চাঁদপুরে জলাশয় থেকে হোটেল ব্যবসায়ীর মরদেহ উদ্ধার

আশিক বিন রহিম :
চাঁদপুরের ষোলঘর এলাকায় পানি উন্নয়ন বোর্ড ও সড়ক বিভাগের সরকারী লেক থেকে অসিম (৩৫) নামের এক মিস্টান্ন ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।
১১ অক্টোবর সোমবার দুপুরে শহরের ষোলঘর এলাকার সদর উপজেলা পরিষদ ও সার্কিট হাউসের সামনের লেক থেকে ভাসমান অবস্থায় লাশটি উদ্ধার করা হয়। নিহত অসিম শহরের কোড়ালিয়া এলাকার মানিকের ছেলে। সে শহরের পালবাজারের মানিক রেস্টুরেন্ট পরিচালনা করতো। তার স্ত্রী নেই, বর্তমানে দুটি সন্তান রয়েছে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, শহরের ষোলঘর এলাকার সদর উপজেলা পরিষদের সম্মূখে সরকারী লেকে লাশটি ভাসতে দেখা যায়। ফর্সা বর্ণের ওই ব্যক্তিরর পরনে টি-শার্ট ও ট্রাউজার ছিলো। এরপর একটু একটু করে সেখানে উৎসুক জনতার ভীড় বাড়তে থাকে।
খবর পেয়ে চাঁদপুর মডেল থানার উপ-পরিদর্শক মো. ফারুক হোসেন সংঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে স্থানীয়দের সহায়তায় লেকের পানি থেকে মরদেহটি উদ্ধার করে। এ খবর চারদিকে ছড়িয়ে পড়লে উৎসুক জনতা এক নজর দেখার জন্য ভীড় করে। এতে করে চাঁদপুর-কুমিল্লা আঞ্চলিক মহাসড়কে কিছুটা যান চলাচলে বিঘ্ন ঘটে।
ঘটনার পরপর চাঁদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুদিপ্ত রায়, পৌর মেয়র জিল্লুর রহমান জুয়েল, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোঃ আসিফ মহিউদ্দীন, চাঁদপুর সদর মডেল থানার ওসি মোহাম্মদ আবদুর রশিদসহ অন্যান্যরা ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন।
নিহতের ভাই রিপন জানায়, রোববার রাতে টাকা পয়সা নিয়ে মোবাইল বাসায় রেখে ঘর থেকে বের হয়ে যায়। তারপর থেকে আর আমার ভাইয়ের হদিস পাওয়া যায় নি।
চাঁদপুর সদর মডেল থানার ওসি মোহাম্মদ আবদুর রশিদ জানায়, আমরা খবর পেয়ে লাশটি লেক থেকে উদ্ধার করেছি। তার শরীরে কোন আঘাতের চিহ্ন দেখা যায়নি। ময়নাতদন্ত ছাড়া কিছু বলা যাবে না। তবে এই ঘটনার রহস্য উন্মোচনে সব রকমের আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।
এদি এই খবরে ওই যুবকের লাশ এক নজর দেখার জন্যে সেখানে শত শত উৎসুক জনতা ভীড় জমায়। এতে করে চাঁদপুর-কুমিল্লা আঞ্চলিক মহাসড়কের পাশের ওই স্থানটিতে কিছু সময়ের জন্য যানজটের সৃষ্টি হয়। এই যানজট নিরসনে ট্রাফিক পুলিশ কিছুটা বেকায়দায় পড়ে। সেখানে উপস্থিত জনতার বেশির ভাগ মানুষকে লেকের পানিতে ভাসা যুবকের লাশের ছবি তাদের স্মার্টফোনের ক্যামেরায় ধারণ করতে দেখা যায়।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *