানি নামতে শুরু করে।
জানাজায়, সরকারি কালভার্টের মুখে মাটি ভরাট করে পানি নিস্কাশনের পথ বন্ধ করে রাখা হয়েয়েছে। যার ফলে জলাবদ্ধতায় উপজেলার পূর্বচর কৃষ্ণপুর গ্রামের জনতা বাজার সংলগ্ম আখন বাড়িসহ অর্ধ শতাধিক বাড়ির চারপাশ ও উঠানে পানি জমে আছে। পানি জমে থাকায় রান্নাসহ চলাচলে চরম দূর্ভোগসহ মানবেতর জীবনযাপন করছে পনিবন্দী পরিবার গুলি। এমন সংবাদ পেয়ে পানিবন্দী এলাকা পরিদর্শনে যান উপজেলা নির্বাহি অফিসার চাই থোয়াইহলা চৌধুরী। এসময় তিনি বলেন, পানি নিস্কাশনের পথ বন্ধ করা যাবে না। কেউ যদি তাদের জায়গা ভরাট করে কাংবা বসত ঘর নির্মান করে তাকে পানি নিস্কাশনের ব্যবস্থা রেখেই তা করতে হবে। নিস্কাশনের পথ বন্ধ করে অন্যজনদের পানিবন্দী করা যাবে না। তিনি পূর্বের ড্রেনটি সংস্কার করে কালভার্ট দিয়ে পানি নিস্কাশনের ব্যবস্থা করার জন্য স্থানীয় ইউপি সদস্য বিল্লাল আখনকে নির্দেশনা প্রদান করেন।
স্থানীয় লোকজন তাদের দীর্ঘদিনের সমস্যা পানিবন্দী থেকে মুক্ত হতে পেরে ইউএনও’র প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।
এসময় উপজেলা প্রকল্পবাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. আমিনুর রশিদসহ স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.