এটিই তাদের ঘর, এখানেই বসবাস

বাসস্থান বিড়ম্বনায় কচুয়ায় সিএনজি চালক রহিম
কচুয়া প্রতিনিধি :
অটো সিএনজি চালাতে গিয়ে প্রায় দুই বছর আগে মর্মান্তিক এক সড়ক দূর্ঘটনায় বুকে চাপা খায় চাঁদপুরের কচুয়ার চাংপুর গ্রামের সিএনজি চালক আব্দুর রহিম। পরবর্তীতে অর্থের অভাবে উন্নত চিকিৎসা নিতে পারেনি নিরীহ আব্দুর রহিম। একদিকে সংসারে আয় উপার্জন কমে যাওয়া অন্যদিকে ভালো ঘর না থাকায় স্ত্রী ও ৩ ছেলে মেয়ে নিয়ে ঝুপড়ি ঘরে অনেকটা খোলা আকাশের নিচেই বসবাস করছেন তিনি।
বৃহস্পতিবার উপজেলা বিতারা ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের চাংপুর গ্রামের মৃত. খোরশেদ আলমের ছেলে সিএনজি চালক আব্দুর রহিম বলেন, ঘর করার মতো ভিটা থাকলেও অর্থ ও সামর্থ্য নেই আমার। ফলে নিদারুন কষ্টের মধ্য দিয়েই ২ ছেলে ও স্কুলে পড়ুয়া কিশোরী কন্যাকে নিয়ে ঝুপড়ি ঘরে বসবাস করছি। তিনি একটি সরকারি ঘর পেতে উপজেলা প্রশাসনসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সহায়তা কামনা করেছেন।
আব্দুর রহিমের স্ত্রী জাহানারা বেগম বলেন, স্বামী সড়ক দূর্ঘটনায় আহত হওয়ায় এবং উপার্জন করার কেউ না থাকায় খেয়ে না খেয়ে কষ্টে দিন কাটাচ্ছি।
স্থানীয় অধিবাসী শাহজালাল পাটওয়ারী বলেন, বর্তমান যুগে এমন ঘরে কেউ বসবাস করে তা আমার জানা নেই। আমি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি নিরীহ আব্দুর রহিমকে একটি সরকারি ঘর দেয়ার জন্য জোর দাবি জানাই।
এব্যাপারে ৬নং ওয়ার্ডের নব নির্বাচিত ইউপি সদস্য শরীফ সরকার বলেন, বিষয়টি আমি নির্বাচনী কাজে প্রচারনা করতে গিয়ে জেনেছি। তবে পর্যায়ক্রমে নিরীহ আব্দুর রহিমকে সরকারি ঘর পেতে প্রয়োজনীয় সহায়তা করা হবে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.