হাজীগঞ্জ বাজারে অগ্নিকাণ্ড : ৬ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি

শাখাওয়াত হোসেন শামীম :
চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ পূর্ব বাজারে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে বেশ কয়েকটি মুদি, হার্ডওয়ারের গোডাউনসহ ১৪ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান পুড়ে ছাই হয়েগেছে। প্রায় ৬ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি।
তবে এতে কেউ হতাহত হয়নি। ফায়ার সার্ভিসের ৪টি ইউনিন প্রায় ৪ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়।
রোববার (২ আগষ্ট) দিনগত রাত আনুমানিক ১টার দিকে বাজারের টিন পট্টির ভাই ভাই স্টোর নামের দোকান থেকে আগুনের সূত্রপাত ঘটে বলে প্রত্যক্ষ্যদর্শী হাজীগঞ্জ থানার এসআই বেলাল জানান।
আগুনে পুড়ে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে খোরশেদ, কারী সফিউল্যাহ, আবুল বাশার, অনিল সাহা, মান্নান ও তফুর দোকান। এছাড়াও ফাতেমা এন্টারপ্রাইজ, লেপ-তোষকের দোকান, একটি খাবার হোটেল, হার্ডওয়ারের ও মুদি মালের গোডাউন,হুগলার দোকান, ২টি কবুতর বিক্রয়ের দোকান, আয়না ঘরসহ ১৪টি দোকান ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে।
সংবাদ পেয়ে তাৎক্ষনিক ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (হাজীগঞ্জ সার্কেল) আফজাল হোসেন, হাজীগঞ্জ পৌরসভার মেয়র আ স ম মাহবু-উল-আলম লিপন, হাজীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলমগীর হোসেন রনিসহ ব্যবসায়ী সমিতির নেতৃবৃন্দ।
হাজীগঞ্জ বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক হায়দার পারভেজ সুজন বলেন, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ নির্ণয় করা যায়নি। তবে কয়েক কোটি টাকা হবে বলে জানিয়েছেন। আহত ৫/৬ জনকে হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। তাদের চিকিৎসা ব্যয়ভার গ্রহণ করবেন ব্যবসায়ী সমিতি।
হাজীগঞ্জ বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আলহাজ্ব আশফাকুল আলম চৌধুরী জানান, আগুনে আনুমানিক ১৩-১৪টি দোকান ও গোডউন পুড়েছে। ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ এখনই বলা যাচ্ছে না। তবে কয়েক কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।
ফায়ার সার্ভিস চাঁদপুর উত্তর স্টেশনের সহকারী উপপরিচালক মো. ফরিদ আহমেদ বলেন , ধারণা করা হচ্ছে বিদ্যুৎতের শর্ট সার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে।
ফায়ার সার্ভিস হাজীগঞ্জ, কচুয়া, শাহরাস্তি ও চাঁদপুরের ৬টি ইউনিট রাত ২টা থেকে প্রায় সাড়ে ৩ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে ভোর সাড়ে ৫টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়। তদন্ত করে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ নির্ধারণ করা হবে।
হাজীগঞ্জ পৌরসভার মেয়র আ স ম মাহবু-উল-আলম লিপন জানান প্রায় ৬ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে ।
হাজীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) বৈশাখী বড়ুয়া জানান, আগুনে পুড়ে যাওয়া ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলো সরজেমিন তদন্ত করে তালিকা করা আর্থিক সহযোগিতা করা হবে।
চাঁদপুর-৫ (হাজীগঞ্জ-শাহরাস্তি) আসনের সংসদ সদস্য মেজর অব. রফিকুল ইসলাম বীরউত্তম হাজীগঞ্জ বাজারে ১৪টি দোকান পুড়ে যাওয়ার ঘটনায় গভীর দূঃখ ও ব্যবসায়ীদের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন।
তিনি মুঠোফোনে জানান, দূর্যোগ ও ত্রাণমন্ত্রীর সাথে আমার কথা হয়েছে। হাজীগঞ্জ বাজারে ক্ষতিগ্রস্থদের সরকারের পক্ষ থেকে সহযোগিতা প্রদান করা হবে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *