চাঁদপুরে লঞ্চ যাত্রীদের উপর হামলা, সুপারভাইজারসহ আটক ৫

নিজস্ব প্রতিবেদক :
চাঁদপুর লঞ্চ ঘাটে যাত্রীদের উপর হামলার ঘটনায় জাহিদ ৭ লঞ্চের সুপারভাইসারসহ ৫ স্টাফকে আটক করেছে চাঁদপুর নৌ থানা পুলিশ। হামলার শিকার যাত্রী মোশারফ হোসেন ভূইয়া বাদী হয়ে আটককৃতদের নাম প্রকাশ করে ও অজ্ঞাত ৫/৬ কে আসামী করে চাঁদপুর নৌ থানায় মামলা দায়ের করেন।
জানা যায়, দক্ষিণাঞ্চল থেকে ছেড়ে আসা ঢাকা অভিমুখী যাত্রীবাহী লঞ্চ এম ভি জাহিদ-৭ যোগে পটুয়াখালী জেলার বাউফল থানার ধুলিয়া ইউনিয়নের ঘূচরাকাঠি গ্রামের মোশারফ হোসেন ভূঁইয়া তার পরিবারের সদস্যদের নিয়ে এ লঞ্চ যোগে চট্টগ্রাম যাওয়ার জন্যে চাঁদপুর আসে। লঞ্চের ভেতরে মোশারফ ভূইয়ার ছেলে মেহেদী হাসান ও ভাতিজা কাউসার কেবিনের সামনে দাড়িয়ে কথা বলছিল । এ সময় কেবিন বয় যাত্রীর জন্য চা নিয়ে আসলে চা পরে যায়।
এ নিয়ে লঞ্চ স্টাফ ও যাত্রী মেহেদী হাসান ও কাউসারের সাথে কথা কাটাকাটি হয়। চাঁদপুর লঞ্চ ঘাটে লঞ্চটি যাত্রাবিরতী করলে যাত্রী মোশারফ ভূইয়া তার পরিবার নিয়ে লঞ্চ থেকে নামতে গেলে লঞ্চ সুপার ভাইজার সাইদুর মৃধা ও স্টাফরা মিলে তাদের কে লাঠি সোটা দিয়ে বেদম ভাবে পিটিয়ে আহত করে। চাঁদপুর নৌ পুলিশ দ্রæত ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে ও লঞ্চের স্টাফদের আটক করে থানায় নিয়ে।
এ ঘটনায় চাঁদপুর নৌ পুলিশ জাহিদ লঞ্চের সুপারভাইজার পটুয়াখালীর বাউফল থানার ছহিস্যা তাঁতের কাঠি গ্রামের সাইদুর রহমান মৃধা (৩০), ভোলার শশীভুষন থানার রসুলপুর গ্রামের হোসেন (৪০), পটুয়াখালীর বাউফল থানার সিংহেরা কাঠি গ্রামের রাসেল হাওলাদার ( ২৭), পটুয়াখালীর বাউফল থানার তাহের কাঠি গ্রামের জুয়েল খন্দকার (২৩) ও বরিশাল জেলার বাকেরগঞ্জ থানার বড় রঘুনাথপুর গ্রামের রাজিব হোসেন খান ( ২২) কে পুলিশ আটক করেছে। হামলায় গুরুতর আহত রাকিব চৌধুরী ( ১৮), শিমুল বেগম (৩৫), লিমা আক্তার (১৮), মেহেদী হাসান (১৭) ও কাউসার (২০) কে রাতেই পুলিশ উদ্ধার করে চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা করিয়েছে।
এ বিষয়ে চাঁদপর নৌ থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ কামরুজ্জামান জানান, হামলার শিকার যাত্রী মোশারফ হোসেন ভূইয়া বাদী হয়ে আটকৃতদের বিরুদ্ধে মামলা দাঢের করেন। দুপুরের পরে আটকৃতদেরকে আদালতে প্রেরণ করা হয়।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.