দেশে ডিজিটাল সেবার ক্ষেত্রে একটি বৈপ্লবিক পরিবর্তন হয়েছে : শিক্ষামন্ত্রী

চাঁদপুরে ডিজিটাল সেন্টারের ১১ বছর পূর্তি উদ্যাপন
: নিজস্ব প্রতিবেদক :
চাঁদপুরে ডিজিটাল সেন্টারের ১১বছর পূর্তি উদযাপন ও ডিজিটাল বাংলাদেশ ই-সেবা ক্যাম্পেইন-২০২১ উদ্বোধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। ১৬ নভেম্বর চাঁদপুর সদর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে জেলা প্রশাসন আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন শিক্ষা মন্ত্রী ডা. দীপুপু মনি এমপি।
তিনি বলেন, নাগরিক সেবার জন্য ইউনিয়ন পর্যায়ে ডিজিটাল সেন্টার স্থাপিত হয়েছিলো ১১ বছর আগে। সেই সেবা দেশের প্রত্যেকটি ইউনিয়নে নাগরিকরা পেতে শুরু করেছিল। এক সময় এসব সেবা জেলা পর্যায়েও পাওয়া যেতনা, তা এখন হাতের কাছে পাওয়া যাচ্ছে। যার ফলে মানুষের হয়রানি, অর্থ ও সময় কমেছে। এই ১১ বছরে দেশে ডিজিটাল সেবার ক্ষেত্রে একটি বৈপ্লবিক পরিবর্তন হয়েছে। সেই সেবা এখন সকলেই পাচ্ছে।
তিনি বলেন, দেশের সাড়ে ৪ হাজার ডিজিটাল সেবা সেন্টার শুধুমাত্র সেবাই দিচ্ছেন না বরং প্রত্যেকটি সেন্টারে একজন পুরুষ ও একজন নারী উদ্যোগক্তা তৈরী করেছে। এসব উদ্যোগক্তাদের মধ্যে অনেকেই কাজ শিখে কেউ কেউ দেশের বাহিরে গিয়ে কর্মসংস্থানে যোগ দিয়েছেন। আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে এই ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার ক্ষেত্রে সহযোগিতা করেছিলেন তথ্য ও প্রযুক্তি উপদেষ্টা সজিব ওয়াজেদ জয়।
শিক্ষামন্ত্রী বলেন, গ্রাম শহর হয়ে যাওয়া মানে ইট কনক্রিটে জঙ্গল হয়ে যাবে না, মানে হচ্ছে গ্রামে বসেই শহরের সকল নাগরিক সুবিধা পাব। কিন্তু গ্রামের যে সৌন্দর্য ও বৈশিষ্ট তা যেন নষ্ট না হয়। আমাদের শহরে শ্বাস নেয়ার জায়গা নেই, আকাশ দেখার যায়গা নেই। গ্রামে সব চাষাবাদ থাকবে, গ্রামের সকল বৈশিষ্ট থাকবে কিন্তু শহরের সকল নাগরিক সুবিধা পাবে।
অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক (ডিসি) অঞ্জনা খান মজলিশ। সঞ্চালনায় ছিলেন জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এনামুল হাসান।
অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন পুলিশ সুপার (এসপি) মো. মিলন মাহমুদ পিপিএম বার, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল, চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র মো. জিল্লুর রহমান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মোছাম্মৎ রাশেদ আক্তার, চাঁদপুর সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম নাজিম দেওয়ান প্রমূখ। উদ্যোক্তাদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন নাজমুল হাসান ও আইনুন্নাহার।
অনুষ্ঠানের শুরুতেই বেলুন উড়িয়ে ও কেক কেটে ডিজিটাল সেন্টারের ১১ বছর পূর্তি উদযাপন ও ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ ই-সেবা ক্যাম্পেইন-২০২১’ উদ্বোধন করেন মন্ত্রী।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *