হাজীগঞ্জ পৌরসভায় সাড়ে ৭ হাজার পরিবার পেলো খাদ্য সামগ্রী ও নগদ টাকা

শাখাওয়াত হোসেন শামীম :
হাজীগঞ্জ পৌরসভার মেয়র আ.স.ম মাহবুব-উল আলম লিপনের ব্যক্তিগত ও পারিবারিক সহযোগিতায় নগদ টাকা ও খাদ্য সামগ্রী পেয়েছেন পৌরসভার ৭ হাজার ৩শ’ ৮৬ জন সুবিধাভোগী পরিবার। পৌর মেয়রের সার্বিক তত্ত্বাবধানে সুবিধাভোগীদের হাতে এসব নগদ টাকা, চাল ও খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দেয়া হয়।পৌরসভা সূত্রে জানা গেছে, পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে পৌরসভার ১২টি ওয়ার্ডে ৪ হাজার ৬শ’ ২১ জন সুবিধাভোগীর হাতে জনপ্রতি ১০ কেজি করে মোট ৪৬ হাজার ২শ’ ১০ কেজি চাল এবং গত ১ থেকে ১৪ জুলাই পর্যন্ত ১ হাজার সুবিধাভোগীকে জনপ্রতি ১০ কেজি করে মোট ১০ হাজার কেজি চাল বিতরণ করা হয়।এছাড়া প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে গতকাল রোববার (১৮ জুলাই) পর্যন্ত ১ হাজার ১শ’ ২৬ জন সুবিধাভোগীর হাতে জনপ্রতি নগদ ৫শ’ টাকা করে মোট ৫ লাখ ৬৩ হাজার টাকা বিতরণ করা হয়। যা এখনো চলমান রয়েছে। পৌর মেয়র মানুষের বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্রধানমন্ত্রীর উপহারের এই নগদ টাকা পৌঁছে দিচ্ছেন।অপরদিকে পৌর মেয়র আ.স.ম মাহবুব-উল আলম লিপনের ব্যক্তিগত ও পারিবারিকভাবে নগদ ১ লাখ ৬৫ হাজার টাকা এবং ৩শ’ ৬৫ জন সুবিধাভোগীর মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেছেন।
পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে এবং গত ১৪ দিনের (১-১৪ জুলাই) সর্বাত্মক লকডাউন চলাকালীন সময়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহারের নগদ টাকা ও চাল।
এই খাদ্যসামগ্রীর মধ্যে রয়েছে জনপ্রতি ১০ কেজি চাল, ১ লিটার সয়াবিন তেল, ১ কেজি মশুর ডাল ও ২ কেজি আলু।এছাড়া করোনাভাইরাসের এই মহামারিকালীন সময়ে সর্বাত্মক লকডাউন চলাবস্থায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহারের নগদ অর্থ ও সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনির আওতায় সরকার কর্তৃক প্রদত্ত বিভিন্ন ভাতার টাকা সুবিধাভোগীদের ঘরে ঘরে পৌঁছে দিয়েছেন পৌর মেয়র আ.স.ম মাহবুব-উল আলম লিপন। একই সাথে তিনি পৌরসভার বিভিন্ন এলাকায় সড়ক ও রাস্তায় জীবানুনাশ ছিটিয়ে এবং মশক নিধন কার্যক্রম পরিচালনা করছেন।পাশাপাশি তিনি ব্যক্তিগত ও পারিবারিকভাবে অসহায়-দুস্থদের আর্থিক সহযোগিতা ও খাদ্য সামগ্রী বিতরণ এবং জনসচেতনতায় পৌরসভার পক্ষ থেকে বিনামূল্যে মাস্ক ও লিফলেট বিতরণ করছেন। ধারাবাহিকভাবে প্রতিদিনই তিনি এসব কার্যক্রম করে থাকেন। এছাড়াও আ.স.ম মাহবুব-উল আলম লিপন ক্ষুদে শিশু-কিশোরদের মাঝে চকলেট বিতরণ করে থাকেন। এমন ব্যতিক্রমী কাজে প্রতিনিয়ত তিনি জনসাধারণের প্রশংসা কুড়াচ্ছেন।এ বিষয়ে পৌর মেয়র আ.স.ম মাহবুব-উল আলম লিপন বলেন, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে সরকার ঘোষিত সর্বাত্মক লকডাউনে যেন জনসমাগম না ঘটে, সেজন্য সুবিধাভোগিদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্রধানমন্ত্রীর উপহারের নগদ টাকা বিতরণ করছি। যা এখনো চলমান আছে। এছাড়া ওয়ার্ডভিত্তিক নির্দিষ্ট স্থানে ভাতার টাকা এবং যারা বিভিন্ন সমস্যার কারণে আসতে পারেনি, তাদের টাকা ঘরে ঘরে পৌঁছি দিয়েছি। তিনি আরো বলেন, করোনাকালীন এই সময়ে যারা ক্ষতিগ্রস্ত এবং পবিত্র ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে সুবিধাভোগীদের বাড়িতে সরকারিভাবে এবং ব্যক্তিগত ও পারিবারিকভাবে এবং পৌরসভার উদ্যোগে খাদ্য সামগ্রী পৌছে দিয়েছি। এরপরও কেউ সমস্যায় পড়লে তিনি তার সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ জানান।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *