হাজীগঞ্জে আগুনে পুড়ে প্রতিবন্ধী কিশোরীর মৃত্যু

শাখাওয়াত হোসেন শামীম :
চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে রুটি গরম করতে গিয়ে রান্না ঘরে আগুনে পুড়ে মরলো প্রতিবন্ধী কিশোরী।
সে উপজেলার ২ নং বাকিলা ইউনিয়নের পশ্চিম রাধাসার গ্রামের কাজি বাড়ির মৃত ইউসুফ কাজীর মেয়ে প্রতিবন্ধী মেরিনা কাজী।
ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী কাজী বাড়ির হাবিব কাজী জানান, ৭ মার্চ সোমবার চাঁদপুর সদর হাসপাতাল থেকে ঢাকা নেয়ার পথে মারা যায় মেরিনা। রাতেই মেয়েটিকে পারিবারিক গোরস্থানে দাফন করা হয়েছে।
জানাযায়, গত ৭ মার্চ সোমবার সকাল বেলা মেরিনাদের রান্না ঘরে আগুন লেগেছে দেখে আমরা সবাই আগুন নেভাতে শুরু করি। ঘরের আগুন অর্ধেক নিভানোর পর দেখি ঘরের ভিতরেই মেরিনার গায়ে আগুন জ্বলছে। তারপরেই সবাই মিলে আগে তাকে উদ্ধার করে চাঁদপুর সদর হাসপাতালে পাঠাই। সেখান থেকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল রেফার দিলে পথিমধ্যে মারা যায় মেয়েটি।
স্থানীয় ইউপি সদস্য রবিউল আলম অরুন জানান, আগুনে পুড়ে মেরিনা কাজীর মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, মেরিনারা তিন বোনের মধ্যে বড় দুই বোন প্রতিবন্ধী আর সে সবার বড়।
আমরা দুই বোনকে প্রতিবন্ধী ভাতা দিয়েছি।
পা-খোঁড়া প্রতিবন্ধী দশম শ্রেণী পড়ুয়া মেহেরিন কাজীর বাবা সাত বছর আগেই মারা যান।
এ বিষয়ে হাজীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ জুবায়ের সৈয়দ জানান, এ বিষয়ে ঐ বাড়িতে লোক পাঠানো হয়েছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.