হাজীগঞ্জ ভ্রাম্যমাণ আদালতে ২ দিনে ৯ মামলায় জরিমানা

শাখাওয়াত হোসেন শামীম :
সরকারি ঘোষিত সর্বাত্মক লকডাউন বাস্তবায়ন ও করোনার প্রাদুর্ভাব মোকাবিলায় জনসচেতনতামূলক কার্যক্রম ও স্বাস্থ্যবিধি মানাতে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে হাজীগঞ্জে গত বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার এই দুইদিনে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান পরিচালনা করেন নিবার্হী ম্যাজিস্ট্রেট এনামুল হাসান।

এ সময় সরকার ঘোষিত সর্বাত্মক লকডাউনের বিধি নিষেধ না মানা, স্বাস্থ্যবিধি না মানাসহ মাস্ক পরিধান না করায় বাজরের হকারসহ বিভিন্ন দোকানে ৯ মামলায় নগদ ১২ হাজার ১’শ টাকা জরিমানা করেন, জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এনামুল হাসান।

ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনাকালে ব্যবসায়ী, ক্রেতা ও পথচারীদের লকডাউনের বিধি-নিষেধ, স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলা ও মাস্ক পরিধান করার নির্দেশনা প্রদান করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।

ভ্রাম্যমান আদালত সূত্রে জানা গেছে, সরকার ঘোষিত সর্বাত্মক লকডাউন নিশ্চিতকরণ ও করোনার প্রাদুর্ভাব মোকাবিলায় উপজেলা প্রশাসনের পাশাপাশি জেলা প্রশাসন হাজীগঞ্জ বাজারে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে আসছেন, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার এনামুল হাসান। ভ্রাম্যমান আদালতে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর দায়িত্ব পালন করেন বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) এর সদস্যরা।

এ বিষয়ে জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও নিবার্হী ম্যাজিস্ট্রেট এনামুল হাসান বলেন, সরকারি বিধি নিষেধ অমান্য করে হাজীগঞ্জ বাজারের ৫টার পরও কাঁচাবাজার হকাররা দোকান খোলা ছিল। অভিযানে কাঁচাবাজার হকাররা ভ্রাম্যমান আদালতের উপস্থিতি টের পেয়ে অনেকে দোকান খোলা রেখেই অনেকে পালিয়ে যায়।

এ সময় তিনি মহামারি করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে ক্রেতা ও বিক্রেতাসহ সর্বসাধারণকে সরকারি বিধি-নিষেধ এবং মাস্ক পরিধান ও স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলার আহবান জানান। এছাড়াও জনসচেতনতায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের এই অভিযান অব্যাহৃত থাকবে বলে তিনি সংবাদকর্মীদের জানান।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.