কচুয়ায় ফোন পেলেই অক্সিজেন নিয়ে ছুটে যান আলোর মশালের সদস্যরা

কচুয়া প্রতিনিধি :
কচুয়ায় আলোর মশাল সামাজিক যুব সংগঠনের হট লাইনে ফোন পেলেই করোনা রোগীদের জন্য অক্সিজেন সিলিন্ডার নিয়ে ছুটে যান সংগঠনের সদস্যরা। রাত কী দিন,ভোর কী সকাল, দুপুর যে কোনো সময়ে ফোন পেলেই বিনামূল্যে অক্সিজেন সিলিন্ডার নিয়ে বাড়ি বাড়ি পৌছে দেন তারা। এ সেবা শুধু কচুয়া পৌরসভার ভিতরে নয়, পুরো উপজেলার ২৪৩টি গ্রামে কখনো সিএনজি, কখনো ভ্যান,কখনো মোটরবাইক সঙ্গী করে আলোর মশালের সংগঠনের সদস্যরা দিনরাত অবিরাম ছুটে যাচ্ছেন রোগীতের বাড়িতে। বর্তমানে এ সংগঠনের মাধ্যমে কচুয়া উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে প্রায় ৮০টি পরিবারকে ফ্রি অক্সিজেন সিলিন্ডার সেবা দেয়া হয়েছে।
কচুয়া আলোর মশাল সামাজিক যুব সংগঠনের সভাপতি ওমর ফারুক সায়েম মৃধা জানান, সংগঠনটি প্রতিষ্ঠার পর থেকে সংগঠনটি এলাকার সাধারন মানুষের কল্যাণে কৃষকদের ধান কেটে দেয়া, শীতবস্ত্র বিতরণ,চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা,শিশুদের নিয়ে পহেলা বৈশাখ উদযাপন,মেধাবীদের শিক্ষা বৃত্তি প্রদান,রসালো আম ও পাঞ্জাবী প্রদান,ব্লাড ডোনেশন,ঈদ সামগ্রী,গরীব ও দু:স্থ পরিবারের মাঝে খাদ্য সহায়তা,স্প্রে প্রদান,মাস্ক হ্যান্ড স্যানিটাইজার,করোনা রোগীদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে বিনামূল্যে অক্সিজেন সিলিন্ডার দিয়ে আসছি। তিনি আরো জানান, আমাদের এই কর্মকান্ডে যারা বিভিন্ন ভাবে সহযোগিতা ও পরামর্শ দিচ্ছেন তাদের প্রতি কৃতজ্ঞা জানাই। পাশাপাশি সেবা অব্যাহত রাখতে সকলের সহযোগিতা চাই। সেবা প্রার্থী জয়দেব কর্মকার জয় বলেন, করোনার শুরুতেই আমি প্রচন্ড জ¦র ও কাশি দেখা দিলে আলোর মশালের সদস্যদের সহযোগিতায় ফ্রি অক্সিজেন সেবা পাই। আমার জানা মতে সংগঠনটি আমার মতো শতশত পরিবারের পাশে অক্সিজেন সেবাসহ বিভিন্ন ভাবে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন।
সংগঠনের উপদেষ্টা ওমর খৈয়াম বাগদাদী রুমি জানান, আমরা চেষ্টা করছি মানুষের সেবা দেয়ার। সেবাই মানুষের ধর্ম। সংগঠনটির মাধ্যমে করোনা রোগীসহ শ্বাসকষ্ট জনিত রোগীদের সেবা দিয়ে আসছে। ভবিষ্যতে এ সংগঠনের সেবা কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।
উল্লেখ্য যে, কচুয়ায় আলোর মশাল সামাজিক যুব সংগঠনটি ২০১৫ সালের ১ ডিসেম্বর প্রতিষ্ঠা হয়। যার বর্তমান সভাপতি মো. ওমর ফারুক সায়েম মৃধা ও সাধারন সম্পাদক মো: ফরহাদ বকাউল। সংগঠনটি বিভিন্ন সামাজিক কর্মকান্ডের মাধ্যমে অল্প কয়েক বছরের মধ্যে পরিচিতি পেয়েছে।

কচুয়া: কচুয়ায় রাতের আধারে এভাবে অক্সিজেন নিয়ে রোগীদের বাড়িতে যান আলোর মশালের সদস্যরা ।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *