উপজেলায় শ্রেষ্ঠ কলেজের স্বীকৃতি পেলো হাজীগঞ্জ ডিগ্রি কলেজ

শাখাওয়াত হোসেন শামীম :
চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে উপজেলা পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের স্বীকৃতি পেয়েছে পৌরসভার ১১ নং ওয়ার্ড রান্ধুনীমুড়ায় অবস্থিত হাজীগঞ্জ ডিগ্রি কলেজ । ২০২২ইং সালের জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ উপলক্ষে গত ১৯ মে (বৃহস্পতিবার) এ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে উপজেলার শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসেবে স্বীকৃতি দেয়া হয়।
এ দিন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. রাশেদুল ইসলাম ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. মোস্তাফিজুর রহমানের যৌথ স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানা গেছে। এছাড়াও জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহে উপজেলা পর্যায়ে হামদ ও নাত, জারিগান, একক বিতর্ক ও বাংলা রচনায় হাজীগঞ্জ ডিগ্রি কলেজের শিক্ষার্থীরা শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করেছে।
এর মধ্যে হামদ ও নাতে শিক্ষার্থী মাহি আক্তার, জারিগানে রাকিবুল হাসান ও তার দল, একক বিতর্কে রঞ্জিতা পাল এবং বাংলা রচনায় রাইহাতুল জান্নাত
শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করে।
উল্লেখ্য, উপজেলা পর্যায়ে হাজীগঞ্জ ডিগ্রি কলেজ, এইচএসসি, এইচএসসি ভোকেশনাল, বিএ, বিএসএস ও বিএসসি পরীায় পাশের ক্ষেত্রে ধারাবাহিকভাবে শতভাগ কৃতিত্ব দেখিয়ে আসছে।
হাজীগঞ্জ পৌরসভার ১০ নং ওয়ার্ড রান্ধুনীমুড়া মজুমদার পরিবারের সদস্যরা হাজীগঞ্জ ডিগ্রি কলেজ প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ অধ্যাপক জাকির হোসেন মজুমদারের উদ্যোগে উপজেলার সকলের সহযোগীতা ৫৩ বছর আগে মজুমদার পরিবার ১৯৬৯ সালের ২২ জুলাই কলেজ প্রতিষ্ঠার জন্যে কন্ডিশনাল গিফট হিসেবে ৫ একর জমি দলিল করে যারা জমি দিয়েছিলেন তারা হলেন : আলহাজ্ব সেকান্দর মিঞা মজুমদার, এসকান্দর মিঞা মজুমদার, আবদুল মতিন মজুমদার, সামছুল হক মজুমদার, নূরুল ইসলাম মজুমদার, আবুল খায়ের মজুমদার, আবুল কাশেম মজুমদার, তাফাজ্জাল হোসেন মজুমদার, দেলোয়ার হোসেন মজুমদার, আলী হোসেন মজুমদার ও জাকির হোসেন মজুমদার।
কলেজের জমিসংক্রান্ত দলিলে এ দাতাগণের নাম উল্লেখ রয়েছে। দলিলে লেখা রয়েছে, আমরা দলিল দাতাগণ আমাদের পূূর্বপুরুষগণের আত্মার সদগতির উদ্দেশ্যে ও হাজীগঞ্জবাসীর কলেজ প্রতিষ্ঠার স্বপ্ন বাস্তব রূপদানের জন্যে মহান উদ্দেশ্যে আমরা আমাদের নিম্নোক্ত সম্পত্তি হাজীগঞ্জ কলেজ কমিটি বরাবরে দান করিয়া লিখিয়া দিতেছি।
এক প্রতিক্রিয়ায় হাজীগঞ্জ ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ মো. মাসুদ আহম্মদ কলেজ প্রতিষ্ঠার জন্য যারা
ভুমি দাতা ও প্রতিষ্ঠাতা সদস্য মজুমদার পরিবারসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।
ভুমি দাতা ও প্রতিষ্ঠাতা সদস্য মজুমদার পরিবারের মধ্যে যারা দুনিয়া থেকে চিরবিদায় নিয়েছেন তাদের সবার আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন ও সকলের নিকট দোয়া প্রার্থনা করেন। এ সময় তিনি কলেজের পরিবেশ,পড়ালেখার মান ও ফলাফলে ভবিষ্যতেও যেন এ শ্রেষ্ঠত্বে ধারা অব্যাহৃত থাকে, এ জন্য পরিচালনা পর্ষদ, শিক্ষক, অভিভাবক, শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসীর সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.