‘‌পৃথিবীতে আমরাই একমাত্র গর্বিত জাতি যারা ভাষার জন্যে জীবন দিয়েছি’

নিজস্ব প্রতিবেদক :
ভাষার মাস ফেব্রুয়ারিতে সকল ভাষা শহিদের স্মৃতির প্রতি সম্মান রেখে সাহিত্য মঞ্চের আয়োজনে চারমাস মেয়াদী প্রমিত উচ্চারণ, উপস্থাপন ও আবৃত্তি বিষয়ক কর্মশালার উদ্বোধন হয়েছে। ১২ ফেব্রুয়ারি শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৩টায় চাঁদপুর সাহিত্য একাডেমি মিলনায়তনে এ কর্মশালার উদ্বোধন করেন চাঁদপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল মাহমুদ জামান। উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র মো. জিল্লুর রহমান জুয়েল।
সাহিত্য মঞ্চের সভাপতি মাইনুল ইসলাম মানিকের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আশিক বিন রহিমের পরিচালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কর্মশালার প্রশিক্ষক বিশিষ্ট আবৃত্তিশিল্পী ও নজরুল ইনস্টিটিউটের প্রশিক্ষক কাজী মাহতাব সুমন, চাঁদপুর পৌরসভার প্যানেল মেয়র হেলাল উদ্দিন ও আনন্দধ্বনি সঙ্গীত শিক্ষায়তনের সাধারণ সম্পাদক রফিক আহমদ মিন্টু। অনুভূতি প্রকাশ করেন শিল্পচূড়া সংগঠনের আহ্বায়ক কবি মাহবুবুর রহমান সেলিম ও ডিবিসি টিভি চ্যানেলের চাঁদপুর জেলা প্রতিনিধি সাংবাদিক তালহা জুবায়ের।
উদ্বোধকের বক্তব্যে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল মাহমুদ জামান বলেন, পৃথিবীতে আমরাই একমাত্র গর্বিত জাতি যারা ভাষার জন্যে জীবন দিয়েছি। তাই আজকের এই দিনে আমরা সকল ভাষা শহিদ এবং ভাষা সৈনিকদের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানাই। পাশাপাশি মহান মুক্তিযুদ্ধের সকল শহিদদের শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করছি।
তিনি বলেন, অবশ্যই আমরা সকলেই মাতৃভাষাকে শ্রদ্ধা করবো। আমাদের যে ছোট ছোট আঞ্চলিক ভাষা রয়েছে সেটিকে বাঁচিয়ে রাখতে হবে। এর পাশাপাশি আমাদের প্রমিত বাংলা এবং শুদ্ধ উচ্চারণ জানতে হবে। কারণ আমরা যখন অন্য মঞ্চে বা অন্য মানুষের সামনে কথা বলবো, সেটি যেন শুদ্ধ উচ্চারণে হয়। আমাদের বাংলা ভাষার শুদ্ধ উচ্চারণ এবং শুদ্ধ বানান সম্পর্কে জানতে হবে।
তিনি আরো বলেন, ভাষার মাসে বাংলা ভাষার শুদ্ধ উচ্চারণ নিয়ে সাহিত্য মঞ্চ এমন একটি উদ্যোগ নিয়েছে তা সত্যিই প্রশংসার দাবিদার। আমি মনে করি একটি শুধু ভালো উদ্যোগই নয়, একটি সাহসী উদ্যোগ। এজন্যে আমি আমার ব্যক্তিগত পক্ষ থেকে এবং চাঁদপুর জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সাহিত্য মঞ্চকে আন্তরিকভাবে সাধুবাদ জানাই। আজকের এই কর্মশালার উপস্থিতি দেখে আমি অবাক হয়েছি। বাংলা ভাষার শুদ্ধ উচ্চারণ নিয়ে মানুষের যে আগ্রহ আছে, সেটি আমাকে দারুণ ভাবে মুগ্ধ করেছে।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র মো. জিল্লুর রহমান জুয়েল বলেন, আমরা সবাই আমাদের সমাজকে সুন্দর করতে চাই, আমাদের চারপাশটাকে সুন্দর করতে চাই। আমি মনে করি সমাজ কিংবা চারপাশকে সুন্দর করার আগে আমাদের নিজেদেরকে সুন্দর করতে হবে। এই সুন্দর করার মানে এই নয় যে, আমি দেখতে কেমন, আমার পোশাক কেমন। একজন মানুষের উচ্চারণ কেমন, তার বাচনভঙ্গি কেমন, তার আচরণ, ব্যাহার কেমন; এইসব মিলিয়ে মানুষ সুন্দর।
তিনি আরো বলেন, উচ্চারণ সবসময় একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। সুন্দর উপস্থাপনের মধ্য দিয়েই একটি কথা অনেক সুন্দর হতে পারে। আমরা কি বলতে চাই সে বক্তব্যটা যেমন প্রাসঙ্গিক, তেমন করে সে বক্তব্যটা কতটা সুন্দর করে উপস্থাপন করা হলো সেটিও গুরুত্বপূর্ণ। আজকে ভাষার মাসে ভাষার শুদ্ধ উচ্চারণ বিষয়ে এই কর্মশালাটি খুবই প্রাসঙ্গিক। এই কর্মশালার আয়োজক সাহিত্য মঞ্চকে আমি অনেক ধন্যবাদ জানাই। সাহিত্য মঞ্চ বরাবরই ব্যতিক্রমী আয়োজন করে থকে। আগামীদের তাদের এমন আয়োজন চলমান থাকবে সেই আহ্বান রাখছি।
উল্লেখ্য : সাহিত্য মঞ্চের আয়োজনে চারমাস মেয়াদী প্রমিত উচ্চারণ, উপস্থাপন ও আবৃত্তি বিষয়ক এই কর্মশালায় ৪৩ জন প্রশিক্ষনার্থী অংশগ্রহণ করেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *