ঘন কুয়াশায় যাত্রীবাহী লঞ্চ দুর্ঘটনা এড়াতে সতর্ক থাকার নির্দেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক :
শীত মৌসুমে ঘন কুয়াশায় যাত্রীবাহী লঞ্চসহ নৌযান চলাচলের ক্ষেত্রে দুর্ঘটনা এড়াতে সতর্কতা অবলম্বনের নির্দেশনা দিয়েছে বিআইডাব্লিটিএ। বিশেষ করে নদীপথে হঠাৎ কুয়াশার সৃষ্টি হলে আবহাওয়া স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত যাত্রীবাহী লঞ্চ ও অন্যান্য নৌযান নিরাপদ স্থানে নিয়ে বন্ধ রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
চাঁদপুর নদী বন্দরের নৌ-নিরাপত্তা ও ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা বিভাগের উপপরিচালক এ. কে. এম. কায়সারুল ইসলাম এক জরুরী বিজ্ঞপ্তিতে অভ্যন্তরীণ নৌপথে চলাচলকারী নৌযানসমূহের মাস্টার, ড্রাইভার, সুকানি, গ্রীজার ও সংশ্লিষ্টদের এ নির্দেশনা দিয়েছেন।
এতে উল্লেখ করা হয়, শীত মৌসুমে দেশের বিভিন্ন নৌপথে ঘন কুয়াশায় আচ্ছন্ন থাকার কারণে অভ্যন্তরীণ নৌপথে নৌযান চলাচল বিঘ্নিত হওয়ার পাশাপাশি অনাকাক্সিক্ষত পরিস্থিতি বা বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটা আশংকা থাকে। যাত্রীদের নিরাপদ যাতায়াত নিশ্চিত করার লক্ষ্যে সকল ধরনের নৌযান/লঞ্চ, অভ্যন্তরীণ জাহাজ চলাচল বিধিমালা অনুযায়ী কুয়াশাচ্ছন্ন আবহাওয়ায় ব্যবহারযোগ্য শব্দ সংকেত এবং যে কোন বিরূপ অবস্থা মোকাবেলায় ও জরুরী প্রয়োজনে নৌযানের নৌযানের মাস্টারগণ বিআইডাব্লিউ কল সেন্টারে ১৬১১৩ যোগাযোগ রক্ষা করা এবং অন্যান্য প্রযোজ্য বিধিমালা যথাযথভাবে অনুসরণপূর্বক অতি সাবধানতার সাথে নৌযান ও লঞ্চ পরিচালনা করা অপরিহার্য। ধারাবাহিকভাবে অথবা পথিমধ্যে হঠাৎ ঘন কুয়াশার সৃষ্টি হলে আবহাওয়া স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত যাত্রীবাহী লঞ্চ ও নৌযান, বালুবাহী/মালবাহী কার্গো/নৌযান চলাচল সম্পূর্ণরূপে বন্ধ রাখার জন্য নির্দেশ প্রদান করা হলো।
বন্দর বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, চলমান শীত মৌসুমে কুয়াশাচ্ছন্ন আবহাওয়ায় যাত্রী ও নৌযানের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে যাত্রীবাহী লঞ্চসমূহের মাস্টারদের নিকটস্থ বিআইডাব্লিউটিএর নৌ-নিরাপত্তা ও ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা বিভাগ এবং বন্দর বিভাগের কর্মকর্তাদের সাথে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রক্ষা ও অভ্যন্তরীণ জাহাজ চলাচলে বিধিমালা অনুযায়ী প্রয়োজনীয় সাবধানতা অবলম্বন করে পরিচালনার জন্য নির্দেশ দেয়া হলো।
এ বিষয়ে বন্দর কর্মকর্তা এ. কে. এম. কায়সারুল ইসলাম বলেন, নৌপথে ঘুন কুয়াশার ক্ষেত্রে সবারই সতর্ক থাকতে হবে। তাই শীত মৌসুমে যাত্রীবাহী লঞ্চসহ অন্যান্য নৌদুর্ঘটনা এড়াতে সংশ্লিষ্টদের এ নির্দেশনা দিয়েছে বিআইডাব্লিউটিএ। কোন লঞ্চ ঘাট থেকে ছাড়ার পর ঘন কুয়াশা দেখলে আবহাওয়া স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত সেটি নিরাপদ স্থানে নিয়ে বন্ধ করে রাখতে হবে।
তিনি বলেন, গতকাল মতলব উত্তরের মোহনপুরে একটি লঞ্চ নষ্ট হয়ে যাত্রীসহ আটকা পড়ে। পরে খবর পেয়ে ঢাকা থেকে আরেকটি লঞ্চ এসে যাত্রীদের নির্ধারিত গন্তব্যে পৌছে দেয়। কোন সমস্যা হলে আমরা ব্যবস্থা নিচ্ছি।
তিনি আরও বলেন, ঘন কুয়াশায় দুর্ঘটনা এড়াতে নতুন কিছু অত্যাধুনিক লঞ্চে যন্ত্র আছে। তবে পুরনো লঞ্চগুলোতে এ যন্ত্র নেই।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.