সব দ্বিধাদ্বন্দ্ব ভুলে গিয়ে দলকে সুসংগঠিত করতে হবে : মাহবুব-উল আলম হানিফ

আশিক বিন রহিম :
বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ এমপি বলেছেন, আমাদের বঙ্গবন্ধুর কন্যা, জননেত্রী শেখ হাসিনার চাঁদপুরের মানুষদের অনেক বেশি ভালোবাসে। আর এজন্যে চাঁদপুরের উন্নয়নে তিনি দু’হাত উজাড় করে দিয়েছেন। শুধু তাই নয়, তিনি প্রতি বার সরকার গঠন করার সময় চাঁদপর থেকে একাধিক এমপিকে মন্ত্রিত্ব দিয়েছেন। আওয়ামি লীগের কেন্দ্রীয় কমিটিতে চাঁদপুরের অসংখ্য নেতাকে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব দিয়েছেন। তাই চাঁদপুরের মানুষের কাছে আমাদের চাওয়া, চাঁদপুরের মানুষ যেন জননেত্রী শেখ হাসিনার ভালোবাসার প্রতিদান দেয়।
২ অক্টোবর দুপুরে চাঁদপুর চাঁদপুর স্টেডিয়াম মাঠে জেলা আওয়ামী লীগের তৃণমূল প্রতিনিধি সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।
তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর কন্যা জনেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ বিশ্ব দরবারে একটি মর্যাদাশালী রাষ্ট্র হিসেবে প্রতিষ্ঠা পেয়েছে। তিনি দেশকে উন্নয়নের মহাসড়কে নিয়ে গেছে। আপনারা শেখ হাসিনা উন্নয়নের কথা জনগণের কাছে তুলে ধরতে হবে। চাঁদপুরেও ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। আগামীতে সব দ্বিধাদ্বন্দ্ব ভুলে গিয়ে দলকে সুসংগঠিত করতে হবে। দলের মধ্যে কোন বিভাজন রাখা যাবে না। আমি শুনেছি ফরিদগঞ্জ ও কচুয়ায় এমপিরা দলের গঠনতন্ত্রকে পাশ কাটিয়ে কাজ করেন। এটি ঠিক না। কারণ আপনারা আইন প্রণেতা। আপনারা যা করবেন, যা করবেন দলের গঠনতন্ত্র মেনে করবেন।
তিনি বলেন, গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে নির্বাচনে অংশ নেয়া অধিকার যেমন কারো আছে, তেমনি অংশ না নেয়ার অধিকারও সবার আছে। কেউ যদি মনে করে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে না, সেটি তাদের গণতান্ত্রিক অধিকার। তবে এই বাংলাদেশে তত্ত্বাবধায়ক সরকার আর কখনো হবে না। দলীয় সরকারের অধিনেই নির্বাচন হবে। কারন আমাদের দেশের সর্বোচ্চ আদালতে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের ব্যবস্থার বিরুদ্ধে রায় দিয়েছে। ফলে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের বিধান আর কখনো কাজে দিবে না।
হানিফ বলেন, বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন হলে আওয়ামী লীগ ৩০টি আসনও পাবে না। এমন কথা বিগত ২০০৮ সালে বেগম খালেদা জিয়াও বলেছিলেন। ফলে নির্বাচনের পর তাদেরকেই সেই ভাগ্য বরণ করতে হয়েছে। সুতরাং আগামীদিনেও এই দলটির পরিণতি কি হয়, তা সময়ই বলে দেবে। বিএনপি এমন কোন কাজ করেনি যাতে জনগণ তাদের ক্ষমতায় দেখতে চায়।

 

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *