জেলেদের হালনাগাদ তালিকা কিছুদিনের মধ্যেই হবে : জেলা প্রশাসক

চাঁদপুরে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়
: নিজস্ব প্রতিবেদক :
‘বেশি বেশি মাছ চাষ করি বেকারত্ব দূর করি’ এ প্রতিপাদ্য বিষয় নিয়ে জাতীয় মৎস সপ্তাহ উপলক্ষে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় সভা সম্পন্ন হয়েছে।


শনিবার (২৮ আগস্ট) সকাল ১০টায় চাঁদপুর জেলা প্রশাসক সম্মেলন কক্ষে এ সভার আয়োজন করা হয়।
সভায় সভাপতির বক্তব্য রাখেন, চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ। তিনি বলেন, আমাদের চাঁদপুর জেলায় প্রায় ৫১ হাজার ১শ’ ৯০জন জেলে রয়েছে, এটা আমি হালনাগাদ করতে বলেছি যা কিছুদিনের মধ্যে হয়ে যাবে। যারা পেশা পরিবর্তন করেছে, যারা মারা গেছে তাদের নাম যেন এই তালিকায় না থাকে। প্রকৃত জেলেদের নাম যেন এই তালিকায় থাকে। জেলে এলাকায় গিয়ে বসে জেলেদের সাথে এবং জনপ্রতিনিধিদের সাথে কথা বলে, স্কুল শিক্ষিক এবং গণ্যমান্য ব্যক্তির সামনে এই তালিকাটি করার জন্যে বলা হয়েছে। জেলা প্রশাসক বলেন, আমি চাই জেলেরা মাছ চাষ করেই জীবিকা নির্বাহ করুক। অভিযান চলাকালীন ২ মাস তাদেরকে যদি আমরা কোন কাজে রাখি তাহলে তারা কোন কষ্টের মধ্যে থাকবে না। আমি চাই তারা জেল না খাটুক। অভিযানের সময় জেলখানা পূর্ণ হয়ে যায়। তারা এই কারাদন্ড থেকে পেতে আবার লোন করতে হয়। তাই নিষিদ্ধ সময়ে এমন কাজ তাদের দিতে হবে, যেটি তার জন্য প্রযোজ্য এবং সে যেন তখন না নামে।
জেলা প্রশাসক বলেন, আমি প্রতিটি জেলে পল্লীতে গিয়ে সভা করেছি, জনপ্রতিনিধিদের সংযুক্ত করার চেষ্টা করেছি। আমরা অনেক জনপ্রতিনিধিদের অনুরোধ করেছি প্রশাসনকে সহায়তা করার জন্যে কিন্তু অনেক সময় আমরা তাদের কাছ থেকে সহায়তা পাইনি। তবে সবাই যে এমন তা নয়। কিছু কিছু জনপ্রতিনিধি ছাড়া অনেকই আমাদের সহায়তা করেছেন। এই সহযোগিতা যদি আরো বেশি হয় তাহলে আমাদের অভিযান সফল হবে। কারণ প্রায় ৭০ কিলোমিটার নদী একার পক্ষে প্রশাসনের পাহাড়া দেয়া সম্ভব নয়।
জেলা প্রশাসক আরো বলেন, আমি লিখিত আকারে প্রস্তাব দিয়েছি জেলেদের যে প্রণোদনা দেয়া হয় চাল, সে চাল না দিয়ে আমরা তাতের ১০টাকা মূল্যের একাউন্ট খুলে দেবো আর সেই একাউন্টে সরাসরি টাকা চলে যাবে। কারণ দেখা চাল নিতে তারা বিভিন্নরকম হয়রানির শিকার হয় এবং তারা তা সঠিক সময়ে পায় না। আর ভ্যান গাড়ি সেলাই মেশিন তারা কি করবে, যে জিনিসটা পেলে তাদের উপকার হবে সে জিনিসটাই তাদেরকে দেয়া দরকার। জেলা প্রশাসক বলেন, ২ মাস স্বল্প সময়ে ট্রনিং দিয়ে বিকল্প কোন ব্যবস্থা করতে পারি তা তাদের জন্যে উপকার হবে। আর তিনি ইলিশ গবেষণা ইনস্টিটিউটের কাছে প্রস্তাব রাখেন, জাটকার এই দু’ মাস সময়টা না রেখে আরো কিছু সময় কমিয়ে আনা যায় কিনা, তা আপনারা ভেবে দেখবেন। কারণ এটি একটি দীর্ঘ সময় বলে মনে হয়। জাটকা মারের প্রকৃত সময়টা কোন সময়টা তা আপনারা আরো ভালোভাবে দেখেন। তবে সেটির জন্য আপনারাদের গবেষকদের বিষয়টি অবশ্যই প্রাধান্য পাবে। জেলা প্রশাসক জেলা কর্মকর্তা ও জেলা মৎস অফিসকে আরো সতর্ক হওয়ার কথা বল্লেন। সাংবাদিকদের প্রশ্নবানে মৎস সপ্তাহের বিষয়ে তথ্য উপাত্ত সেভাবে উপস্থাপন না করায় জেলা প্রশাসক অসন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, এরকম হওয়া উচিত ছিলো না। সামনে সব তথ্য উপাত্তগুলো নিয়ে আসবেন। যা সাংবাদিকদের লেখার জন্য তো উপকার হবেই, জেলাবাসীও জানতে পারবে।
জেলা মৎস কর্মকর্তা মো. গোলাম মেহেদী হাসান এর সঞ্চালনায় আরো বক্তব্য রাখেন, মৎস গবেষনা ইন্সটিটিউটের বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. আনিছুর রহমান, প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকবাল হোসেন পাটওয়ারী, সাধারণ সম্পাদক রহিম বাদশা, চাঁদপুর কন্ঠ এর প্রধান সম্পাদক ও প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি কাজী শাহাদাত, প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি এএইচএম আহসান উল্লাহ, সোহেল রুশদী, বিএম হান্নান, গিয়াস উদ্দিন মিলন, টেলিভিশন সাংবাদিক ফোরামের সাধারণ সম্পাদক রিয়াদ ফেরদৌস, প্রথম আলো এর জেলা প্রতিনিধি আলম পলাশ, পার্থনাথ চক্রবর্তী, ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশন এর জেলা প্রতিনিধি আব্দুল আউয়াল রুবেল, ডিবিসি এর জেলা প্রতিনিধি তালহা যুবায়ের, নাজমুল হোসেন শান্ত প্রমুখ।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *