ফরিদগঞ্জে নেতাকর্মীদের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণে আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা

সকল ভেদাবেধ ভুলে দলের স্বার্থে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে :মুহম্মদ শফিকুর রহমান এমপি
ফরিদগঞ্জ প্রতিনিধি :
বৃষ্টি উপেক্ষা করে নেতা-কর্মীদের স্বতঃস্ফূর্ত অংশ গ্রহণের মধ্যদিয়ে শান্তিপূর্ণভাবে ফরিদগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভা সম্পন্ন হয়েছে।
১৮ জুন শনিবার সকাল ১১ টায় জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্যদিয়ে উপজেলা আ’লীগের কার্যালয়ে উক্ত বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়।
সভায় উপজেলা আ’লীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল খায়ের পাটওয়ারীর সভাপতিত্বে এবং সাধারন সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আবু সাহেদ সরকারে পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন, স্থানীয় সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মুহম্মদ শফিকুর রহমান, সাবেক সংসদ সদস্য ও জেলা আ’লীগের সাবেক সভাপতি ডক্টর মোহাম্মদ শামছুল হক ভূঁইয়া, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ¦ নাছির উদ্দীন আহম্মেদ ভূঁইয়া, সহ-সভাপতি বাবু সন্তোষ চন্দ্র, সাধারন সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু নঈম দুলাল পাটওয়ারী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট জহিরুল ইসলাম, দপ্তর সম্পাদক শাহ্ আলম, প্রচার সম্পাদক আবু নাছের বাচ্চু পাটওয়ারী, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডাক্তার হারুন অর-রশিদ সাগর, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক রফিকুল আমিন কাজল, শ্রম বিষয়ক সম্পাদক নুরুল ইসলাম মিয়াজিসহ উপজেলা, পৌরসভা ও ইউনিয়ন আ’লীগের নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।
সভায় সাংসদ মুহম্মদ শফিকুর রহমান বলেন, অতীতের সকল ভেদাভেদ ভুলে দলের বৃহত্তর স্বার্থে এবং জাতির পিতার সুযোগ্য কন্যা দেশরতœ শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালি করতে ঐক্যেবদ্ধ হয়ে কাজ করি। তিনি আরো বলেন, প্রত্যেকের মধ্যে পছন্দ অপছন্দ থাকাটা দোষের কিছু নয়। কিন্তু নির্বাচনে শেখ হাসিনা ও নৌকার প্রশ্নে এক এবং অভিন্ন থাকতে হবে। নিজকে আওয়ামীলীগ দাবী করলে নৌকা প্রতীকের বিরোধিতা করার কোন সুযোগ নেই। দলের ত্যাগী নেতাকর্মীদের অবমূল্যায়ন করা যাবে না।
একই সভায় সাবেক সাংসদ ড. মোহাম্মদ শামছুল হক ভুঁইয়া বলেন, ১৯৬২ সন থেকে ছাত্রলীগ করার মধ্যে দিয়ে নিরলস ভাবে আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে সক্রিয় ছিলাম এবং বর্তমানেও আছি। আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে যুক্ত নেতাকর্মীরা দলের নেতাকর্মীদের মূল্যায়ন করেই ঐক্যবদ্ধ থেকে দলের স্বার্থে কাজ করতে হবে।
জেলা আ’ল’ীগের নেতৃবৃন্দ বলেন, আওয়ামী লীগের দলে থেকে যারা নৌকার বিরোধিতা করবে তারা দলের শত্রæ। তাদেরকে ইতোমধ্যে চিহ্নিত করা হয়েছে এবং যারা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বিদ্রোহী হয়ে বা বিদ্রোহীদের পক্ষে কাজ করেছে তাদেরকে দল থেকে আজীবনের জন্য বহিষ্কার করা হয়েছে।
জেলা আ’লীগ নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, আ’লীগ এবং নৌকার প্রশ্নে সকল ভেদাভেদকে ভুলে গিয়ে ঐক্যবদ্ধ হয়ে দলকে সু-সংগঠিত করার লক্ষে কাজ করতে হবে, কারণ ঐক্যবদ্ধ আ’লীগ অনেক শক্তিশালী।
এ সময় প্রতিটি ইউনিয়নে সাংগঠনিক টিম গঠন করে প্রতিটি ইউনিয়ন, ওয়ার্ড ও পৌরসভার কমিটি গঠন করার জন্য উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রতি নির্দেশনা দেন সাংগঠনিক টিমের নেতৃবৃন্দ।
শান্তিপূর্ন ভাবে বর্ধিত সভাটি সম্পন্ন করার স্বার্থে সকাল থেকেই পুলিশের উপস্থিতিতে কড়া নিরাপত্তা বেষ্টনীর মধ্যে দিয়ে সভাটি সম্পন্ন করা হয়েছে। এই সভাকে কেন্দ্র করে সকাল থেকেই উপজেলার বিভিন্ন ভিবিন্ন ইউনিয় থেকে নেতাকর্মীরা দলীয় শ্লোগান নিয়ে হাজির হতে দেখা গেছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.