হানারচর ইউপি চেয়ারম্যান ছাত্তার রাঢ়ীর ছেলে মাহাবুব গ্রেফতারের পর জামিনে মুক্ত

নিজস্ব প্রতিবেদক :
নৌপুলিশকে দায়িত্ব পালনে বাধা এবং মারধরের মামলায় চাঁদপুর সদর উপজেলার ১৩ নং হানারচর ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যান হাজী আবদুর ছাত্তার রাঢ়ীর ছোট ছেলে মো: মাহাবুব রাঢ়ীকে (২১) গ্রেফতার করা হয়েছে। তার গ্রামের বাড়ী হানারচর ইউনিয়নের গোবিন্দিয়া গ্রামে।
৫ র্মাচ শুক্রবার দুপুরে তাকে গ্রেফতার করে নৌ পুলিশ। গতকাল শনিবার আদালতের তাকে আদালতে হাজির করা হয়। পরে তার আদালতে তার জামিন প্রার্থণা করলে জামিনমঞ্জুর করেন আদালত। এ তথ্য জানিয়েছেন কোর্ট ইন্সপেক্টর।
এর আগে মো:মাহাবুব রাঢীর বিরুদ্বে নৌ-পুলিশের উপর হামলার ঘটনায় বিগত ২৬.১০.২০২০ খ্রি: চাঁদপুর মডেল থানায় দায়েরকৃত মামলায় (মামলা নং ৪৮) গ্রেফতার দেখানো হয়।
ঘটনার পরে ইউপি চেয়ারম্যান আবদুর ছাত্তার রাঢ়ী তার ছেলে মো:মাহাবুব রাঢ়ীকে ছাড়িয়ে নেওয়ার জন্য নৌ পুলিশের সাথে বাকবিতন্ডা লিপ্ত হয়। অবশেষে নৌ থানা পুলিশ চেয়ারম্যানের ছেলেকে গ্রেফতার করে চাঁদপুর নৌ থানায় নিয়ে যায়।
শুক্রবার সকালে চাঁদপুর নৌ থানা ও হরিনা নৌ পুলিশ ফাঁড়ির পুলিশের সাথে নিয়ে নদীতে অভিযান চালায়।
জানা গেছে, হরিনা এলাকার কিছু দালাল চক্র জেলেদের শেল্টার দিয়ে নদীতে মাছ ধরাচ্ছে। নৌ পুলিশ নদীতে অভিযান করার কারণে ইউপি চেয়ারম্যানের ছেলে মো:মাহাবুব রাঢ়ী তাদের সাথে বাকবিতণ্ডে জড়িয়ে পড়ে।
এই বিষয়ে হরিনা নৌ-ফাঁড়ির ইনচার্জ নাছিম জানায়, নৌ থানা পুলিশের সাথে হরিনা ফেরি ঘাটে ইউপি চেয়ারম্যানের ছেলে মো:মাহাবুব রাঢ়ীর সাথে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। ঘটনার সাথে সাথেই নৌ থানা পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে নিয়ে যায়।
চাঁদপুর নৌ থানার ইনচার্জ মো: জহিরুল হক জানান, নৌপুলিশকে দায়িত্ব পালনে বাধা দেয়া এবং আঘাত করার ঘটনায় দায়েরকৃত মামলায় তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এছাড়া সদর মডেল থানায় তার বিরুদ্ধে আরও দু’টি মামলা রয়েছে। শনিবার তাকে আমরা আদালতে সোপর্দ করেছি।
হানারচর ইউপি চেয়ারম্যানের ছেলে মো:মাহাবুব রাঢ়ী নদীতে মাছ ধরার জন্য জেলেদেরকে সহযোগিতা করে আসছে। নদীতে অভিযান করায় ক্ষিপ্ত হয়ে চেয়ারম্যানের ছেলে পুলিশের সাথে বাকবিতণ্ডা লিপ্ত হয়। এছাড়াও নৌপুলিশের স্পীটবোডর গাড়ী চালকের সাথেও চরম খারাপ আচারণ করেছে সে। এ কারণে তাকে আটক করা হয়েছে।
এ ব্যাপারে হানারচর ইউপি চেয়ারম্যান আবদুর ছাত্তার রাঢ়ী জানান, সামান্য ঘটনায় নৌ-পুলিশ আমার ছেলেকে আটক করেছে। তারপরও আমি দু:খিত বিষয়টি নিয়ে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *