বাংলাদেশ-সৌদির মধ্যে কৃষি ও মৎস্যখাতে যৌথ সহযোগিতার প্রস্তাব রাষ্ট্রদূতের

নিজস্ব প্রতিবেদক :
বাংলাদেশের কৃষি ও মৎস্য খাতে অর্জিত সাফল্য ও অভিজ্ঞতা সৌদি আরবের সাথে বিনিময় এবং এ দুটি খাতে একসাথে কাজ করার প্রস্তাব দিয়েছেন সৌদি আরবে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ড. মোঃ জাবেদ পাটোয়ারী বিপিএম (বার)।
তিনি সোমবার সৌদি আরবের পরিবেশ, পানি ও কৃষি বিষয়ক মন্ত্রী আবদুল রহমান আল ফাদলি এঁর সাথে তাঁর কার্যালয়ে সাক্ষাতকালে এ আগ্রহ ব্যক্ত করেন। খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত কল্পে ও পরিবেশ সুরক্ষায় বনায়ন কার্যক্রমে বাংলাদেশ দক্ষ ও অভিজ্ঞ শ্রমিক উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখতে পারে বলে রাষ্ট্রদূত জানান।
রাষ্ট্রদূত বলেন, বাংলাদেশ চাল ও সবজি উৎপাদনে বিশ্বে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে। কৃষি ও মৎস্য খাতে বাংলাদেশের এই সফলতার পেছনে রয়েছে সঠিক পরিকল্পনা, গবেষণা ও দক্ষ জনশক্তি যা বাংলাদেশকে আজকে খাদ্যে সয়ংসম্পুর্নতা অর্জনে সহায়তা করেছে। তিনি আরো উল্লেখ করেন বাংলাদেশের অনেক শ্রমিকরা সৌদি আরসহ মধ্যপ্রাচ্যের অনেক দেশে কৃষি ও মৎস্য খামারে কাজ করে সফলতা পেয়েছে। রাষ্ট্রদূত কৃষি ও মৎস্য উৎপাদন বৃদ্ধিতে বাংলাদেশ সৌদি আরবের সাথে সহযোগিতার জন্য সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরের প্রস্তাব দেন। পাশাপাশি প্রয়োজন সাপেক্ষে বাংলাদেশ দক্ষ কৃষি শ্রমিক প্রেরণ করবে বলে জানান।
রাষ্ট্রদূত বলেন, বাংলাদেশ থেকে সবজি ও মাছ সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্য ও অন্যান্য দেশে রপ্তানী করা হচ্ছে। সৌদি আরব বাংলাদেশ থেকে সুলভমুল্যে আরো বেশি কৃষি পণ্য, মৌসুমি ফল ও মাছ আমদানির প্রস্তাব দেন তিনি।
একই সাথে রাষ্ট্রদূত খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিতকল্পে আফ্রিকার আগ্রহী কোন দেশে সৌদি বিনিয়োগে বাংলাদেশের দক্ষ কৃষি ও মৎস্য শ্রমিক কাজ করতে পারে মর্মে উল্লেখ করেন, যা খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিতের পাশাপাশি সকলের জন্য লাভজনক হবে বলে জানান।
রাষ্ট্রদূত ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী সৌদি আরবের কৃষি বিষয়ক মন্ত্রী আবদুল রহমান আল ফাদলি ও মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের কৃষি বিষয়ে অর্জন ও সফলতা অবলোকনের জন্য এবং এ বিষয়ে দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতার সম্ভাব্য ক্ষেত্র যাচাইয়ের জন্য বাংলাদেশ সফরের আমন্ত্রন জানান।
বাংলাদেশের ডেল্টা প্ল্যান ২১০০ বাস্তবায়নের কথা উল্লেখ করে রাষ্ট্রদূত বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকি মোকাবেলা করে দীর্ঘ মেয়াদে খাদ্য ও পানির নিরাপত্তা ও টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিতকরনের মাধ্যমে সমন্বিত পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। জলবায়ু পরিবর্তনের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় বাংলাদেশ কাজ করে যাচ্ছে, এই ঝুঁকি মোকাবেলায় সৌদি আরবের সাথে বাংলাদেশ নবায়নযোগ্য জ্বালানি ও বৃক্ষরোপণ বিষয়ে একসাথে কাজ করতে চায়।
রাষ্ট্রদূত ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বলেন, সৌদির বৃক্ষরোপণ ও সবুজায়ন কর্মসূচি বাস্তবায়নে বাংলাদেশের শ্রমিকদের অংশগ্রহণের পাশাপাশি এ বিষয়ে বাংলাদেশের সাথে একটি সমঝোতা স্মারক ও স্বাক্ষর করা যেতে পারে যাতে সৌদি পরিবেশ উপযোগী চারা নার্সারিতে উৎপাদনসহ দুদেশের মধ্যে বিভিন্ন গবেষণা ও বৃক্ষরোপণ বিষয়ে কারিগরি সহায়তা বিনিময় করা যেতে পারে।
সৌদি কৃষি মন্ত্রী কৃষি, মৎস্য ও জলবায়ু সংরক্ষনে বাংলাদেশের ভূমিকা ও সফলতার ভূয়সী প্রশংসা করেন। বাংলাদেশের সাথে কৃষি, মৎস্য ও পরিবেশ বিষয়ে সহযোগিতার সম্ভাব্য ক্ষেত্র নির্ধারনে দূতাবাসের সাথে আলোচনা অব্যাহত রাখবেন মর্মে আশা প্রকাশ করেন।
বৈঠকে দূতাবাসের ইকনমিক কাউন্সেলর মুর্তুজা জুলকার নাঈন নোমান ও কাউন্সেলর মোঃ হুমায়ুন কবীর উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.