চাঁদপুরে মা ইলিশ রক্ষায় মাছ শিকার বন্ধের প্রথম দিনে টাস্কফোর্সের মহড়া

মা ইলিশ নিধন না করলে আগামীতে ঝাঁকে ঝাঁকে আসবে : অঞ্জনা খান মজলিশ
: নিজস্ব প্রতিবেদক :
মা ইলিশ রক্ষা কার্যক্রম বাস্তবায়নের লক্ষ্যে নদীতে মহড়া ও নৌ র‌্যালি করেছে চাঁদপুর জেলা টাস্কফোর্স। নৌ মহড়ায় মৎস্য, নৌ পুলিশ, কোস্টগার্ড, ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা একাধিক জাহাজ, স্প্রীডবোট নিয়ে অংশ নেয়। সোমবার (৪ অক্টোবর) সকাল ১০টায় এই কর্মসূচি পালন করা হয়।


এর আগে শহরের তিন নদীর মোহনায় বড় স্টেশন মোলহেডের উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ।
এ সময় তিনি বলেন, অভয় আশ্রমের ২২ দিন নদীতে কোনোভাবেই জেলেদের নামতে দেওয়া হবে না। এ বিষয়ে জেলা প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী কঠোর অবস্থানে থাকবে। যদি কেউ এই নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। প্রাকৃতিক সম্পদ ইলিশ রক্ষায় শুধু জেলে নয়, সবাইকে সচেতন হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।
জেলা প্রশাসক বলেন, জাতীয় সম্পদ ইলিশ রক্ষায় আমাদের সকলকে সচেতন থাকবে হবে। এ ক্ষেত্র প্রশাসনের পাশাপাশি জনপ্রতিনিদের ভূমিকা সবথেকে বেশি। একটি মা ইলিশ রক্ষা করা মানে ১২-১৩ লাখ ইলিশ মাছ রক্ষা করা। তাই ইলিশ প্রজননের এই সময়ে মা ইলিশ নিধন না করলে আগামীতে সুফল পাব। ঝাঁকে ঝাঁকে ইলিশ ঘাটে আসবে। সেক্ষেত্রে ইলিশের দাম অনেক কমে যেতে পারে। আর দাম কমলে ধনী-গরীব সবাই ইলিশ খেতে পারব।
পুলিশ সুপার মিলন মাহমুদ বলেন, মা ইলিশ রক্ষা কার্যক্রম বাস্তবায়ন করার জন্য কঠোর অবস্থানে রয়েছে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী। শুধু নদীতে নয় স্থলভাগেও যাতে কেউ মাছ বিক্রি করতে না পারে সেজন্য কঠিন নজরদারি রাখা হবে।
চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র মো. জিল্লুর রহমান জুয়েল বলেন, শুধু জেলে নয়, মা ইলিশ রক্ষা বাস্তবায়ন করতে আমাদের সকলকে সচেতন হতে হবে। সরকার ঘোষিত এই নির্দেশনা যদি আমরা মেনে চলি তাহলে এর সুফল আমরা নিজেরাই ভোগ করব।
এ সময় ইলিশ গবেষক ড. আনিসুর রহমান, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ সারওয়ার, নৌ- পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. বেলায়েত হোসেন, জেলা মৎস্য কর্মকর্তা গোলাম মেহেদী হাসান, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সানজিদা শাহনাজ, কোস্টগার্ড স্টেশন কমান্ডার সাব-লেফটেন্যান্ট রুহান মঞ্জুর, চাঁদপুর প্রেসক্লাব সভাপতি ইকবাল হোসেন পাটোয়ারী, সদর উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা সুদীপ ভট্টাচার্য ও সহকারী কর্মকর্তা মাহবুবুর রশিদ, চাঁদপুর পৌরসভার প্যানেল মেয়র ফরিদা ইলিয়াস, চাঁদপুর নৌ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুজাহিদুল ইসলাম, জেলা কান্ট্রিফিশং মালিক সমিতির সভাপতি শাহ আলম মল্লিক উপস্থিত ছিলেন।
উল্লেখ্য, মা ইলিশ রক্ষার মধ্য দিয়ে উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে আগামী ২৫ অক্টোবর পর্যন্ত মাছ ধরা বন্ধ থাকবে। ইলিশ বিচরণ করে এমন সব নদ-নদী ও সাগর মোহনাসহ প্রজনন ক্ষেত্রে মাছ শিকার করতে পারবে না জেলেরা।
সেই সঙ্গে ইলিশ ক্রয়-বিক্রয়, পরিবহন ও মজুত নিষিদ্ধ করা হয়েছে। নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে কেউ মাছ শিকার করলে এক থেকে সর্বোচ্চ দুই বছর কারাদণ্ড, পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা অথবা উভয় দণ্ডের বিধান রয়েছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *