চাঁদপুর জেলা প্রশাসকের সাথে সাহিত্য একাডেমির এডহক কমিটির শুভেচ্ছা বিনিময়

স্টাফ রিপোর্টার :
চাঁদপুরের নবাগত জেলা প্রশাসক কামরুল হাসানের সাথে সাহিত্য একাডেমির নবগঠিত এডহক কমিটির নেতৃবৃন্দরা শুভেচ্ছা বিনিময় করেছেন। ৬ জুন সোমবার সকাল সাড়ে ৯ টায় তারা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে গিয়ে সৌজন্য সাক্ষাত ও শুভেচ্ছা বিনিময় করেন।
এসময় চাঁদপুর সাহিত্য একাডেমির নবগঠিত এডহক কমিটির পক্ষ থেকে জেলা প্রশাসক কামরুল হাসানকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয়। পাশাপাশি এডহক কমিটির নেতৃবৃন্দরা জেলা প্রশাসক তাদের প্রকাশিত বই ও সম্পাদিত লিটলম্যাগ উপহার দেন।
শুভেচ্ছা বিনিময়কালে সাহিত্য একাডেমির এডহক কমিটির নেতৃবৃন্দরা জেলা প্রশাসককে জানান, দায়িত্বভার বুঝিয়ে পাবার পর অচিরেই সাহিত্য একাডেমির সদস্য নির্নয় এবং সদস্য হালনাগাদসহ এর সাংবিধানিক কাঠামোয় যা যা করনীয়ে কথা রয়েছে তা করা হবে। সাহিত্য একাডেমির কার্যক্রম গতিশীল করার পাশাপাশি বিপুল সংখ্যক বই দিয়ে একটি সমৃদ্ধ লাইব্রেরী গড়ে তোলা হবে। যেখানে থেকে লেখক ও সাহিত্যপ্রেমিরা তাদের বই পাঠের ক্ষুধা মেটাতে পারবে।
এসময় উপস্থিত ছিলেন, নবগঠিত এডহক কমিটির আহ্বায়ক চাঁদপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) রাশেদা আক্তার, সদস্য সচিব কবি ও সাংবাদিক মোঃ শাহাদাৎ হোসেন শান্ত, এডহক কমিটির সদস্য শিক্ষক ও লেখক অধ্যাপক জালাল চৌধুরী, শিক্ষক, লেখক ও সাংবাদিক মোঃ ইকবাল হোসেন পাটোয়ারী, কবি ও লেখক আবদুল্লাহিল কাফী, কবি, গল্পকার ও সাংবাদিক কাদের পলাশ, কবি, গল্পকার ও সংগঠক আশিক বিন রহিম।
উল্লেখ্য, গত ২৪ মে চাঁদপুরের সাবেক জেলা প্রশাসক ও চাঁদপুর সাহিত্য একাডেমির সাবেক সভাপতি অঞ্জনা খান মজলিশের সভাপতিত্বে একাডেমির নির্বাহী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভার উপস্থিত সদস্যদের সর্ব সম্মতিক্রমে সাহিত্য একাডেমির সভাপতি হিসেবে জেলা প্রশাসক গঠনতন্ত্রের ২৪ এর (ছ) উপ-ধারার ক্ষমতাবলে বর্তমান নির্বাহী পরিষদ বিলুপ্ত ঘোষনা করেন।
পাশাপাশি অন্তর্বর্তীকালীন কার্য পরিচালনার জন্য গঠনতন্ত্রের ২৪ এর (জ) উপ-ধারা অনুযায়ী ১১ সদস্য বিশিষ্ট অন্তর্বর্তীকালীণ কমিটি (এডহক কমিটি) গঠন করার সিদ্ধান্ত নেন। কোন প্রকার সংশোধনী ছাড়াই কার্যবিবরণী সর্বসম্মতিক্রমে অনুমোদন করা হয়। পরে ২৫ মে সাবেক জেলা প্রশাসক ও সাহিত্য একাডেমির সভাপতি স্বাক্ষরিত এক পত্রে নতুন এডহক কমিটি অনুমোদন দেন। এডহক কমিটির আরো যারা সদস্য তারা হলেন – অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ( সার্কেল) আসিফ মহিউদ্দীন, সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক সংগঠক অজয় কুমার ভৌমিক, লেখক ও কবি মাহাবুবুর রহমান সেলিম, লেখক জাহাঙ্গীর হোসেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.