চাঁদপুরে করোনা ও উপসর্গে ১২ জনের মৃত্যু, আক্রান্ত ১৭৪

নিজস্ব প্রতিবেদক :
চাঁদপুর ২৫০ শয্যার সরকারি জেনারেল হাসপাতালের আইসোলেশন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে করোনা আক্রান্ত হয়ে ৫ জন ও উপসর্গে ৭ জন মারা যান। ১১ আগস্ট বুধবার হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ও করোনা বিষয়ক ফোকালপারসন ডা. মো. সুজাউদ্দৌলা রুবেল এ তথ্য জানান করেন।
২৪ ঘন্টায় করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন কচুয়া উপজেলার রহিমানগরের শাহারপাড় এলাকার আব্দুল জলিল (৭৯), চাঁদপুর সদর উপজেলার মহামায়ার মান্দারি এলাকার মমতাজ বেগম (৪৫), মতলব দক্ষিণ উপজেলার বোয়ালিয়ার সুভাস চন্দ্র বল (৫৫), হাজীগঞ্জের শ্রীপুর গ্রামের শাহানারা বেগম (৫০), মতলব উত্তরের ফতেহপুর এনায়েত নগরের আয়েশা বেগম (৭৫)।
এছাড়া উপসর্গে মৃতরা হলেন চাঁদপুর সদর উপজেলার খলিসাঢুলি এলাকার ইসমাইল (৭০), নতুনবাজার মিশন রোড এলাকার সাঈদ পাটোয়ারী (৬৫), মধ্য মৈশাদীর আলী আশরাফ (৭৬), হাইমচরের আলগী পাচগাও এলাকার মহিউদ্দিন (৬৫), হাজীগঞ্জের শ্রীপুর গ্রামের শাহনাজ (৪৫), ফরিদগঞ্জ উপজেলার পশ্চিম বড়ালি গ্রামের তাহাজুতনেছা (৭৭), উত্তর হাসা এলাকার খাদিজা (৭০)।
এদিকে চাঁদপুরে আরও ১৭৪ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। ১০ আগস্ট মঙ্গলবার ৫৫৯ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১৭৪ জনের রিপোর্ট পজেটিভ আসে। স্বাস্থ্য বিভাগ জানায়, মঙ্গলবার আক্রান্তদের মধ্যে চাঁদপুর সদর উপজেলায় ৯২ জন, ফরিদগঞ্জে ১২ জন, হাজীগঞ্জে ২৭ জন, মতলব দক্ষিণ ২৮ জন, কচুয়ায় ১ জন, হাইমচরে ৪ জন, শাহরাস্তিতে ১০ জন।
এ নিয়ে জেলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১২ হাজার ৬১৭ জন। বর্তমানে জেলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা ২০৪ জন। ১০ আগস্ট পর্যন্ত আক্রান্তদের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ৮ হাজার ৯৭০ জন। এ তথ্য জানিয়েছেন সিভিল সার্জন ডা. মো. সাখাওয়াত উল্লাহ।
১০ আগস্ট পর্যন্ত জেলায় আক্রান্তদের মধ্যে সদর উপজেলায় ৫৩১৪ জন, হাইমচরে ৭২৮ জন, মতলব উত্তরে ৭২০ জন, মতলব দক্ষিণে ১১৩৬ জন, ফরিদগঞ্জে ১৩৮৪ জন, হাজীগঞ্জে ১২৭০ জন, কচুয়ায় ৬০৬ জন, শাহরাস্তিতে ১৪৫৯ জন।
মৃত ২০৪ জনের মধ্যে সদর উপজেলায় ৭৮ জন, ফরিদগঞ্জে ৩০ জন, হাজীগঞ্জে ২৫ জন, শাহরাস্তিতে ২৮ জন, কচুয়ায় ১১ জন, মতলব উত্তরে ১৩ জন, মতলব দক্ষিণে ১৩ জন, হাইমচরে ৬ জন।
জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ জানায়, এ পর্যন্ত জেলায় পরীক্ষা করা হয়েছে ৪৯ হাজার ৮৩৬ জনের। এর মধ্যে পজেটিভ ১২ হাজার ৫৯৮ জন আর নেগেটিভ ৩৭ হাজার ২৩৮ জনের রিপোর্ট। করোনা আক্রান্তদের মধ্যে বর্তমানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৩৪৪৩ জন। এদের মধ্যে ১০০ জন হাসপাতালের আইসোলেশনে এবং ৩৩৪৩ জন হোম আইসোলেশনে রয়েছেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.