জয়নাল আবেদীন মজুমদারের ৫ম বারের মতো সিআইপি মর্যাদা অর্জন

চাঁদপুর প্রতিদিন রিপোর্ট :
দেশের রপ্তানী বাণিজ্যে (চামড়াজাত দ্রব্য) বিশেষ অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে রপ্তানী উন্নয়ন ব্যুরো কর্তৃক জয়নাল আবেদীন মজুমদার, ব্যবস্থাপনা পরিচালক, এবিসি ফুটওয়্যার ইন্ডাষ্ট্রিজ লিমিটেড, সিআইপি (রপ্তানী)-২০১৮ হিসেবে ৫ম বারের মতো মনোনীত হলেন । বাণিজ্য মন্ত্রী টিপু মুনশীর হাত থেকে বৃহস্পতিবার ২০ জানুয়ারি ২০২২, সি আই পি কার্ড গ্রহন করেন তিনি। মাননীয় মন্ত্রী তাঁকে এ সম্মানীয় কার্ডটি পরিয়ে দেন।
উল্লেখ্য, জয়নাল আবেদীন মজুমদারের প্রতিষ্ঠিত প্রতিষ্ঠানের মধ্যে দুইটি প্রতিষ্ঠান- এবিসি ফুটওয়্যার ইন্ডাষ্ট্রিজ লিমিটেড এবং বিবিজে লেদার গুডস লিমিটেড পাঁচবার রপ্তানীতে (চামড়াজাত দ্রব্য) জাতীয় রপ্তানী ট্রফি অর্জন করে।
জনাব জয়নাল আবেদীন মজুমদার দেশের শীর্ষ ব্যবসায়িক সংগঠন এফবিসিসিআই এর স্ট্যান্ডিং কমিটি অন হাইড এন্ড স্কিন, লেদার এন্ড লেদার গুডস এন্ড আর্টিফিসিয়াল লেদার কমিটির ২০২১-২০২৩ সালের জন্য কো-চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। এছাড়াও তিনি বাংলাদেশ ফিনিশড লেদার, লেদার গুডস এন্ড ফুটওয়্যার এক্সপোর্টারস এসোসিয়েশন-এর ২০২২-২০২৩ সালের জন্য কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। এভাবে তিনি দেশের চামড়া শিল্পের বিকাশ ও প্রসারে জন্য বিশেষ ভূমিকা রেখে চলেছেন।
চামড়াখাত ও রপ্তানী বানিজ্যে ভূমিকা ছাড়াও দেশের শিক্ষা ব্যবস্থাতেও রয়েছে তাঁর বিশেষ অবদান। চাঁদপুরে তাঁর নিজ গ্রাম সিহিঁর চৌঁ-তে গড়ে তোলেন প্রাথমিক বিদ্যালয়। শিক্ষা ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের জন্য চাঁদপুর জেলা প্রশাসক কর্তৃক ২০১৯ সালে তিনি জেলার শ্রেষ্ঠ বিদ্যোৎসাহী নির্বাচিত হন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের পরিকল্পনা বাস্তবায়নের ধারবাহিকতায় জনাব জয়নাল আবেদিন মজুমদার কর্তৃক প্রতিষ্ঠিত প্রতিষ্ঠান সমূহে মানব সম্পদ উন্নয়ন ও দক্ষতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে, ব্যবস্থাপনার মধ্য পর্যায় অর্থাৎ যুগোপযোগী মিডলেভেল ম্যানেজমেন্ট নির্মানের জন্য তাঁর প্রতিষ্ঠানের সকল কর্মকর্তা ও শ্রমিকদের নিয়মিত প্রশিক্ষণের মাধ্যমে বিভিন্ন কর্মশালার আয়োজন করেন। এসকল কর্মশালায় তিনি নিজে এবং দেশী-বিদেশী প্রশিক্ষক দ্বারা পরিচালনা করেন। এভাবে আমাদের দেশের উৎপাদন ক্ষেত্রে দূর্বল মিডলেভেল ম্যানেজমেন্টকে দক্ষ ও যোগ্যতর করে শক্তিশালী শ্রমব্যবস্থা নির্মানে অক্লান্ত পরিশ্রম করে চলেছেন।
তাঁর সুদুর প্রসারী কর্মপরিকল্পনা দেশ ও দেশের শিক্ষা এবং অর্থনৈতিক উন্নয়নের ধারাকে শক্তিশালী করতে ভূমিকা রাখছে এবং ভবিষ্যতেও রাখবে।
এই কর্মজীবন জীবন ও সম্মান প্রাপ্তিতে চাঁদপুরবাসীর পক্ষ থেকে শুভকামনা ও আন্তরিক অভিনন্দন জানিয়েছেন, বিভিন্ন ব্যবাসয়িক প্রতিষ্ঠান ও বিশিষ্টজনরা । জয়নাল আবেদীন মজুমদার তাঁর এ প্রাপ্তিতে এক প্রতিক্রিয়ায় বলেন, চার দশকেরও বেশি সময় ধরে চামড়াজাত শিল্পের সাথে জড়িত রয়েছি। সফলতাও পেয়েছি। জীবনে এতোটুকু আসার পেছনে ছিলো নিজের একটা পরিকল্পিত স্বপ্ন এবং কঠিন শ্রম। ব্যবসা বাণিজ্যের প্রসারের বা সাফল্য পেতে হলে আপনাকে আন্তরিকতার সাথে কাজ করতে হবে। দেশপ্রেম থাকতে হবে। শিক্ষা প্রশিক্ষন এসবকে প্রাধান্য দিতে হবে। দক্ষ জনগোষ্ঠী গড়ে তোলতে হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভীষন -২০৪১ তথা উন্নত দেশে বাংলাদেশকে নিতে হলে আমাদের কথা কম বলে কাজ করতে হবে। আর এটি খুব সম্ভব, যদি আমরা কাজ করি।
জনাব জয়নাল আবেদীন মজুমদার, হাজীগঞ্জ সিহির চোঁ গ্রামে সম্ভ্রান্ত এক মুসলিম পরিবারে জন্ম গ্রহন করেন। তার দু’ সন্তানও একই শিল্প ক্ষেত্রে অনন্য অবদান রেখে চলেছেন। তিনি জেলা সদরের পুরান বাজার ঐতিহ্যবাহী সাবেক প্রধানমন্ত্রী মিজানুর রহমান চৌধুরী বাড়ির প্রয়াত জিয়াউদ্দিন ( জীবন) চৌধুরীর বড় জামাতা।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.