আজ চাঁদপুর সদরের ৯ ইউপির নির্বাচন, থাকছে কয়েকস্তরের নিরাপত্তা বেষ্টুনি

নিজস্ব প্রতিবেদক :
আজ চাঁদপুর সদর উপজেলার ৯টি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। দ্বিতীয় ধাপে দেশের ৮৪৮টি ইউনিয়ন পরিষদের সাথে চাঁদপুরেও একযোগে এই নির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। আজ সকাল ৮ থেকে শুরু বিকেল ৪টা পর্যন্ত নির্বাচনের ভোট গ্রহন চলবে। তবে অন্যান্য নির্বাচনে ভোটের আগের দিন প্রতিটি কেন্দ্রে ব্যালট পেপার পৌছলেও এবার তা নির্বাচনের দিন ভোরে প্রতিটি কেন্দ্রে পৌছবে বলে জানা গেছে। চাঁদপুর সদর উপজেলার ১০টি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনী তফসিল ঘোষণা হলেও ভোট গ্রহণের মাত্র ২দিন আগে ১৩নং হানারচর ইউপির নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে। ওই ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান আব্দুর ছাত্তার রাঢ়ির হাইকোর্টে একটি রিটের প্রেক্ষিতে নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে। যার ফলে কাল চাঁদপুর সদরের ৯টি ইনিয়নে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এই ৯টি ইউনিয়নে সর্বমোট ৩৭৬ জন প্রার্থী প্রতীক নিয়ে নির্বাচনী মাঠে রয়েছেন। এরমধ্যে চেয়ারম্যান পদে ৩১জন, সাধারণ সদস্য পদে ২৭৫ জন ও সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে ৭০ জন। তবে এর মধ্যে ৭নং তরপুরচন্ডি ও ৫নং রামপুর ইউনিয়নের নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী ইতিমধ্যেই বিনা ভোটে নির্বাচিত হয়েছেন। এই ১০ ইউনিয়নের মোট ভোটার ১ লাখ ৮৭ হাজার ৫৫জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার সংখ্যা ৯৭হাজার ৩৯৫ জন এবং মহিলা ভোটার সংখ্যা ৮৯হাজার ৬শ’ ৬০ জন। নির্বাচনকে সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার লক্ষ্যে চাঁদপুর জেলা প্রশাসন এবং জেলা নির্বাচন অফিস সকল প্রকার প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে।
চাঁদপুর জেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, ৯টি ইউনিয়নের নির্বাচনের আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় পুলিশের পাশাপাশি ৩ প্লাটুন র্যাব, ৩ প্লাটুন বিজেবি, ২ প্লাটুন কোস্টগার্ড মোতায়েন করা হয়েছে। প্রতিটি কেন্দ্রে ৫জন পোশাকধারী পুলিশ, ১৭জন আনসার সদস্য স্থায়ী টহলে থাকবে। ৯টি ইউনিয়নে মোট কেন্দ্র ৯৬টি, মোট ভোট কক্ষ ৫৪৮টি, মোট অস্থায়ী কেন্দ্র ১০৬টি।
চাঁদপুর জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা তোফায়েল হোসেন জানান, সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন পরিচালনা করার জন্য আমাদের প্রস্তুত। নির্বাচনী কার্যক্রম পরিচালনার জন্য ১০৫ জন প্রিজাইডিং অফিসার, ৫৭১ জন সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার এবং ১১৪২ জন পুলিং অফিসার নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। এসকল অফিসারদের নির্বাচন পরিচালনায় প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে।
এদিকে এ নির্বাচনকে ঘিরে উপজেলার ৯টি ইউনিয়নে নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণায় ব্যস্ত সময় পার করছে প্রার্থীরা। সাধারণ ভোটারদের অভিমত ‘বিগত দিনে যারা এলাকায় উন্নয়ন করেছে এবং সুখে-দুঃখে যারা তাদের পাশে ছিল, তাদের তারা ভোট দিয়ে নির্বাচিত করবেন।
জেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, চাঁদপুর সদরের ৯ইনিয়নে মোট প্রার্থী ৩৭৬ জন প্রার্থী প্রতীক নিয়ে নির্বাচনী মাঠে রয়েছেন। এরমধ্যে চেয়ারম্যান পদে ৩১জন, সাধারণ সদস্য পদে ২৭৫ জন ও সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে ৭০ জন।
১নং বিষ্ণুপুর ইউনিয়নে মোট ভোটার ২৪৭২৫ জন। এরমধ্যে পুরুষ ভোটার ১২৮০৩ জন এবং নারী ভোটার ১১৯১২জন। এ ইউনিয়নে মোট ৩৪ জন প্রার্থী ভোটের মাঠে রয়েছেন। এর মধ্যে চেয়ারম্যান প্রার্থী ৩ জন। তারা হলেনঃ (নৌকা) প্রতিকে বর্তমান চেয়ারম্যান নাছির উদ্দিন খান শামীম, (হাতপাখা) প্রতিক অজিউল্লাহ সরকার, স্বতন্ত্র খোরশেদ আলম (আনারস) প্রতীক পেয়েছেন। সাধারণ সদস্য ২৫ জন ও সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে ৬ জনের মাঝে প্রতিক বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। এদের মধ্যে সংরক্ষিত সদস্য (৪,৫ ৬) রহিমা বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।
২নং আশিকাটি ইউনিয়নে মোট ভোটার ২০৮১১ জন। এরমধ্যে পুরুষ ১০৬৫১, নারী ভোটার ১০১৬০জন। মোট ৪২ জন প্রার্থীর প্রার্থী ভোটের মাঠে রয়েছেন। এর মধ্যে চেয়ারম্যান প্রার্থী ২জন। তারা হলেনঃ (নৌকা) প্রতিকে বর্তমান চেয়ারম্যান মোহাম্মদ বিল্লাল হোসেন পাটওয়ারী, হাতপাখা প্রতীকের চেয়ারম্যারপ্রার্থী মাদুদ গাজী। সাধারণ সদস্য ৩৬ জন ও সংরক্ষিত মহিলা সদস্য ৫ জনের মাঝে প্রতিক বরাদ্দ দেয়া হয়। এদের মধ্যে সংরক্ষিত সদস্য (৭,৮,৯) পদে একাধিক প্রার্থী না থাকায় আয়শা বেগম বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।
৪নং শাহমাহমুদপুর ইউনিয়নে মোট ভোটার ২১৬৩৯ জন। এর মধ্যে পুরুষ ১১০২৬, নারী ভোটার ১০৬১৩ জন। মোট ৫১ জন প্রার্থী প্রার্থী ভোটের মাঠে রয়েছেন। এর মধ্যে চেয়ারম্যান প্রার্থী ৪জন। তারা হলেনঃ (নৌকা) প্রতিক মাসুদুর রহমান নান্টু, (হাতপাখা) প্রতীক মো. শাহ জামাল গাজী, স্বতন্ত্র মোঃ রফিকুল ইসলাম ( আনারস) প্রতিক, স্বপন মাহমুদ ( টেলিফোন) প্রতীক পেয়েছেন।।সাধারণ সদস্য ৩৭জন ও সংরক্ষিত মহিলা সদস্য ১০জনের মধ্যে প্রতিক বরাদ্দ দেয়া হয়।
৫নং রামপুর ইউনিয়নে মোট ভোটার ১৮৯৭৭ জন। এরমধ্যে পুরুষ ৯৭৩৭, নারী ৯২৪০ জন। মোট ৪৩ জন প্রার্থী ভোটের মাঠে রয়েছেন। এর মধ্যে ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে একাধিক প্রার্থী না থাকায় (নৌকা) প্রতিকের প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান আল মামুন পাটওয়ারী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। সাধারণ সদস্য ৩৫ জন ও সংরক্ষিত মহিলা সদস্য ৮জনের মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়।
৬নং মৈশাদী ইউনিয়নে ১৩২৮৬ জন। এরমধ্যে পুরুষ ৬৭৯৭ জন, নারী ৬৪৮৯জন। মোট ৪৫ জন প্রার্থী ভোটের মাঠে রয়েছেন। এর মধ্যে চেয়ারম্যান প্রার্থী ৩ জন। তারা হলেনঃ (নৌকা) প্রতীক মো. নুরুল ইসলাম, (হাতপাখা) প্রতীক আজহারুল ইসলাম, স্বতন্ত্র আবু জাফর মোঃ সালেহ (আনারস) প্রতীক পেয়েছেন। সাধারণ সদস্য ৩৪ জন ও সংরক্ষিত মহিলা সদস্য ৮জনের মধ্যে প্রতিক বরাদ্দ দেয়া হয়। এদের মধ্যে ৭নং ওয়ার্ডে একাধিক প্রার্থী না থাকায় মোঃ রাশেদ আহম্মদ ঢালী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।
৭নং তরপুরচন্ডী ইউনিয়নে মোটা ভোটার ১০৩৫৫ জন। এরমধ্যে পুরুষ ৫২৬৮জন, নারী ৫০৮৭জন। মোট ২৭ জন প্রার্থী ভোটের মাঠে রয়েছেন। এ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে একাধিক প্রার্থী না থাকায় (নৌকা) প্রতিকের প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান ইমাম হাসান রাসেল গাজী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। এখানে সাধারণ সদস্য ১৯ জন ও সংরক্ষিত মহিলা সদস্য ৮জন প্রার্থীর মধ্যে প্রতিক বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। এদের মধ্যে সাধারণ সদস্য ১নং ওয়ার্ড আরশ্বাদ মোল্লা, ২নং ওয়ার্ড হাচানাত হাজী, ৪ নং ওয়ার্ড সোবহান গাজী ওয়ার্ডে একাধিক প্রার্থী না থাকায় বিনা প্রতিদ্বন্দিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।
৮নং বাগাদী ইউনিয়নে মোট ভোটার ২৬০৬৮। এরমধ্যে পুরুষ ১৩৭৯০, নারী ভোটার ১২২৭৮জন। মোট ৪৫ জন প্রার্থী ভোটের মাঠে রয়েছেন। এর মধ্যে চেয়ারম্যান প্রার্থী ৫ জন। তারা হলেনঃ (নৌকা) প্রতিক বর্তমান চেয়ারম্যান আলহাজ বেলায়েত হোসেন গাজী বিল্লাল, (হাতপাখা) প্রতীক মো. নেয়ামত উল্লাহ, স্বতন্ত্র (চশমা) প্রতিক মোঃ বরকত উল্ল্যাহ খান, (আনারস) প্রতীক মানিক মিয়া, জাকের পার্টির মুনসুর বেপারী (গোলাপ ফুল) প্রতিক পেয়েছেন। সাধারণ সদস্য ৩৫ জন ও সংরক্ষিত মহিলা সদস্য ৫ জনের মধ্যে প্রতিক বরাদ্দ দেয়া হয়। এদের মধ্যে একাধিক প্রার্থী না থাকায় সংরক্ষিত আসনে (১,২,৩) পারুল আক্তার বিনা প্রতিদ্বন্দিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।
৯নং বালিয়া ইউনিয়নে মোট ভোটার ২৬৫৫২ জন। পুরুষ ভোটার ১৪১০৭, নারী ভোটার ১২৪৪৫জন। থেকে ৭ জন প্রার্থী ভোটের মাঠে রয়েছেন। এর মধ্যে চেয়ারম্যান প্রার্থী ৭জন। তারা হলেনঃ (নৌকা) প্রতিক রফিক উল্যাহ মাস্টার, (হাতপাখা) প্রতীক মো. নুরুদ্দিন খান, স্বতন্ত্র (টেলিফোন) প্রতীক হাফিজুর রহমান, (আনারস) মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন তফাদার, (মটর সাইকেল) মোঃ কামরুল হাসান খান, (চশমা) প্রতীক গাজী মোঃ মাসুদ রায়হান, বর্তমান চেয়ারম্যান তাজুল ইসলাম (টেবিল ফ্যান) পেয়েছেন। সাধারণ সদস্য ১৯ জন ও সংরক্ষিত মহিলা সদস্য ১১জন।
১২নং চান্দ্রা ইউনিয়নে মোট ভোটর ২৪৬৫২ জন। এরমধ্যে পুরুষ ১৩২১৬, নারী ভোটার ১১৪৩৬। মোট ৪৮ জন প্রার্থী ভোটের মাঠে রয়েছেন। এর মধ্যে চেয়ারম্যান প্রার্থী ৪ জন। তারা হলেনঃ (নৌকা) প্রতিকের বর্তমান চেয়ারম্যান খান জাহান আলী কালু পাটওয়ারী, (হাতপাখা) প্রতিক মাও. মো. মজিবুর রহমান মিয়াজী, স্বতন্ত্র (ঘোড়া) প্রতীক মুকবুল, আব্দুর রহমান বেপারী (আনারস) প্রতিক পেয়েছেন। সাধারণ সদস্য ৩৫ জন ও সংরক্ষিত মহিলা সদস্য ৯জনের মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *